১৮ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মেক্সিকোতে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ২৪৮


মেক্সিকোতে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ২৪৮

অনলাইন ডেস্ক ॥ শক্তিশালী ভূমিকম্পে ২৪৮ জনের মৃত্যুর পর মেক্সিকো এখন ধ্বংসস্তূপের ভেতরে প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজে যাচ্ছে। ভেঙে পড়া বহুতল ভবনের নিচে চাপা পড়েছেন অনেকেই। তাদের মধ্যে যারা জীবিত আছেন তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। ভূমিকম্পের জেরে বিপর্যস্ত রাজধানী শহর-সহ দেশের বিস্তীর্ণ এলাকা। বিদ্যুতহীন ৩৮ লাখ মানুষ। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে মেক্সিকো সিটির সমস্ত স্কুল। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া হাসপাতালগুলোকে দ্রুত সংস্কারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে ৭ দশমিক ১ মাত্রার এই ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে মোরেলাস ও পুয়েবলা রাজ্যে। বিভিন্ন স্থানে গ্যাস লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে; কয়েকটি ভবনে অগ্নিকাণ্ডেরও খবর এসেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

স্থানীয় এজেন্সির বরাত দিয়ে ভূমিকম্পে ২৪৮ জনের প্রাণহানির খবর দিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এবং কাতারভিত্তিক আলজাজিরা। তবে ভবনের ধ্বংসস্তূপে অনেকের চাপা পড়ে থাকার আশঙ্কা থাকায় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে আরও প্রাণহানির আশঙ্কার কথা জানানো হয়েছে।

এক টুইটার পোস্টে দেশটির বেসামরিক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে মেক্সিকো সিটি, মেক্সিকো স্টেট, পুয়েবলা ও মোরেলস শহর। মেক্সিকো সিটিতে অন্তত ১১৭ জনের প্রাণহানি হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এছাড়া মোরেলেসে ৭২, এবং পুয়েবলা রাজ্যে ৪৩ জনের প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করেছেন তারা। আলজাজিরা জানিয়েছে, মেক্সিকো সিটির দশ কিলোমিটর দূরবর্তী মেক্সিকো স্টেটেও ভূমিকম্পের কারণে অন্তত ১২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়া গুয়েরেতে ৩ জন ওয়াসাকাতে ১ জন

ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে মেক্সিকো সিটি, মেক্সিকো স্টেট, পুয়েবলা ও মোরেলস শহর। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, মেক্সিকো সিটির সাতাশটি বহুতল ভেঙে পড়েছে। ধূলিসাৎ বহু দোকানপাট। ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে পড়েছেন বহু মানুষ। দ্রুত গতিতে চলছে উদ্ধার কাজ। উদ্ধারকারী দলের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছেন।

মেক্সিকো সিটি হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম জনবহুল শহর। প্রেসিডেন্ট এনরিখ পেনা নিয়েতো বলেছেন সেখানে অন্তত ২৭টি ভবন বিধ্বস্ত হয়েছে। ভূমিকম্পের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘একটি নতুন জাতীয় দুর্যোগের মুখোমুখি আমরা’। রাতভর উদ্ধার অভিযান চলবে বলেও জানান তিনি। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানাচ্ছে গোটা রাজধানী শহরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে এবং শহরের বিভিন্ন জায়গায় আগুন লেগেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, এ ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল মেক্সিকো সিটি থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে পুয়েবলা রাজ্যের আতেনসিঙ্গো এলাকায়। কেন্দ্র ছিল ভূ-পৃষ্ঠের ৫১ কিলোমিটার গভীরে।

বিবিসির খবেরে বলা হয়, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বেলা ১টার পরপর এই ভূমিকম্পে সব কিছু কাঁপতে শুরু করলে মানুষ আতঙ্কে রাস্তার বেরিয়ে আসে।

ড্যানিয়েল লিবারসন নামের এক পর্যটক জানান, ভূমিকম্পের সময় তিনি ছিলেন একটি হোটেলের ২৬ তলায়। পুরো ভবন তখন এপাশ-ওপাশ দুলছিল। ভেঙে পড়ছিল জানালর কাচ।

টেলিভিশনে আসা ছবিতে দেখা যায়, রাজধানীতে একটি বহুতল ভবনের মাঝের একটি ফ্লোর ধসে গেছে, সেখানে ছুটে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা। আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, একটি সরকারি ভবনের এক পাশ রাস্তায় পড়ছে এবং পথচারীরা চিৎকার করছেন।

১৯৮৫ সালের এই দিনেই আরেকটি ভয়াবহ ভূমিকম্পে কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছিল মেক্সিকোতে। উত্তর আমেরিকার ভূমিকম্পপ্রবণ এই দেশের দক্ষিণাঞ্চলে চলতি মাসের শুরুতেই আরেকটি বড় ধরনের ভূমিকম্প হয়। ৮ দশমিক ১ মাত্রার ওই ভূমিকম্পে নিহত হয় অন্তত ৯০ জন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: