মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ঈদ জামাত কখন কোথায়

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৬

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ মুসলমান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ কখন কোথায় হবে, সে খবর পাঠিয়েছেন স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতারা :

চট্টগ্রাম

পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের প্রধান দুটি জামাত আয়োজন করবে জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশন। জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটি এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের প্রাকটিস মাঠে এবং সিটি কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনায় জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ ময়দানে সকাল ৮-৩০ মিনিটে পৃথক প্রধান জামাত দুটি অনুষ্ঠিত হবে। জমিয়তুল ফালাহর প্রথম জামাতের ইমামতি করবেন মসজিদের খতিব, ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের গবর্নর ও বাংলাদেশ জাতীয় খতিব কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন আল কাদেরি। একই স্থানে সকাল ৯-৩০ মিনিটে দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। জালালাবাদ আরেফিন নগর সিটি কর্পোরেশন কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে ৮-১৫ মিনিটে। এছাড়া নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটি এবং সিটি কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনায় তিন শতাধিক মসজিদ, খোলা মাঠ ও ঈদগাহ ময়দানে পৃথক ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয়েছে। তন্মধ্যে চসিকের তত্ত্বাবধানে ঈদ জামাত হতে যাচ্ছে ১৫৭টি। ইতোমধ্যে ২৯ রমজান হিসাব করে বুধবার ঈদ জামাত আয়োজনে প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। জমিয়তুল ফালাহ মাঠে ত্রিপল দিয়ে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফলে এ মাঠে বৃষ্টি হলেও জামাত আয়োজনে বেগ পেতে হবে না বলে উদ্যোক্তারা জানান। প্রতিটি ওয়ার্ডেই ওয়ার্ড কাউন্সিলরের ব্যবস্থাপনায় ঈদ জামায়াত আয়োজন করা হয়েছে। তবে বৃষ্টি হলে মাঠের পরিবর্তে নিকটবর্তী মসজিদে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল ৮-৩০টায় বাকলিয়া চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন স্টেডিয়াম, আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদ, লালদীঘি জামে মসজিদ, চট্টগ্রাম বন্দর স্টেডিয়াম, মিয়াখান নগর বেলায়েত খাঁ জামে মসজিদ, মেহেদীবাগ সিডিএ জামে মসজিদ, মোমিন রোড কদম মোবারক এতিমখানা জামে মসজিদ, চট্টগ্রাম সরকারী সিটি বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদ, চন্দনপুরা দারুল উলুম মাদ্রাসা, ধলিয়ালাপাড়া বাইতুশ শরফ জামে মসজিদ, জাম্বুরী ময়দান, তিন পুলের মাথা হাজী গোলাম রসূল ওয়াকফ এস্টেট জামে মসজিদ, রেলওয়ে পলোগ্রাউন্ড পাবলিক স্কুল মাঠ, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন ময়দান, হযরত শাহ সুফী আমানত খান দরগা মসজিদ, হযরত বায়েজিদ বোস্তামী দরগা মসজিদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ঈদগা ময়দান, নাসিরাবাদ বয়েজ স্কুল মাঠ, চান্দগাঁও টার্মিনাল বাইতুশ শরফ জামে মসজিদ, পাহাড়তলী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, পাহাড়তলী পুলিশ বিট জামে মসজিদ, আসাদগঞ্জ ছোবহানিয়া আলীয়া মাদ্রাসা, টাইগারপাস কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, ষোলশহর বন গবেষণা ইনস্টিটিউট জামে মসজিদ, হামজারবাগ হামজা খাঁ শাহী জামে মসজিদ, পাঁচলাইশ হাজীপাড়া আশেকানে আউলিয়া মাদ্রাসা মসজিদ, বুড়িশ্চর জিয়াউল উলুম মাদ্রাসা, ব্যাটারিগলি বাইতুন আমিন জামে মসজিদ, বাকলিয়া সিটি কর্পোরেশন স্টেডিয়াম, খলিফা পট্টি বাইতুন নুর জামে মসজিদ, চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ লাইন ময়দান। উত্তর সত্বা গাউছিয়া হাফিজিয়া এতিমখানা, মুরাদপুর বিশ্বরোড মসজিদে বেলাল ইসলামী কমপ্লেক্স, খাতুনগঞ্জ শমসের খান ওয়াকফ এস্টেট জামে মসজিদ, মাদ্রাসাতুল ইসলামিয়া মিসবাহুল উলুম ময়দান, পাথরঘাটা বান্ডেল রোড হাজী সুফী সোবহান সওদাগর ও নুরনাহার বেগম জামে মসজিদ, বক্সিরহাট হাজী শরীয়তুল্লাহ সওদাগর জামে মসজিদ, আসাদগঞ্জ গাছপট্টি জামে মসজিদ, আলকরণ জামে মসজিদ, বক্সিরহাট হাজী শরীয়তুল্লাহ সওদাগর জামে মসজিদ, ফিরিঙ্গীবাজর বংশাল রোড মহল্লা জামে মসজিদ, বক্সিরহাট পীর বদর আউলিয়া জামে মসজিদ, জিআরপি পুলিশ লাইন ময়দান, পাথরঘাটা মধু বেপারী হাজী নজু মিয়া লেইন জামে মসজিদ, হাটহাজারী বালুছড়া বাইতুল কাদের মসজিদ, মসজিদে নুর মাদ্রাসা রশিদিয়া হাফিজিয়া এতিমখানা, সদরঘাট পুরাতন পোর্ট কলোনি ঈদগা, দেওয়ানবাজার সিরাজুদ্দৌলা রোড হাজী তবিয়ত খাঁ মসজিদ, ব্যাটারি গলি জেআই মাদ্রাসা, সরাইপাড়া বিশ্বরোড শাহ মডেল সোসাইটি আবদুল মালেক জামে মসজিদ, সরাইপাড়া কাজিরদীঘি জামে মসজিদ, পাহাড়তলী হাজী ক্যাম্প জামে মসজিদ, চান্দগাঁ হামিদচর জামে মসজিদ, কালুরঘাট আল আমিন বাড়িয়া ঈদগা, ঘাটফরহাদবেগ আতরজান বিবি মসজিদ, আলকরণ বাইতুল মামুর জামে মসজিদ, মোহরা কাদেরিয়া ঈদগা ময়দান, কলেজ রোড হযরত মোল্লা মিসকিন শাহ জামে মসজিদ, বাকলিয়া মিয়াখাননগর মাদ্রাসায়ে মোজাহের উলুম, কালামিয়া বাজার কামাল ই ইশকে মোস্তফা (দ) কমপ্লেক্স মসজিদ, কালুরঘাট চিটাগাং ম্যানুফ্যাকচারিং মসজিদ, বহদ্দারহাট ওয়াপদা কলোনি, মধ্যম বাকলিয়া ফোরকানিয়া মাদ্রাসা, ঝাউতলা রেলস্টেশন জামে মসজিদ, পূর্ব নাসিরাবাদ বিপ্লব উদ্যানের বিপরীতে জামে মসজিদ, কালুরঘাট বাহার সিগন্যাল মসজিদে গাউছুল আজম জিলানী (রা.), কালুরঘাট এফআই ডিসি কমপ্লেক্স, ফিরিঙ্গী বাজার অঙ্গীকার ক্লাব মাঠ, বক্সিরহাট হাজী শরীয়তউল্লাহ সওদাগর মসজিদ, বীর বদর আউলিয়া জামে মসজিদ, পাঁচলাইশ মাইজ্যা বিবি শাহী জামে মসজিদ, ফয়স লেক মাদ্রাসা নুরীয়া ঈদগা, ফিরিঙ্গীবাজার জামে মসজিদ, স্টেশন রোড জামে মসজিদ, জাকির হোসেন রোড নিউ ঝাউতলা জামে মসজিদ, ওমর গনি এমইএস কলেজ ময়দান, দেওয়ানবাজার বাংলাদেশ ইসলামী একাডেমি, মাঝিরঘাট শাহী বিবির মসজিদ, অক্সিজেন আবাসিক এলাকা বাইতুশ সালাম ঈদগা, বন্দর টিলা দক্ষিণ হালিশহর কাটাখালী হযরত আলী শাহ (রা.) প্রাইমারী স্কুল মাঠ, হালিশহর হাউজিং এস্টেট ময়দান, উত্তর হালিশহর হাউজিং প্রাইমারী স্কুল, পাহাড়তলী নেছারিয়া মাদ্রাসা, আমবাগান সরদার বাহাদুর নগর ঈদগা ময়দান, বায়েজিদ বোস্তামী গাউছুল আজম জামে মসজিদ, জামালখান হাজী সালেহ জহুর জামে মসজিদ, পশ্চিম বাকলিয়া চান্দমিয়া মুন্সী রোড জামে মসজিদ, পাঁচলাইশ হাজীপাড়া আশেকানে আউলিয়া মাদ্রাসা মাঠ, পাঁচলাইশ আমিন জুটমিল, স্ট্যান্ড রোড বাংলাবাজার রশিদ বিল্ডিং চত্বর, হাটহাজারী লালিয়ারহাট কেন্দ্রীয় ঈদগা, প্যারেড ময়দান, পাঁচলাইশ ওয়াজেদিয়া মাদ্রাসা, স্ট্যান্ড রোড হাজী নজু মিয়া সওদাগর জামে মসজিদ, পাঁচলাইশ চালিতাতলি ঈদগা ময়দান, পশ্চিম মাদারবাড়ী জাহানারা ইব্রাহিম ফাউন্ডেশন মসজিদ, মিয়াখান নগর খান বাহাদুর জামে মসজিদ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ঈদগা ময়দান, পটিয়া এয়াকুবদন্ডী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ।

বরিশাল

নগরীতে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে আটটায় কেন্দ্রীয় হেমায়েত উদ্দিন ঈদগাহ ময়দানে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কথা মাথায় রেখেই এখানে একসঙ্গে দশ হাজার মুসল্লি ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ করার জন্য ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বিসিসি। এখানে সিটি মেয়র, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, বর্তমান ও সাবেক সাংসদসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দরা অংশগ্রহণ করবেন। জেলায় বৃহত্তর ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সদর উপজেলার চরমোনাই দরগাহ শরীফ ও উজিরপুরের গুঠিয়া বায়তুল আমান জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে।

খুলনা

খুলনায় পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে উদযাপনের লক্ষ্যে সরকারীভাবে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচী অনুযায়ী পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের প্রথম ও প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল আটটায় খুলনা সার্কিট হাউজ ময়দানে এবং দ্বিতীয় জামাত খুলনা টাউন জামে মসজিদে সকাল নয়টায় অনুষ্ঠিত হবে। আর আবহাওয়া প্রতিকূল হলে টাউন জামে মসজিদে সকাল আটটায়, নয়টায় এবং ১০টায় পর পর তিনটি এবং কোর্ট জামে মসজিদে সকাল সাড়ে আটটায় একটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া নগরীর ইসলামাবাদ ঈদগাহ ময়দান ও নিউমার্কেটস্থ বায়তুন-নূর মসজিদ কমপ্লেক্সে সকাল আটটায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ৩১টি ওয়ার্ডে ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণের তত্ত্বাবধানে পৃথকভাবে নির্ধারিত সময় অনুযায়ী ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া খুলনা আলীয়া মাদ্রাসা জামে মসজিদ, খালিশপুর ঈদগাহ ময়দান, নিরালা আবাসিক এলাকা ঈদগাহ, খানজাহান নগর খালাসী মাদ্রাসা ঈদগাহ, দৌলতপুর ঈদগাহসহ অন্যান্য মসজিদ ও ঈদগাহসমূহে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষেও নির্ধারিত সময়সূচী অনুযায়ী ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে খুলনা বিশ্বদ্যিালয়ে জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদ সংলগ্ন প্রশাসন ভবনের সামনে। আবহাওয়া প্রতিকূল হলে একই সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদে জামাত অনুষ্ঠিত হবে। খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) পবিত্র ঈদ-উল-ফিরের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলে একই সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

বগুড়া

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে শহরের সূত্রাপুর সম্প্রসারিত কেন্দ্রীয় ঈদগাহে সকাল নয়টায়। ঈদের নামাজে ইমামতি করবেন বায়তুর রহমান সেন্ট্রাল মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল কাদের। প্রতিকূল আবহাওয়ায় ঈদের প্রথম জামাত হবে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়। এ ছাড়াও শহরের ঠনঠনিয়া ঈদগাহ, চকসুত্রাপুর ঈদগাহ, ফুলবাড়ি ঈদগাহ, চেলোপাড়া ঈদগাহ, সাবগ্রাম ঈদগাহ, ফুলদীঘি ঈদগাহ, গোকুল ঈদগাহ, সুলতানগঞ্জপাড়া ঈদগাহ, আটাপাড়া আল্লামিয়াতলা ঈদগাহ, করনেশন স্কুল মাঠ, আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠ, জিলা স্কুল মাঠ, সরকারী আজিজুল হক কলেজ পুরাতন ভবন মাঠ, পুলিশ লাইন্স ময়দান, মহাস্থান মাজার সংলগ্ন কলেজ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে নয়টার মধ্যে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলে বৃষ্টিপাত হলে শহরের প্রতিটি পাড়া ও মহল্লার মসজিদে ঈদের জামাতের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

সাতক্ষীরা

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে মুনজিতপুরস্থ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮টায়। সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে, শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে সকাল ৮টায়, সুলতানপুর ক্লাব মাঠে সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে, রসুলপুর আহলে হাদিস জামে মসজিদে সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে, পিএন হাইস্কুল মাঠে সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে, পানি উন্নয়ন বোর্ড ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮টা ৩০মিনিটে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে সদর উপজেলার জি,ফুল বাড়ি দরগাহ শরীফ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৯ টায়, ভালুকা চাঁদপুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৯টায়, ফিংড়ি ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৯টায়, ভালুকা চাঁদপুর জামে মসজিদ সংলগ্ন ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৯টায়, ঘোনা গাজীতলা ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৯টায়, ছনকা ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৯টায়, আলীপুর চেকপোস্ট সংলগ্ন ঈদগাহ ময়দানে ৮টা ১৫ মিনিটে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। তবে বৃষ্টির কারণে আবহাওয়া খারাপ থাকলেও বিকল্পভাবে ঈদের জামাতের ব্যবস্থা করা হবে।

মুন্সীগঞ্জ

প্রধান জামাত সকাল ৮টায় শহরের কালেক্টরেট ঈদগা ময়দানে। এছাড়া একই সময় দেওভোগ বৈখর অনিবার্ণ মাঠ, দক্ষিণ ইসলামপুর জামে মসজিদ ঈদগা মাঠ, উত্তর ইসলামপুর পোড়া স্কুল মাঠ, ইদ্রাকপুর হাইস্কুল মাঠ ও শ্রীনগর উপজেলা স্টেডিয়াম মাঠে অনুষ্ঠিত হবে ঈদ জামাত। সকাল সাড়ে ৮টায় শহরের লিচু তলা টেনিস মাঠ ঈদগা মায়দান ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলা বাহেরপাড়া ঈদগা ময়দানে এবং সকাল পৌনে ৯টায় মুন্সীগঞ্জ শহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া একই সময়ে লৌহজং, সিরাজদিখান, শ্রীনগর, গজারিয়া ও টঙ্গীবাড়ির বিভিন্ন ঈদগা ময়দানে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

নীলফামারী

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায় নীলফামারী জেলা শহরের কেন্দ্রীয় ঈদগা ময়দানে। এর আগে প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে নীলফামারী পুলিশ লাইন্স মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়। এছাড়া সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সার্কিট হাউস ঈদগাঁ মাঠ, কুখাপাড়া ধনীপাড়া ঈদগা মাঠ, বাড়াইপাড়া নতুন জামে মসজিদ ঈদগাঁ মাঠে। সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে জোরদরগাঁ ঈদগা মাঠ, গাছবাড়ি পঞ্চপুকুর ঈদগা মাঠ, কলেজ স্টেশন ঈদগা মাঠ ও মুন্সীপাড়া আহলে হাদিছ ঈদগা মাঠে। সূত্র মতে জেলার ডোমার, ডিমলা, জলঢাকা, কিশোরীগঞ্জ ও সৈয়দপুর উপজেলা প্রধান ঈদগা মাঠে জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায়। তবে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া থাকলে মসজিদে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এবারো সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টায় ডোমার উপজেলার ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নের সবদীগঞ্জ ঈদগা মাঠে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

সবচেয়ে বড় ঈদের জামায়াত নিমতলার ফকিরপাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে আটটায়। একই সময়ে অনুষ্ঠিত হবে টাউন হাইস্কুল মাঠে। শহর এলাকার রেহাইচর ও খালঘাটের ঈদগাহ মাঠের পৃথক দুটি জামায়াত আহলা হাদিস সম্প্রদায়ের অনুষ্ঠিত হবে সাড়ে আটটা থেকে নয়টার মধ্যে।

এ ছাড়াও দ্বারিয়াপুর, রাজারামপুর বিশ্বাসপাড়ার বদু মিঞার আমবাগান ও দুর্গাপুর ঈদগাহ মাঠে জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে সকাল নয়টা ও সাড়ে নয়টায়। এছাড়া পৌর এলাকার টিকরামপুর, গনকা, বিদিরপুর, নয়াগোলা, উপর রাজারামপুর, পুরান দ্বারিয়াপুর, আরামবাগ, হরিপুর, নামোশংকরবাটী মাঠে অনুষ্ঠিত হবে ঈদের জামায়াত। আবহাওয়া খারাপ থাকলে জেলা জুড়ে ঈদের নামাজ মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। শহর সংলগ্ন শহীদ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দীন জাহাঙ্গীর বীরশ্রেষ্ঠ সেতু পেরিয়ে বারঘরিয়া ও চামাগ্রামের ঈদগাহে বড় জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে নয়টায়।

নারায়ণগঞ্জ

মাসদাইরে কেন্দ্রীয় ঈদগাহে দু’টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় ও দ্বিতীয় জামাত সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে। খানপুর হাসপাতাল রোডে দু’টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায় ও ৯টায়। ডিআইটি জামে মসজিদে সকাল ৯টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। নগরী ফকিরটোলা জামে মসজিদ, চারারগোপ জামে মসজিম, রেলওয়ে জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পাইনাদী কবরস্থান কমপ্লেক্সে ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায় ও এসও রোডের উদয় স্মৃতি ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের জামাত শুরু হবে। আড়াইহাজার উপজেলা ঈদগাহে সকাল ৯টায়, মকুন্দীর এমদাদুল উলুম মাদ্রাসায় সকাল ৯টায়, কান্দাপড়া ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৯টায় ও সম্ভুপুরা উচ্চ বিদ্যালয় ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায় ঈদের জামাত শুরু হবে। সোনারগাঁও উপজেলা ঈদগাহে সকাল ৯টায়, সাদীপুর ঈদগাহ ময়দানে সকাল ১০টায়, সন্মান্দী বড় ঈদগাহে সকাল ১০টায় ও বড়গাঁও ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদের জামাত শুরু হবে।

বাগেরহাট

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে ঐতিহাসিক ষাটগম্বুজ মসজিদে। সকাল ৮টায় ষাটগম্বুজ মসজিদে প্রথম এবং ৮টা ৪৫ মিনিটে দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টা ১০ মিনিটে আলিয়া মাদ্রাসা ঈদগাহ, খারদ্বার ঈদগাহ ৮টা ১৫ মিনিটে, মিঠা পুকুর পাড় জামে মসজিদ ৮টা ১৫ মিনিটে, পুরাতন কোর্ট জামে মসজিদ ৮টা ৩০ মিনিটে, হজরত খানজাহানের (র.) দরগায় ৮টা ৩০ মিনিটে, পুলিশ লাইন জামে মসজিদে ৮টা ৩০ মিনিটে, খানজাহানিয়া বায়তুল ফালাহ জামে মসজিদে ৮টা ১৫ মিনিটে, নতুন কোর্ট মসজিদে ৮টা ৩০ মিনিটে, রেলওয়ে জামে মসজিদে ৮টা ১৫ মিনিটে, পিসি কলেজ জামে মসজিদে ৮টা ১০ মিনিটে, সরুই হাজী আরিফ মসজিদ ময়দান ৮টা ১৫ মিনিটে, সানাতলা আউলিয়াবাদ মসজিদে ৮টা ৩৫ মিনিটে, পিটি আই মসজিদে ৮টা ১০ মিনিটে, হাঁড়িখালী মসজিদে ৮টা ১৫ মিনিটে, পৌর পার্কে ৮টা ১৫ মিনিটে, সড়ক ও জনপথ ৮টা ১৫ মিনিটে, নাগের বাজার হাজী আরিফ মসজিদে ৮টা ৩০ মিনিটে, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল জামে মসজিদে ৮টা ১৫ মিনিটে, দড়াটানা জামে মসজিদে ৮টা ১৫ মিনিটে, খানজাহান পল্লী ৮টা ১৫ মিনিটে, সরুই মাদ্রাসা ঈদগাহে ৮টা ১৫ মিনিটে ঈদ-উল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

দিনাজপুর

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে ঐতিহাসিক গোর-এ-শহীদ বড় ময়দানে। সকাল সাড়ে ৮টায় এ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণ, মহারাজা স্কুল মাঠ, উপশহর স্কুল মাঠ, রামনগর মাঠ, ক্রিসেন্ট ক্রিন্ডার গার্ডেন স্কুল মাঠ, একাডেমি ম্কুল মাঠসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

ঝিনাইদহ

প্রধান ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায় শহরের উজির আলী হাইস্কুল কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। এ ঈদ জামাতে ইমামতি করবেন কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. আমিনুল ইসলাম। দ্বিতীয় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮টায় শহরের সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসা ঈদগাহ ময়দানে। এ ঈদ জামাতে ইমামতি করবেন সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাও: রুহুল কুদ্দুস।

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া হলে স্ব-স্ব মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করা হবে। ঝিনাইদহ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন মালিতা জানান, এবার ঈদ-উল-ফিতরের প্রধান প্রধান ঈদ জামাত সকাল ৮টায় উজির আলী হাইস্কুল মাঠ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে ও দ্বিতীয় ঈদ জামাত শহরের সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসা ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে।

এ ছাড়া শহরের ফায়ার সার্ভিস ঈদগাহ ময়দান, পুলিশ লাইন ঈদগাহ ময়দান, সরকারী কেসি কলেজ ঈদগাহ ময়দান, পানি উন্নয়ন বোর্ড ঈদগাহ ময়দান অন্যান্য ঈদগাহ ময়দানে প্রধান ও দ্বিতীয় ঈদ জামাতের সঙ্গে সমন্বয় করে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া হলে স্ব স্ব মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করা হবে বলে জানান।

কুড়িগ্রাম

কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে নয়টায় প্রথম জামাত, সকাল ১০টায় দ্বিতীয় জমাত,নতুন শহর ঈদগাহ মাঠে ঈদের জামাত সকাল ৯টায়, আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে জামাত সকাল সাড়ে ৯টায়, রিভারভিউ স্কুল মাঠ, হরিকেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ, পলাশবাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ,সাত্তার স্কুল মাঠ, হোসেন খা পাড়া স্কুল মাঠে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

রংপুর

প্রধান জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮টায় কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে। আবহাওয়া খারাপ থাকলে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে কোর্ট জামে মসজিদে দুই পর্বে সকাল সাড়ে ৯ টায় ও ১০টায়। সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে প্রথম জামাত হবে পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে। এছাড়া মুন্সিপাড়া ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায়, কেরামতিয়া জামে মসজিদে প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৯টায় ও দ্বিতীয় জামাত ১০টায়। মন্ডলপাড়া বড় ঈদগাহ ও দামোদরপুর বড় ময়দানে সাড়ে ৯টায়, বদরগঞ্জ চান্দামাড়ি কারামতিয়া ঈদগাহে সকাল ১০টায়, পীরগাছা জেএন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, কাউনিয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, মিঠাপুকুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, তারাগঞ্জ চৌপথি ঈদগাহ, পীরগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, বদরগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ও সদর উপজেলা পরিষদ ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। রংপুর মেডিকেল কলেজ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়, গঙ্গাচড়ার পাইকান বড় জুম্মা মসজিদ মাঠে সকাল ৯টায়, ধাপ স্টাফ কোয়ার্টার জামে মসজিদ মাঠে এবং বুড়িরহাট কেন্দ্রীয় ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

ফরিদপুর

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায় শহরের কমলাপুরস্থ চাঁনমারী ঈদগাহ ময়দানে। সকাল সোয়া ৮টায় চকবাজার জামে মসজিদ, সাড়ে ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে পুলিশ লাইনস ময়দান, শামসুল উলুম মাদ্রাসা, চুনাঘাটা ঈদগা ময়দান, ফরিদপুর রেলস্টেশন মসজিদ, মাস্টার রেল কলোনী মসজিদ, বায়তুল মোকাদ্দেম মসজিদ ও আলীপুর গোরস্থান মসজিদে। সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে শাহ ফরিদ মসজিদে। ৯টায় কমলাপুর মাটিয়া গোরস্থান মসজিদ এবং সাড়ে নয়টায় জেলখানা মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

রাজশাহী

প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায় হযরত শাহ্ মখদুম (রহ) কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। ইমামতি করবেন, হযরত শাহ্ মখদুম (রহ) জামিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শাহাদাৎ আলী। তবে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করলে একই সময়ে হযরত শাহ্ মখদুম (রহ) দরগা মসজিদে একাধিক ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া সকাল ৮টায় নগরীর সাহেববাজার বড় রাস্তায় এবং একই সময় টিকাপাড়ায় মহানগর ঈদগাহ ময়দানে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

রাজশাহী বিভাগীয় স্টেডিয়ামে (তেরখাদিয়া) ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ঈদগাহে সকাল ৮টায়, সিরোইল সরকারী হাইস্কুল ঈদগাহ মাঠে সকাল সোয়া ৮টায়, হাজী লাল মুহাম্মদ ঈদগাহ মাঠে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

তবে বৃষ্টিপাত হলে সকাল ৮টায় প্রথম জামাত হবে বায়তুল আমান জামে মসজিদে এবং দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল পৌনে ৯টায়।

বুলনপুর ঈদগাহ মাঠে ৮টায়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮টায়, রাজশাহী জজকোর্ট ঈদগাহে সাড়ে ৮টায়, লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া ঈদগাহ মাঠ, রায়পাড়া বসরী ঈদগাহ ময়দান, কাঁঠালবাড়ীয়া ঈদগাহ ময়দান, রায়পাড়া ঈদগাহ ময়দান, রাজশাহী কোর্ট স্টেশন ঈদগাহ, শালবাগান গণপূর্ত মাঠ, মোল্লাপাড়া ঈদগাহ, লক্ষীপুর ভাটাপাড়া ঈদগাহ মাঠ, কোর্ট বুলনপুর ঈদগাহ মাঠ, খোজাপুর গোরস্থান ঈদগাহ মাঠ, সাতবাড়িয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮ টায়।

উপশহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ঈদগাহে সকাল পৌনে ৮ টায়, মসজিদ-ই-নূর ঈদগাহ মাঠ ৮ টায়, জাহাজঘাট মোড় ঈদগাহ, খোজাপুর ১নম্বর ঈদগাহ, পাঁচানী ঈদগাহ, সাতবাড়িয়া ঈদগাহ, বিনোদপুর আহলে হাদিস জামে মসজিদ, শহীদবাগ জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮ টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া কয়েরদাড়া ঈদগাহ ময়দান ৮ টায়, মালদা কলোনি ঈদগাহ ময়দান সোয়া ৮ টায়, মদিনাতুল উলুম কামিল মাদ্রাসা মাঠে ৮ টায়, ডিঙ্গাডোবা ঈদগাহ মাঠ, কাশিয়াডাঙ্গা সিটি গেট ঈদগাহ ও কাশিয়াডাঙ্গা ঈদগাহ ৮ টায়, মেহেরচ-ি বুধপাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, ধরমপুর মধ্যপাড়া ঈদগাহ মাঠে সাড়ে ৮ টায়, কাজলা ঈদগাহ মাঠ ৯ টায়, শিরোইল স্কুল ঈদগাহ মাঠে সোয়া ৮ টায়, মির্জাপুর পূর্বপাড়া ঈদগাহ মাঠে ৮ টায়, চৌদ্দপাই মোড় ঈদগাহ মাঠে সাড়ে ৮ টায়, ডাঁশমারী পূর্বপাড়া ঈদগাহ মাঠ ৯ টায়, সপুরা শাহী জামে মসজিদ, বিএডিসি ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। নগরীর ফিরোজাবাদ ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮ টায়, আমচত্বর আহলে হাদিস মাঠে সকাল সাড়ে ৭ টায়, রামচন্দ্রপুর মহলদার পাড়ায় সোয়া ৮ টায়, বালিয়াপুকুর জামে মসজিদ ৮ টায়, খাদেমুল ইসলাম স্কুল এন্ড কলেজ সাড়ে ৮টায়, তালাইমারী বাজারে সাড়ে ৮ টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। মোহনপুর ঈদগাহ মাঠে সাড়ে ৮ টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

বাঘা ঐতিহাসিক শাহী মসজিদ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে প্রধান ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮টায়। বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করলে এ ক্ষেত্রে স্থানীয় মসজিদসমূহে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এক্ষেত্রে কোথাও কোথাও একাধিক জামাত হতে পারে বলে স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

গাজীপুর

প্রধান জামাত কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৭টায় বাংলাদেশ সমরাস্ত্র কারখানা ঈদগাহ মাঠ (১ম জামাত)। সকাল সাড়ে ৭টায় মহানগরীর বোর্ডবাজারস্থিত ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলোজি (আইইউটি) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ও কাপাসিয়ার বরুন রোড জামে মসজিদ। সকাল ৮টায় পুলিশ লাইন মাঠ, বাংলাদেশ সমরাস্ত্র কারখানা ঈদগাহ মাঠ (দ্বিতীয় জামাত), বাংলাদেশ সিকিউরিটি প্রিন্টিং প্রেস জামে মসজিদ, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার ঈদগাহ মাঠ (১ম জামাত), কালিয়াকৈরের আনসার ভিডিপি একাডেমি ঈদগাহ মাঠ (১ম জামাত), চতর নয়া পাড়া জামে মসজিদ, কাপাসিয়া উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদ, কাপাসিয়া বাজার জামে মসজিদ ও কালীগঞ্জের ভাতগাঁটি ঈদগাহ মাঠ। সকাল সাড়ে ৮টায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ, চান্দনা চৌরাস্তা ঈদগাহ মাঠ (১ম জামাত), বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট জামে মসজিদ(১ম জামাত), ঢাকা প্রযুক্তি ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদ, কালিয়াকৈর বাজার মসজিদ, সফিপুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ। সকাল ৯টায় কাপাসিয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ, কালিয়কৈরের আনসার ভিডিপি একাডেমি ঈদগাহ মাঠ (২য় জামাত), নলজানী মধ্যপাড়া ঈদগাহ মাঠ, নীলেরপাড়া জামে মসজিদ, কালীগঞ্জের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, বালিগাঁও ঈদগাহ মাঠ ও মনসুর জামে মসজিদ, কালিয়াকৈরের চান্দাবহ ঈদগাহ মাঠ ও মাজুখান ঈদগাহ মাঠ। সকাল সাড়ে ৯টায় চান্দনা চৌরাস্তা ঈদগাহ মাঠ (দ্বিতীয় জামাত), বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট জামে মসজিদ(২য় জামাত), কাপাসিয়া দিগধা ঈদগাহ মাঠ। সকাল ১০টায় কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার ঈদগাহ মাঠ (২য় জামাত), শ্রীপুর পৌর ওয়ায়েদ্দার দিঘী কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ, শ্রীপুর মাওনা পিয়ার আলী ঈদগাহ মাঠ। সকাল সাড়ে ১০টায় শ্রীপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ।

যশোর

সবচেয়ে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে যশোর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। এবার শহরের অন্তত ৩৫টি স্থানে ঈদের জামাত আদায় করার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তবে বর্ষার কারণে অনেক ঈদগাহের মাঠে কাদা পানি জমে থাকায় বেশিরভাগ এলাকায় মসজিদে নামাজ পড়ার আয়োজন করা হচ্ছে। ঈদের দিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে নয়টার মধ্যে সবস্থানে জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এরমধ্যে সবচেয়ে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। উপশহরের ঈদগাহ ময়দান, মারকাস মসজিদ, কারবালা মসজিদ, যশোর আড়াইশ’ শয্যা হাসপাতাল মসজিদ, বেজপাড়া মেইন রোডের মসজিদ, রেলস্টেশন মসজিদ, বকচর মসজিদ, পুরাতন কসবা বিমান অফিস মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

গাইবান্ধা

প্রথম ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে পৌর গোরস্থান মসজিদে সকাল ৯টায়। এছাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগা মাঠে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায়। এনএইচ মডার্ণ হাইস্কুল মাঠ, পুলিশ লাইন ময়দান, পুলবন্দি ঈদগা মাঠ, রেল স্টেশন জামে মসজিদ, গাওছুল আযম জামে মসজিদ, ডেভিড কোম্পানিপাড়া জামে মসজিদ, ফকিরপাড়া জামে মসজিদ, খানকা শরীফ মাদ্রাসা মসজিদ, গোবিন্দপুর জামে মসজিদ, ভিএইড রোড জামে মসজিদ, সুখ নগর জামে মসজিদ, ব্রিজ রোড আহলে হাদিস জামে মসজিদ, গাইবান্ধা সরকারী কলেজ জামে মসজিদসহ পৌরসভার বিভিন্ন মসজিদ ও ঈদগা মাঠে ঈদের জামাত সকাল ৮টা থেকে ৯টার মধ্যেই অনুষ্ঠিত হবে। তবে বৃষ্টি হলে সব জামাত পার্শ্ববর্তী মসজিদে নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হবে।

মাগুরা

সকাল ৮ টায় নোমানী ময়দানে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সকাল সাড়ে আটটায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে দোয়ারপাড় পশ্চিম পাড়া মিয়াবাড়ী জামে মসজিদে, জজকোর্ট জামে মসজিদ, বেথরী ঈদগাঁ মাঠে, সকাল সাড়ে ৯ টায় শালিখার তালখড়ি মাঠে, সকাল ১০ টায় মহম্মদপুরের কুমরুল ঈদগাঁ, বাবুখালী ঈদগাঁ মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে । এছাড়া বিভিন্ন ঈদগা ও মসজিদে ঈদের পৃথক পৃথক জামাত অনুষ্ঠিত হবে ।

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৬

০৫/০৭/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: