মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ আগস্ট ২০১৭, ৪ ভাদ্র ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

আদালত বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে না ॥ কাদের

প্রকাশিত : ১৩ আগস্ট ২০১৭

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির ক্ষমতায় যাওয়ার রঙিন খোয়াব কর্পূরের মতো উবে যাবে। বিদেশীরা যেমন বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেয়নি, তেমনি আদালতও তাদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে না। আদালত বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে এমন স্বপ্ন যারা দেখছে তারা অবাস্তব স্বপ্ন দেখছে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের যৌথ উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ছাত্র সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের কঠোর সমালোচনা করে বলেন, ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে আপীল বিভাগের রায়ে বাংলাদেশের রাজনীতিতে অঘটন ঘটিয়ে ডিগবাজির চ্যাম্পিয়ন মওদুদ আহমদ আনন্দে মেতে উঠেছেন। এই মওদুদ সাহেব জিয়া সরকার থেকে পদত্যাগ করেছিলেন, কারণ জিয়াউর রহমান ইংরেজী জানেন না বলে। একথা কী ভুলে গেছেন বিএনপি নেতারা?

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন ও অর্জনকে যারা সহ্য করতে পারছে না তারা আদালতের একটি রায়কে কেন্দ্র করে এই সাফল্যকে নস্যাত করার জন্য ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। তিনি এ ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করার জন্য ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের শপথ নেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে এবং আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তারা নতুন নতুন ইস্যু তৈরির চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, আদালতের রায়ে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার এবং ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের বাড়ি যখন হাতছাড়া হয় তখন আদালত নিরপেক্ষ থাকে না। কিন্তু যখন আদালতের কোন রায় বিএনপির পক্ষে যায় তখন তারা আদালত নিরপেক্ষ বলে লাফালাফি করে।

বেগম জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করে মওদুদ আহমদ এরশাদের মন্ত্রী হয়েছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বহুরূপী মওদুদের পরামর্শ গ্রহণ করে বিএনপি আগেই অর্ধেক ডুবে গেছে, বাকি অর্ধেকটুকুও ডুবে যাবে।’ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করতে হবে। ষড়যন্ত্রের খুঁটি কোথায় তা আমরা জানি। দেশের জনগণের মধ্যে যাদের খুঁটি নেই, তারাই ষড়যন্ত্র করার জন্য খুঁটি খোজে। কারণ জনগণের মধ্যে তাদের (বিএনপি) খুঁটি থাকলে তারা ষড়যন্ত্র করত না।

বিএনপির উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা আন্দোলন করতে ব্যর্থ, নির্বাচনে হেরে যাবে বলে অংশ নেয়নি। তারা আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে ষড়যন্ত্রের জাল পেতেছে। সরকার হটাতে নতুন নতুন ইস্যু খুঁজে বেড়াচ্ছে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামী আলমগীরকে উদ্দেশে করে তিনি বলেন, আপনি এত লাফালাফি করছেন কেন? গত আট বছরে আট মিনিটের জন্যও আন্দোলন করতে পারেননি। পারেননি কারণ, জনগণ আপনাদের সঙ্গে ছিল না। এতদিন যারা আন্দোলনের ডাক দিয়ে ঘরে বসে হিন্দি সিরিয়াল দেখে সময় কাটাতো, এখন ঘর থেকে বেরিয়ে এসে আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে উঠেছে; যেন আদালত তাদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে। তাই মির্জা আলমগীর সাহেবকে বলতে চাই, আওয়ামী লীগ কখনও পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসেনি। বিএনপির জন্মই হয়েছে বন্দুকের নল দিয়ে, পেছনের দরজা দিয়ে তারা ক্ষমতায় এসেছে। অন্ধকার আর ষড়যন্ত্রের পথ দিয়েই তারা এগিয়ে যাচ্ছে।

ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এমপি, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, ডাঃ দীপু মনি এমপি, আব্দুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহকারী একান্ত সচিব এ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগ দক্ষিণের সভাপতি বায়োজিদ আহমদ খান ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

প্রকাশিত : ১৩ আগস্ট ২০১৭

১৩/০৮/২০১৭ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: