২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

রায়পুরে দুই বাড়ীতে ডাকাতি, নারীসহ তিনজনকে কুপিয়ে জখম


সংবাদদাতা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ॥ লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে প্রবাসীর বাড়ীসহ দুই বাড়ীতে ডাকাতি হয়েছে। এসময় বাধা দিলে নারীসহ তিনজনকে কুপিয়ে মারাত্বক জখম করা হয়। গুরুতর জখম এক নারীসহ পিতা-পুত্রকে লক্ষ্মীপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার ভোর রাতে উপজেলার বামনী ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকাসংলগ্ন সৌদি প্রবাসী আব্দুর রহিম ও নজির আহম্মদ কাজি বাড়ীতে। ঘটনাস্থলে ওসি, ইউপি চেয়ারম্যান পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে শান্তনা জানান। লক্ষ্মীপর সদরের উপশম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতরা হলেন- তাহমিনা আক্তার (২৮), নজির আহম্মদ (৭০) ও আলমগীর হোসেন (৫০)। ঈদকে সামনে রেখে চুরি ডাকাতির ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষের মনে উদ্বেগ উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। কয়েকটি ইউনিয়নে রাত জেগে পাহারা বসিয়েও ডাকাতির ঘটনা ঠেকানো যাচ্ছে না।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানান, সোমবার ভোর সাড়ে তিনটার স্থানীয় ব্যবসায় নজির আহম্মদের পরিবার। এসময় ঘরের দরজা খোলা পেয়ে ৫-৬ লুঙ্গি পরা সশ্বস্ত্র যুবক বিল্ডিংয়ে ঢুকে অস্ত্রের মুখে সবাইকে জিম্মি করে ফেলে। এসময় গৃহকর্তা নজির আহম্মদ চিৎকার করে এক ডাকাতকে জড়িয়ে ধরলে তাকে এলোপাথারি কোপাতে থাকে এক ডাকাত। এসময় ছেলে আলমগীর হোসেন পিতাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাকেও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে ডাকাতদল পালাতে বাধ্য হয়। প্রায় একই সময়ে পাশ্ববর্তী সৌদী প্রবাসি আব্দুর রহিমের স্ত্রী তাহমিনা আক্তারের বসত ঘরের জানালার গ্রিল কেটে ঘরে প্রবেশ করে ডাকাতদল। এসময় তার ঘর থেকে দুই ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ ৭ হাজার টাকা, দুটি মোবাইলসহ প্রায় দুই লাখ টাকার মালামাল নিয়ে চলে যাওয়ার সময় গৃহকর্তী চিৎকার করলে তাকেও কুপিয়ে আহত করা হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান এলাকাবাসী।

রায়পুর থানার ওসি মোহাম্মদ লোকমান হোসেন বলেন, খবর পেয়েই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ক্ষতিগ্রস্তদের মামলা করার পরামর্শ দেয়া হয়েচে। লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার ও জড়িতদের গ্রেফতারের চেস্টা চলছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: