১৬ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হিলি স্থলবন্দরে ২ সপ্তাহ ধরে আটকে থাকা ৪৫০টি ট্রাকের চাল খালাস শুরু


হিলি স্থলবন্দরে ২ সপ্তাহ ধরে আটকে থাকা ৪৫০টি ট্রাকের চাল খালাস শুরু

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ আমদানী শুল্ক ১০ থেকে কমিয়ে শতকরা ২ ভাগ করায় প্রায় ২ সপ্তাহ পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে ভারত থেকে আমদানী করা চাল বৃহস্পতিবার খালাস করতে শুরু করেছেন আমদানীকারকরা। বুধবার খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সভায় খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডঃ কামরুল ইসলাম আমদানি চালের উপর বিদ্যমান থাকা ১০ শতাংশ থেকে ২ শতাংশ শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্ত জানান। এরফলে বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে এই আদেশ স্থলবন্দরের কাস্টমস কার্যালয়ে পৌছালে খালাস কার্যক্রম শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। চাল আমদানিতে শুল্ককর কমছে, এমন খবরে এবং বিদ্যমান শুল্ক দিয়ে আটকে থাকা চাল খালাস করা হলে আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কায় চালের খালাস কার্যক্রম ২ সপ্তাহ ধরে বন্ধ রাখেন আমদানীকারকরা। ফলে বন্দরের বেসরকারি অপারেটর পানামা পোর্টের অভ্যন্তরে ভারতীয় ৪৫০টি ট্রাকে প্রায় ১৪ হাজার মেট্রিকটন চাল খালাসের অপেক্ষায় আটকে থাকে।

বন্দরের আমদানিকারক ব্যবসায়ী শাহিন হোসেনসহ অনেকে জানান, আগের ১০ শতাংশ শুল্ককর দিয়ে আটকে থাকা চাল ছাড় করা হলে ব্যবসায়ীরা আর্থিক ভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হতেন। এখন ২ শতাংশ শুল্ককর দিয়ে ছাড় করা হচ্ছে এসব চাল। এর ফলে কমে আসবে চালের দাম। ৩২-৩৫ টাকায় পাওয়া যাবে আমদানি করা চাল।

বেসরকারি অপারেটর পানামা পোর্টের ব্যবস্থাপক অসিত কুমার স্যানাল জানান, ১৪-১৫ ধরে বন্দরের পানামা পোর্টে ৪৫০টি ভারতীয় ট্রাকে সাড়ে ১৩ হাজার মোট্রিকটন আমদানি করা চাল খালাসের অপেক্ষায় আটকে ছিল। চালের শুল্ক কমের ফলে ব্যবসায়ীরা চাল খালাস প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করেছেন এবং খালাস করে নিচ্ছেন।

বন্দরের কাস্টমস সুপারিনটেনডেন্ট ফখর উদ্দীন জানান, বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে চাল আমদানিতে শুল্ক কমের আদেশ পেয়েছি। চাল ছাড়করণের জন্য ব্যবসায়ীরা এই পর্যন্ত ২০টি বিল অব এন্ট্রি কাস্টমস কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন। আগে ১০ শতাংশ ছিল চালের শুল্ক। এখন ২ শতাংশ করা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: