১৬ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শ্রীপুরে হেরাবন আস্তানা গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন কর্মীরা


শ্রীপুরে হেরাবন আস্তানা গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন কর্মীরা

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরের শ্রীপুরে গহীন গজারী বনে অভিযান চালিয়ে এক আধ্যাত্বিক সাধকের আস্তানা ‘হেরাবন’ আজ সোমবার গুড়িয়ে দিয়েছে বনকর্মীরা। এসময় বনকর্মীদের বাঁধা দেয়ায় হেরাবনের ৬ ভক্তকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন-সেকন্দার(৬০), নজরুল ইসলাম(২৮), সাফিজ উদ্দিন(৩৫), মাহফুজ(২৪), রাসেল(২৪)ও ফজলুল হক(৪৫)।

শ্রীপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক জানান, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ফুলানীরছিট এলাকার শিমলাপাড়া বন বিটের গভীর বনে জয় গুরু মনিরশাহ নামে এক ব্যাক্তি প্রায় ১০ বছর যাবত ‘হেরাবন’ নামে একটি আস্তানা গড়ে তোলেন। তথাকথিত আধ্যাত্বিক সাধক পরিচয়ে ওই ব্যাক্তি বন বিভাগের সংরক্ষিত ওই বনের বহু প্রাকৃতিক গাছ কেটে প্রায় এক হেক্টর বনের জমি দখল করেন। আজ সোমবার বনকর্মীরা সেখানে অভিযান চালিয়ে বনের জমিতে অবৈধভাবে গড়ে তোলা কয়েকটি স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেয়। এ সময় বাধা দেওয়ায় হেরাবনের ৬ ভক্তকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

তিনি জানান, ওই গ্রামের আবু তালেবের মা জমিলা খাতুন তার আশ্রয়ের জন্য ৭ শতাংশ জমি লিখে দেন। পরে মনির শাহ সেখানে ‘হেরাবন’ আস্তানা গড়ে তোলেন। কিছু দিনের মধ্যে স্থানীয় ও দূর দূরান্তের অসংখ্য ভক্ত জোটে তার। এ সময় তিনি লিখে দেওয়া জমির বাইরেও বনের প্রায় ১২ বিঘা জমি দখলে নিয়ে প্রাকৃতিক বন ধ্বংস করে আস্তানার জন্য স্থাপনা গড়ে তোলেন। কিছু অংশে প্রায় ১ হাজার আমের চারা রোপন করেন। এর আগেও কয়েকবার আস্তানা উচ্ছেদের চেষ্টা করা হলে ভক্ত ও অনুসারীদের অনুরোধ ও বাধার মুখে সেই উদ্যোগ সফল হয় নি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম খোকন জানান, সাধারন মানুষের আবেগ-অনুভূতিকে পুঁজি করে প্রাকৃতিক বন ধ্বংস করে অবৈধভাবে এমন আস্তানা গড়ে তোলা হয়েছে। এর সঙ্গে মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে।

হেরাবন আস্তানার সাধক জয় গুরু মনির শাহ বলেন, বন বিভাগের লোকজন আমার জমিতে নির্মিত স্থাপনা ভেঙ্গে দিয়েছে এবং আমার ৬ ভক্তকে আটক করে নিয়ে গেছে। এই আস্তানায় কোন মাদক সেবন হয় না। অথচ একটি মহল মাদক ব্যবসা ও সেবনের সঙ্গে এ আস্তানার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে অপপ্রচার চালিয়ে আসছিল।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: