১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কুকুর ঘেউ ঘেউ করলে যাত্রা থেমে থাকে না ॥ উত্তর কোরিয়া


কুকুর ঘেউ ঘেউ করলে যাত্রা থেমে থাকে না ॥ উত্তর কোরিয়া

অনলাইন ডেস্ক ॥ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকিকে ‘কুকুরের ঘেউ ঘেউ’-এর সঙ্গে তুলনা করল উত্তর কোরিয়া।

মঙ্গলবার জাতিসংঘে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হুমকি দেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্রদের ওপর হামলা করলে উত্তর কোরিয়াকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দেওয়া হবে।’

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং-হো বুধবার নিউ ইয়র্কে ট্রাম্পের এ হুমকির বিরুদ্ধে কড়া প্রতিক্রিয়া জানান। এ দিন জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে সেখানে পৌঁছান রি ইয়াং-হো।

হোটেলে প্রবেশের সময় রি ইয়াং-হোকে ঘিরে ধরেন সাংবাদিকরা। ট্রাম্পের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে তাকে প্রশ্নের পর প্রশ্ন করতে থাকেন তারা। এক পর্যায়ে একটি কোরীয় প্রবাদের মাধ্যমে উত্তর দেওয়া শুরু করেন।

রি ইয়াং-হো বলেন, ‘কুকুর ঘেউ ঘেউ করলেও যাত্রা থেমে থাকে না।’ অর্থাৎ যে যা বলছে বলুক, তাতে কিছুই যায় আসে না, যা চলছে তা চলবেই।

তিনি বলেন, ‘তারা যদি কুকুরে মতো ঘেউ ঘেউ শব্দ করে আমাদের আঘাত দেওয়ার চেষ্টা করে, তাহলে বলল, তারা দুঃস্বপ্নের মধ্যে আছে।’

বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্নপ্রায় উত্তর কোরিয়া বলে আসছে, আগ্রাসী যুক্তরাষ্ট্রের হাত নিজেদের রক্ষা করতে তাদের পারমাণবিক শক্তির খুবই দরকার। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রসহ বাকি বিশ্ব উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কার্যক্রমের বিরুদ্ধে। জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র একের পর এক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেও দেশটির লাগাম টানতে পারছেন না। উপরন্তু নিষেধাজ্ঞা যত বাড়ছে, তাদের পারমাণবিক কার্যক্রমও তত বাড়ছে।

উত্তর কোরিয়ার একমাত্র ঘোষিত লক্ষ্য, তাদের পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র যেন যুক্তরাষ্ট্র পর্যন্ত পৌঁছায়। সেপ্টেম্বর মাসে ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে একটি হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষায় সফলতার দাবি করেছে দেশটি। জুলাই মাসে দুটি আন্তঃমহাদেশীয় বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে পিয়ংইয়ং। তাদের দাবি, এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত করতে সক্ষম। উত্তর কোরিয়ার এসব দাবি যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্র দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপানকে ভাবিয়ে তুলেছে।

ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে উত্তর কোরিয়ার হাক ডাকের মধ্যে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট তার বক্তব্যে দেশটির উদ্দেশে কড়া বার্তা দিয়েছেন। সেই বার্তার উত্তরে আরো একধাপ চড়াও হলো উত্তর কোরিয়া। ট্রাম্পের হুমকিকে তারা পাত্তাই দিল না।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও জাপান বলেছিল, কথা বলার দিন শেষ। আলোচনা বা কূটনীতি দিয়ে কাজ হবে না। কিন্তু এসব হুমকিকে উত্তর কোরিয়া যেন আমলেই নেয়নি।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: