২০ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বন্যার্তদের পাশে না দাঁড়িয়ে লন্ডনে নাতিদের নিয়ে শপিং করছেন খালেদা॥ মায়া


নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও, ১৮ আগস্ট ॥ বন্যায় দেশে কোন ত্রাণ সঙ্কট নেই উল্লেখ করে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, দেশের মানুষ যখন বন্যার পানিতে হাবুডুবু খাচ্ছে তখন বিএনপি’র নেত্রী লন্ডনে বসে দেশের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র আর নাতি-নাতনিদের নিয়ে শপিং করে বেড়াচ্ছেন। আওয়ামী লীগ সরকার বন্যা চলাকালীন ও পুনর্বাসন পর্যন্ত বন্যার্ত মানুষের পাশে ছিল এবং থাকবে।

মন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে ঠাকুরগাঁওয়ের বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে শহরের শিল্পকলা একাডেমি এলাকায় ত্রাণ বিতরণকালে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের এমপি রমেশ চন্দ্র সেন, ঠাকুরগাঁও-২ আসনের ইয়াসিন আলী এমপি, সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবু, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক কুরাইশী প্রমুখ।

মানুষের খাদ্যের ব্যবস্থা নেই বলে মির্জা ফখরুল যে কথা বলেছেন তা সঠিক নয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল বন্যায় কয়বস্তা চাল বিতরণ করেছেন? শুধু ঢাকায় বসে ফাঁকা আওয়াজ দেন? মির্জা ফখরুল হঠাৎ ঠাকুরগাঁওয়ে বেড়াতে এসে বন্যা পেয়ে বক্তব্যে বলেছেন, আওয়ামী লীগ নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত। সামনে নির্বাচন, ব্যস্ততো থাকব না তো কি করব, ভোট না হলে মানুষের সেবা করব কিভাবে। বিএনপি যে ষড়যন্ত্র নিয়ে ব্যস্ত সেটা তো বলেন না।

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া বন্যার সময় দেশের মানুষের পাশে না থেকে লন্ডনে বসে মা, ছেলে মিলে ষড়যন্ত্র আর কেনাকাটা নিয়ে ব্যস্ত। কিভাবে একটি গণতান্ত্রিক সরকারকে সরিয়ে ক্ষমতায় আসা যায় সেই নিয়ে ষড়যন্ত্র করতে ব্যস্তসময় পার করছেন তারা। লন্ডনে নাতি, ছেলেকে নিয়ে ঘুরে লিপিস্টিক কিনছেন। কেন বন্যায় মানুষের বিপদের সময় তো দেশে এলেন না।

মন্ত্রী বন্যাকবলিত মানুষের কষ্ট দূর না হওয়া পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী বন্যার্তদের পাশে আছেন উল্লেখ করে বলেন, খাদ্য, টাকা কোন কিছুরই অভাব নাই। চাইবেন ১শ’ পাবেন ১শ’ ১০ টাকা। শেখ হাসিনার সরকার বারবার দরকার। এ সময় তিনি আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কাকে জয়ী করার আহ্বান জানান।

মন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি নেতারা বন্যা নিয়ে ঘোলা পানিতে রাজনীতি করার পাঁয়তারা করছে। বন্যায় যারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে ঘর-বাড়ি হারিয়েছেন তাদের এখন ও ভবিষতেও সহযোগিতা করা হবে। আওয়ামী লীগ সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ায়- তাদের সাহায্য করে। আর এটাই হচ্ছে আওয়ামী লীগের রাজনীতি। সরকারের হাতে প্রচুর খাদ্য মজুদ রয়েছে। তা বিতরণেরও সক্ষমতা রয়েছে। কাজেই ত্রাণ নিয়ে কোন প্রকার ঘাটতি অথবা গাফিলতি হবে না। তবে কোথাও কোন অনিয়ম হলে তা সহ্য করা হবে না। পরে মন্ত্রী বন্যাদুর্গতদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ শেষে বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।