২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সেরেনা উইলিয়ামসের মাইলফলক


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পেশাদার টেনিস ক্যারিয়ারে অনন্য এক মাইলফলক স্পর্শ করেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। রবিবার উইম্বলডনে জার্মানির আন্নিকা বেককে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে ক্যারিয়ারের ৩০০তম গ্র্যান্ডসøাম জয়ের মাইলফলক ছুঁয়েছেন বর্তমান বিশ্ব টেনিসের এই নাম্বার ওয়ান তারকা। মৌসুমের তৃতীয় গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন জার্মানির এ্যাঞ্জেলিক কারবারও। সোমবার টুর্নামেন্টের চতুর্থ বাছাই ৬-৩ এবং ৬-১ সেটে হারিয়েছেন জাপানের মিসাকি ডোইকে।

মেয়েদের টেনিসে সর্বাধিক গ্র্যান্ডসøাম জয়ের রেকর্ডটি বর্তমানে রয়েছে চেক প্রজাতন্ত্রের সাবেক তারকা মার্টিনা নাভ্রাতিলোভার দখলে। তিনি জিতেছিলেন ৩০৬ গ্র্যান্ডসøাম ম্যাচ। ২৯৯ জয় নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক তারকা ক্রিস এভার্ট। রবিবার কিংবদন্তি এভার্টকে পেছনে ফেলে সেই স্থান দখল করে নিয়েছেন তারই স্বদেশী সেরেনা। সুদীর্ঘ ২১ বছরের পেশাদার ক্যারিয়ারে অনেক রেকর্ডই নিজের করে নিয়েছেন আমেরিকান টেনিসের এই জীবন্ত কিংবদন্তি।

তার সংগ্রহে রয়েছে ২১ গ্র্যান্ডসøাম শিরোপা। আর একটি শিরোপা জিতলে জার্মানির সাবেক তারকা স্টেফি গ্রাফের সর্বাধিক ২২ গ্র্যান্ডসøাম শিরোপা জয়ের রেকর্ডটিও ছুঁয়ে ফেলতে পারবেন তিনি। এবারের উইম্বলডনে ৩৪ বছর বয়সী সেরেনা কি তা করে দেখাতে পারবেন? সমর্থকদের সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা। অথচ চলতি বছরের প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেই টেনিসের উন্মুক্ত যুগে সর্বোচ্চ ২২ গ্র্যান্ডসøামজয়ী স্টেফি গ্রাফের রেকর্ডকে ছুঁয়ে ফেলতে পারতেন তিনি। কিন্তু সেবার স্টেফিগ্রাফেরই স্বদেশী এ্যাঞ্জেলিক কারবার হতাশ করেন সেরেনাকে।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চ্যাম্পিয়ন কারবারের ফ্রেঞ্চ ওপেন তেমন ভাল কাটেনি। তবে উইম্বলডনেই যেন স্বরূপে ফিরেছেন তিনি। দারুণ জয়ে মেজর এই টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছেন কারবার। সোমবার চতুর্থ পর্বের ম্যাচে জার্মান তারকা জাপানের মিসাকি ডোইকে হারিয়ে শেষ আটের টিকেট নিশ্চিত করেন। প্রথম সেট ৬-৩ সেটে জয়ের পর দ্বিতীয় সেটে ৬-১ ব্যবধানে উড়িয়ে দেন মিসাকি ডোইকে।

ইংল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা

টি২০ আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার একমাত্র টি২০ ম্যাচ আজ। সাউদাম্পটনে এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে ব্যর্থ ইংল্যান্ড সফর শেষ হবে লঙ্কানদের। প্রথমে তিন টেস্টের সিরিজ ২-০তে, এরপর পাঁচ ওয়ানডের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হারে এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের দল। প্রথম ওয়ানডে ‘টাই’ আর তৃতীয়টি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়। দ্বিতীয় ও চতুর্থ ওয়ানডেতে যথাক্রমে ১০ ও ৬ উইকেটের বড় জয় পায় ইয়ন মরগানের দল। পঞ্চম ও শেষ টি২০তে তাদের জয় ১২২ রানে। এমন ভরাডুবির পর লঙ্কান অধিনায়ক স্বীকার করেছেন, তাদের জন্য সময়টা আসলেই কঠিন। টি২০ হলেও অন্তত সান্ত¡নার জয় দিয়ে শেষ করতে চাইবে তারা। তবে কাজটা সহজ হবে না। কারণ টেস্টের মতো ওয়ানডেতেও একতরফা দাপট দেখিয়েছে ইংলিশরা। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং প্রতি বিভাগে ইংলিশদের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছে লঙ্কানরা। তবে অতিথিদের বেশি ভুগিয়েছে ব্যাটিং। ওয়ানডেতে শীর্ষ পাঁচ রান সংগ্রাহকের মধ্যে ম্যাথুসই একমাত্র লঙ্কান। ১০৫ গড়ে ২ সেঞ্চুরিতে সর্বোচ্চ ৩১৬ রান করে সিরিজসেরা ইংল্যান্ড ওপেনার জেসন রয়। আর সর্বোচ্চ ১০ উইকেট নিয়েছেন দুই পেসার ডেভিড উইলি ও লিয়াম প্ল্যাঙ্কেট। অর্থাৎ ব্যক্তিগত নৈপুণ্যেও ছিল ইংলিশদের দাপট। ২০০৬ থেকে এ পর্যন্ত মোট ৭ টি২০তে মুখোমুখি হয়ে ৪টিতে জয় লঙ্কানদের, ইংল্যান্ড ৩। সর্বশেষ গত মার্চে দিল্লীতে বিশ্বকাপের ম্যাচে ১০ রানে জিতেছিল ইয়ন মরগানের ইংল্যান্ড।

কোহলির আগ্রাসন পছন্দ কুম্বলের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিরাট কোহলির আক্রমণাত্মক নেতৃত্ব (টেস্ট) পছন্দ নতুন কোচ অনিল কুম্বলের। ‘আমি তার আগ্রাসন পছন্দ করি। এ বিষয়ে তার সঙ্গে আমার তেমন পার্থক্য নেই। আমিও আগ্রাসী ছিলাম। কারও স্বাভাবিক আগ্রাসন নিয়ন্ত্রণের পক্ষে নই আমি।’ টেস্ট-ওয়ানডে দুটোতেই ভারতের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি কুম্বলে জাতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব পেয়ে গর্বিত। তার আশা, নতুন শিষ্যরাও দেশাত্ববোধে উদ্বুদ্ধ হয়ে মাঠে নামবে, ‘আমরা সবাই জানি, ভারতের দূতের ভূমিকা পালন করা আর ভারতীয় ক্রিকেট দলের অংশীদার হতে পারা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। দলের প্রত্যেকে তা বুঝতে পারছে। পারফর্ম করে মাঠেও আমাদের সেটি নিশ্চিত করতে হবে।’ সিরিজ খেলতে বুধবার ভারতীয় দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজে পৌঁছানোর কথা।

অনেক বড় মাপের ব্যাটসম্যান হলেও আক্রমণাত্মক মানসিকতার কারণে কোহলিকে প্রায়ই সমালোচিত হতে হয়। কিন্তু কোহলির এই আগ্রাসী মনোভাব বরং পছন্দই করেন ভারতের নতুন কোচ। চার টেস্টের সিরিজ খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাচ্ছে ভারত। এই উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে কুম্বলে এমন মন্তব্য করেন। তিনি আরও যোগ করেন ‘দল ও দলের খেলোয়াড় সবার আগে, আমার কাজ পেছনে।

সুবিধাবঞ্চিত শিশু-কিশোরদের ফুটবল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও কিশোরদের নানা অসামাজিক কর্মকা- থেকে বিরত রাখার উদ্দেশ্যে ওয়ালটনের সার্বিক সহযোগিতায় বেশ কবার আয়োজিত হয়েছে টোকাই কাবাডি টুর্নামেন্ট। ২০১৫ সাল থেকে তাদের নিয়ে আয়োজিত হচ্ছে ফুটবল। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় আয়োজিত হতে যাচ্ছে সুবিধাবঞ্চিত শিশু কিশোরদের ফুটবল ঈদ আনন্দ উৎসব। ঈদের পরে ১১ ও ১২ জুলাই পল্টন মাঠে অনুষ্ঠিত হবে এই টুর্নামেন্ট। গত আসরে চার দল অংশ নিলেও এবার দলসংখ্যা বাড়ছে। এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে দলগুলো রোজার মধ্যেও ১৫ দিন অনুশীলন করেছে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: