২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী


মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জার্মানিতে শুরু হওয়া তিন দিনব্যাপী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন। আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জ বিষয়ক আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা ও নীতি নির্ধারকদের মতবিনিময়ের জন্য বিশ্বের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ এই স্বতন্ত্র ফোরামের তিন দিনব্যাপী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন শুক্রবার বায়েরিচার হোফ হোটেলে শুরু হয়েছে। খবর বাসসর।

সম্মেলনে বিশ্বের পঁচিশটিরও বেশি দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান, ৪৭ দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ৩০ দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী, জাতিসংঘ মহাসচিব এবং ৯০ সংসদ সদস্যসহ প্রায় ৫শ’ নীতিনির্ধারক অংশ নিচ্ছেন। কর্মকর্তারা জানান, এ বছর সম্মেলনে আলোচ্যসূচীর মধ্যে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ এবং ইউরোপীয় রাষ্ট্রসমূহের মধ্যে সম্পর্ক, ট্রাম্প, ব্রেক্সিট, ইইউ ও ন্যাটো সঙ্কট। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগ দেন। তিনি সম্মেলনে যোগ দিতে জার্মান চ্যান্সেলর এ্যাঞ্জেলা মেরকেলের আমন্ত্রণে শুক্রবার সকালে এখানে এসে পৌঁছেন। জার্মান ও মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী যথাক্রমে উরসুলা ভন ডের লায়েন এবং জেমস এন মাত্তিসের উদ্বোধনী বক্তব্য দেয়ার পর সম্মেলনের চেয়ারম্যান এ্যাম্বাসেডর ওলফ গ্যাঙ্গ সিঙ্গার সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। জার্মান চ্যান্সেলর, মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট, জাতিসংঘ মহাসচিব, পোল্যান্ড ও আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট, নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী এবং রাশিয়া, চীন, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগদান করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ উচ্চপর্যায়ের এক আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন এবং জলবায়ু পরিবর্তন, পানি, খাদ্য ও অভিবাসনসহ বিভিন্ন নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ের ওপর ভাষণ দেবেন। সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সম্মেলনে আগত অতিথিদের সম্মানে মিউনিখ নগরীর মেয়রের দেয়া এক সংবর্ধনায় অংশ নেবেন। প্রধানমন্ত্রী আজ জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মেরকেলের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন। এ সময় দু’নেতা দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করবেন। সম্মেলনের ফাঁকে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি বিখ্যাত আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাগুলোর সঙ্গে শতাধিক দ্বিপক্ষীয় কূটনৈতিক বৈঠকও হবে।

প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী ইতিহাদ এয়ারলাইন্সের (ইওয়াই ২৫৩) বিমানটি শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ছয়টায় মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। জার্মানিতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বাগত জানান। জার্মানি যাওয়ার পথে আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে প্রধানমন্ত্রী এক ঘণ্টা যাত্রাবিরতি করেন। মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সংবর্ধনা জানানোর পরে সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রীকে সুশোভিত মোটর শোভাযাত্রা সহযোগে মিউনিখের ম্যারিয়ট হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। জার্মানি সফরকালে প্রধানমন্ত্রী এই হোটেলেই অবস্থান করবেন।

বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর বিশেষ নিরাপত্তায় মিউনিখ ম্যারিয়ট হোটেলে পৌঁছলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা দলীয় নেতাকর্মীরা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানান। এ সময় তাদের হাতে ছিল ফুল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড। ম্যারিয়টের লবিতে জার্মান আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ শেখ হাসিনার হাতে ফুলর তোড়া তুলে দেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে যোগ দেন। সন্ধ্যায় আগত অতিথিদের সম্মানে মিউনিখের মেয়র আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী আজ সম্মেলনের প্যানেল আলোচনায় ‘জলবায়ু নিরাপত্তা : ‘গুড কপ, ব্যাড কপ’ বিষয়ক পর্যালোচনা সভায়ও যোগ দেবেন। সন্ধ্যায়ই প্রধানমন্ত্রী ঢাকার উদ্দেশে মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন। আবুধাবিতে ৬ ঘণ্টার যাত্রাবিরতি শেষে প্রধানমন্ত্রীর রাত আটটায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: