মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বিসিবির ক্রিকেট কোচের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৭, ০৫:০৬ পি. এম.
বিসিবির ক্রিকেট কোচের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য ও বিসিবি এবং প্রচেষ্টা ক্রিকেট কোচিং সেন্টারের কোচ আবু সামাদ মিঠুর বিরুদ্ধে প্রমীলা ক্রিকেটারদের যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে।

যৌন হয়রানীর শাস্তি দাবী করে সেই প্রমীলা ক্রিকেটারের পিতা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার সিনিয়র সহ সভাপতি পুলিশ সুপার হামিদুল আলমের কাছ প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেছেন। অভিযোগ পাওয়ার পর জেলা প্রশাসক ব্যবস্থা নিবেন বলে জানিয়েছেন।

যৌন হয়রানীর শিকার প্রমীলা ক্রিকেটারের পিতা ১৪ জুন জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিতভাবে অভিযোগ করে বলেছেন, তার মেয়ে দিনাজপুর বড় মাঠে কোচ আবু সামাদ মিঠুর অধীনে ক্রিকেট অনুশীলন করে আসছে। তার মেয়ের সাথে আরো অনেক মেয়ে ওই মাঠে ক্রিকেট অনুশীলন করে থাকে।

১ জুন মাঠে অনুশীলন করার সময় ক্রিকেট বলের আঘাতে তার মেয়ে আহত হয়। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য মিঠু স্পোর্টস ভিলেজে নিয়ে যায় এবং সঙ্গে থাকা তার বান্ধবীদের মাঠে চলে যেতে বলে। অন্যান্য মেয়েরা চলে গেলে মিঠু বরফ দেয়ার নাম করে তার মেয়েকে জোর করে চেপে ধরে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে মেয়ে চিৎকার করলে মিঠু পালিয়ে যায়।

লিখিত অভিযোগে তিনি আরো জানান, তার মেয়ের বয়স মাত্র ১৫ বছর, সে নবম শ্রেণীতে পড়ে। ঘটনার পর মেয়ে বাসায় ফিরে আসার পর থেকে নিরব হয়ে যায়। খাওয়া দওয়া, কথা বলা বন্ধ করে দেয়, মাঠে আসা বন্ধ করে দেয়। বাবা হিসাবে তিনি কিংকর্তব্যবিমুড় হয়ে পড়েছেন।

নিজের মেয়েসহ অন্যান্য মেয়েদের কথা চিন্তা করে তিনি প্রতিবাদ করার সিদ্ধান্ত নেন। অভিযোগে তিনি বলে, ঘটনার সত্যতা যাচাই করতে যেয়ে অন্যান্য মেয়েদের কাছে জানতে পারেন যে, অন্য মেয়েদের সাথেও কোচ মিঠু এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। কিন্তু ভয়ে ও লজ্জায় এর আগে কেউ মুখ খুলেনি। অনেক মেয়ে ধীরে ধীরে মাঠ ছেড়ে দিয়েছে।

এ ব্যাপরে দিনাজপুর জেলা ক্রিকেট কোচ (বিসিবি) নির্বাহী সদস্য জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য আবু সামাদ মিঠুর কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

অভিযোগ সর্ম্পকে জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, প্রশাসনিক বিষয়কে সামনে রেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৭, ০৫:০৬ পি. এম.

১৯/০৬/২০১৭ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: