২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পুঠিয়ায় মাটির নিচে মিলল প্রাচীন আমলের সিন্দুক


স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহীর পুঠিয়ায় ঐতিহাসিক রাজবাড়ীর পেছনের একটি সুপারি বাগানের মাটি খুঁড়তে গিয়ে পাওয়া গেছে একটি প্রাচীন আমলের সিন্দুক। মাটি খনন করতে গিয়ে সিন্দুকের সন্ধান পাওয়া গেছে। ওই সিন্দুকের মধ্যে পৃথক তিনটি চেম্বার রয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। লোহার সিন্দুকটি খনন করে তোলা হয়েছে। পরে তা থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, জেলার পুঠিয়া উপজেলা সদরে ত্রিমোহনী বাজারসংলগ্ন রাজবাড়ীর পেছনের দিকে সুপারি বাগান কেনেন মানিক সরদার নামের এক ব্যক্তি। সেখানে বাড়ি নির্মাণের জন্য মাটি খোঁড়ার সময় লোহার সিন্দুকটি দেখতে পান শ্রমিকরা। শুক্রবার এ ঘটনাটি জানাজানি হলে ওই রাতেই পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র আসাদুল হক আসাদ, পুঠিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাহার আলী শাহ্ ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। খবর পেয়ে শনিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। শনিবার পৌরসভার কাউন্সিলর হারুন উপস্থিত থেকে মাটিখনন করে প্রাচীন আমলের সিন্দুকটি উদ্ধার করেন। বাড়ির মালিক মানিক সরদারের স্ত্রী সাজেদা বেগম জানান, পৌরসভা থেকে পায়খানার (টয়লেট) তৈরির জন্য রিংপাট পেয়েছেন তারা। তাই টয়লেট তৈরির জন্য মাটি খনন শুরু করা হয়। মাটি খনন করতে গিয়ে শ্রমিকরা প্রথমে লোহার শক্ত অংশ দেখতে পান। আরও একটু খনন করা হলে সিন্দুক দেখতে পান। সেই সিন্দুকের ছোট-বড় ৩টি বক্স রয়েছে। বক্সগুলোর একটিতে মাটি ও অপর দুইটিতে পানিভর্তি আছে। তবে তাতে কোন ধন-রতœ ছিল না।

পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র আসাদুল হক ও পুঠিয়া ইউপি চেয়াম্যান আতাহার আলী শাহ্ জানান, থানা পুলিশের উপস্থিতিতে সেই প্রাচীন আমলের তৈরি সিন্দুকটি ভাঙ্গা হয়। পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে সেখানে সিন্দুকটি খুলে দেখা হয়েছে। তবে তাতে তেমন কিছু ছিল না। উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরুজ্জামান জানান, সিন্দুকটি খনন করে তোলা হয়েছে এবং থানায় রাখা হয়েছে। তবে প্রতœতত্ত্ব বিভাগ সেটি নিয়ে যেতে পারে।