মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

জাঙ্কারকে চান না মেরকেল

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৬
  • ব্রিটেনের সঙ্গে সম্পর্ক প্রশ্নে ইউরোপীয় ইউনিয়নে তীব্র মতভেদ

গণভোটে ব্রেক্সিটের পক্ষে রায়ের পর ব্রিটেনের সঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সম্পর্কের প্রশ্নে জোটে মতভেদ তীব্রতর হচ্ছে। এই প্রেক্ষাপটে ইউরোপীয় কমিশনের প্রধানের পদ থেকে জ্যাঁ ক্লদ জাঙ্কারকে অপসারণের জন্য জার্মান চ্যান্সেলর এ্যাঞ্জেলা মেরকেল উদ্যোগ নিতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। জাঙ্কার ইউরোপে ফেডারেল ব্যবস্থা বজায় রাখার পক্ষপাতী।

ব্রিটেনে গত মাসের ২৩ তারিখ অনুষ্ঠিত গণভোটে সেদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটার ব্রেক্সিট বা ইইউ ছাড়ার পক্ষে রায় দিয়েছে। ব্রিটেন আসলেই ইইউ ছাড়বে কি না তা নিয়ে আনুষ্ঠানিক আলোচনা বিলম্বিত হওয়ায় অস্বস্তি বাড়ছে ইউনিয়নের মধ্যে। এরই ধারাবাহিকতায় জার্মান চ্যান্সেলর মেরকেলের সঙ্গে সম্পর্ক দূরত্ব তৈরি হয়েছে জাঙ্কারের। ব্রেক্সিটের পক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোট পড়ায় জাঙ্কার আনন্দিত হয়েছিলেন। ব্রিটেন ইইউ ছেড়ে গেলে ২৮ জাতি জোটের ভবিষ্যত বিপন্ন হতে পারে বলে উদ্বিগ্ন মেরকেল। নাম উল্লেখ না করে একজন জার্মান মন্ত্রী বরাত দিয়ে সানডে টাইমস জনিয়েছে, জাঙ্কারের পদত্যাগের জন্য চাপ বাড়ছে, চ্যান্সেলর মেরকেল নিজেই এ বিষয়ে আগামী বছর একটি সমাধান দেবেন। গণভোটের ফল নিয়ে জাঙ্কার যেভাবে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন তাতে মেরকেল ক্ষুব্ধ হয়েছেন বলে ওই মন্ত্রী জানিয়েছেন। ইউরোপের বৃহত্তর ভূমিকার জন্য জাঙ্কার যেভাবে ব্যতিব্যস্ত হয়ে উঠেছিলেন তা পোল্যান্ড, হাঙ্গেরি ও চেক রিপাবলিকের মতো কয়েকটি ইউরোপীয় দেশকে ইইউ ছেড়ে দেয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে পারে বলে অনেকে মনে করেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জাঙ্কারকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান করা হয়েছিল। তিনি কমিশনের প্রধান হওয়ার আগে থেকেই তার বিরুদ্ধে অতিরিক্ত মদপানের অভিযোগ রয়েছে। কমিশনের অনেক কর্মকর্তা অবশ্য একে তার (জাঙ্কার) বিরুদ্ধে হীন প্রচারণা বলে অভিহিত করেন। টেলিগ্রাফসহ আরও বিভিন্ন পত্রিকায় ইতোমধ্যে খবর বেরিয়েছে যে, জাঙ্কার সকালে প্রাতঃরাশের সময় উচ্চমানের ব্রান্ডি পান করেন।

এছাড়াও দীর্ঘ অফিসিয়াল আলোচনাকালে তিনি প্রচুর পরিমাণে মদ পান করে থাকেন। ব্রিটেনে গণভোটের এক সপ্তাহে আগে জাঙ্কারের আপাতত মাতাল অবস্থার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওটি গত বছর মে মাসে অনুষ্ঠিত ইইউ শীর্ষ বৈঠকের। এতে দেখা যায় জাঙ্কার হাঙ্গেরির কট্টরপন্থী প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবানকে ‘একনায়ক’ বলে অভিবাদন জানাচ্ছেন। পিঠে হাত রেখে আলতো চাপ দিয়ে ওরবানকে জাঙ্কার স্বাগত জানাচ্ছেন আর বলছেন ‘একনায়ক এসে গেছেন’। তার এই কথায় ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রধান ডোনাল্ড টাস্ককে বেশ বিব্রত বোধ করতে দেখা যায়।

২৩ জুন গণভোটের পর জাঙ্কারের পদত্যাগের দাবি করেন পোল্যান্ড ও চেক রিপাবলিকের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা। ইইউ কর্মকর্তারা প্রাথমিকভাবে সেই দাবি প্রত্যাখ্যান করলেও এখন বার্লিন একই দাবি তোলার পর জাঙ্কারের মেয়াদ পুরো করতে পারবেন কি না তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

গত সপ্তাহেই জাঙ্কারকে বাদ দিয়ে বার্লিনে ফরাসী ও ইতালীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মেরকেল বৈঠক করেছেন। ব্রিটেনের নীতি নির্ধারকরা আশা করছেন ব্রেক্সিট নিয়ে ইইউর সঙ্গে আলোচনার পরিধিটি হবে বিস্তৃত। ইইউ ছেড়ে গেলেও ন্যাটোর প্রভাবশালী দেশ হিসেবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে ব্রিটেনের সুসম্পর্কের বিষয়টি আলোচনায় গুরুত্ব পাবে। ভোটের পর থেকে ফ্রান্স ব্রিটেনের ব্যাপারে যতটা কড়া মনোভাব দেখাচ্ছে জার্মানির মনোভাবে সে রকম নয়। ফরাসী প্রেসিডেন্ট ফ্রাসোঁয়া ওলাঁদ ইতোমধ্যে বলেই দিয়েছেন গণভোটের পরিণতি ব্রিটেনকে ভোগ করতে হবে। অন্যদিকে ইইউ ছাড়লেও ব্রিটেনকে সহযোগী সদস্য হিসেবে রাখা যায় কি না তা নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে জার্মানি।

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৬

০৫/০৭/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: