২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আরব ইসলামী শীর্ষে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব যাচ্ছেন আজ


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরব ইসলামিক আমেরিকান (এআইএ) সম্মেলনে যোগ দিতে সৌদি আরবে চারদিনের সরকারী সফরে শনিবার সন্ধ্যায় রিয়াদের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহ্সানুল করিম বলেন, সৌদি বাদশাহ এবং পবিত্র দুই মসজিদের খাদেম সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সউদের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন। সৌদি আরবের সংস্কৃতি ও তথ্যমন্ত্রী ড. আওয়াদ বিন সালেহ আল আওয়াদ গত ১১ মে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বাদশাহ্ আব্দুল আজিজের একটি আমন্ত্রণ বার্তা হস্তান্তর করেন। প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব সফরকালে মক্কায় উমরাহ্ পালন করবেন এবং মদিনায় মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর রওজা মোবারক জিয়ারত করবেন। খবর বাসস’র।

আগামী ২১ মে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে বাদশাহ্ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আরব ইসলামিক আমেরিকান শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইটটি শনিবার সন্ধ্যায় রিয়াদের উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যাবে।

ফ্লাইটটি একই দিন রাতে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে বাদশাহ্ খালিদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে। সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মোশি বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিমানবন্দর থেকে আনুষ্ঠানিক মোটর শোভাযাত্রাসহকারে রিয়াদের মোভেনপিক হোটেলে নিয়ে যাওয়া হবে। তিনি দু’দিন এই হোটেলেই অবস্থান করবেন। প্রধানমন্ত্রী ২১ মে আরব ইসলামিক-আমেরিকান (এআইএ) সম্মেলনে যোগ দিবেন। তিনি ‘গ্লোবাল সেন্টার ফর কমবেটিং এক্সট্রিমিস্ট থট’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিবেন। শেখ হাসিনা সৌদি বাদশাহ’র দেয়া এক ভোজ সভায়ও যোগ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী মহানবী হযরত মুহম্মদ (স.) এর রওজা মোবারক জিয়ারত করতে ২২ মে মদিনার উদ্দেশে রিয়াদ ত্যাগ করবেন। তিনি একই দিনে বিকেলে জেদ্দার উদ্দেশে মদিনা ত্যাগ করবেন। বাদশাহ্ আব্দুল আজিজ বিমানবন্দরে পৌঁছার পর তিনি হেরেম শরীফে পবিত্র উমরাহ্ পালন করতে মক্কায় যাবেন। শেখ হাসিনা ২৩ মে দেশে ফিরে আসবেন।

কাতার সফরে আমন্ত্রণ

কাতারের প্রধানমন্ত্রী আবদুল্লাহ বিন নাসের বিন খলিফা আল সানি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপসাগরীয় দেশটি সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিশেষ দূত ড. মুতলাক বিন মাজেদ আল কাহতানি বৃহস্পতিবার রাতে গণভবনে শেখ হাসিনার কাছে কাতারের প্রধানমন্ত্রীর এই আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেন। খবর বাসসর।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফকালে বলেন, উপসাগরীয় দেশটি সফরে কাতারের প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণপত্র বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। আমন্ত্রণ গ্রহণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দু’দেশের সুবিধাজনক সময়ে তিনি কাতার সফর করবেন।

প্রেস সচিব বলেন, আমন্ত্রণপত্রে কাতারের প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারের সঙ্গে রোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে তার দেশের আগ্রহের কথা প্রকাশ করেছেন।

বৈঠকে বিশেষ দূত রোহিঙ্গা শরণার্থী সঙ্কটে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, এই সমস্যার সমাধান করে স্থায়ী শান্তির লক্ষ্যে আমাদের কাজ করা প্রয়োজন।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের সুসম্পর্ক রয়েছে। আমরা তথ্য বিনিময় করছি এবং উচ্চ পর্যায়ের সফর অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী কাতারের দূতকে জানান যে, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে মিয়ানমারকে তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে। শেখ হাসিনা কাতারের আমির তামিম বিন হামাদ আল সানি ও প্রধানমন্ত্রী আবদুল্লাহ বিন নাসেরের প্রতি শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। ড. মুতলাক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ ও দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মাদ জয়নুল আবেদীন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: