২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

প্রধানমন্ত্রীর দিল্লী সফরে সর্বাধিক গুরুত্ব পাবে কানেক্টিভিটি ॥ শ্রিংলা


কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন নয়াদিল্লী সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে বিষয়টি সবচেয়ে গুরুত্ব পাবে তা হলো কানেক্টিভিটি। বাংলাদেশে নিয়োজিত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা সোমবার বিকেলে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আসেন ভারতীয় হাইকমিশনার। এ সময় তিনি পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে আলোচনা করেন।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নয়াদিল্লী সফরের প্রস্তুতি এখন বেশ জোরেসোরে চলছে। এ কারণেই পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে আলোচনা করতে এসেছি। আলোচনায় কিছু সংযোজন ও বিয়োজন হচ্ছে। সফরের জন্য বেশ কিছু বিষয়ের অগ্রগতি হয়েছে বলেও তিনি জানান।

ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, বিশেষ করে কানেক্টিভিটি (আন্তঃযোগাযোগ) হাই প্রায়োরিটি। আমি এখনই কিছু বলতে চাই না, এসব ঠিক সময়ে প্রকাশ্য হবে। এ অগ্রগতি রেল, সড়ক এবং বিদ্যুত আদান-প্রদানে ও সংযোগ বাড়ানোর বিষয়ে হতে পারে।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, এ অঞ্চলে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটানের (বিবিআইএন) উদ্যোগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ সম্ভাবনা হিসেবে দেখা দিয়েছে। এটি এ অঞ্চলে যুগান্তকারী ফল বয়ে নিয়ে আসবে।

সূত্র জানায়, গত কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে কানেক্টিভিটির ওপর জোর দেয়া হচ্ছে। দুই দেশের মধ্যে সড়ক, রেলপথ, নৌ, বিমান পথে যোগাযোগ বাড়ানোর বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এছাড়া দুই দেশের মধ্যে বিদ্যুত ও জ্বালানি সহযোগিতাও বাড়ছে। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ট্রানশিপমেন্ট পুরোপুরি বাস্তবায়নেও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এছাড়া গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্কর ঢাকা সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অঞ্চলের কানেক্টিভিটি (আন্তঃযোগাযোগ) আরও জোর দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৭-১০ এপ্রিলে চার দিনের সফরে নয়াদিল্লী যাবেন। এই সফরে দুই দেশের মধ্যে প্রায় বিশটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে। এর আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২০১৫ সালের ৬-৭ জুন বাংলাদেশ সফর করেছিলেন। আসন্ন ভারত সফর হবে মোদি সরকার ক্ষমতায় বসার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রথম দ্বিপক্ষীয় সফর।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: