মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

নিহত ২০ জনের পরিচয় মিলেছে

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তরাঁয় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ২০ জনের মধ্যে নয়জনই ইতালির নাগরিক। এ ছাড়া সাতজন জাপানের ও একজন ভারতের নাগরিক রয়েছেন। বাকি তিনজন বাংলাদেশী। তবে শুক্রবার রাতের ওই হামলার পর এখনও এক নাগরিক নিখোঁজ রয়েছেন বলে ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পাওলো জেনতিলোনি জানিয়েছেন। তিনি লুকিয়ে থাকতে পারেন বা আহতদের মধ্যে থাকতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

নিহত ইতালীয়দের মধ্যে ছয়জনের পরিচয় জানা গেছে। এরা হলেন- বারিধারাভিত্তিক ইতালীয় বায়িং হাউজ স্টুডিও টেক্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নাদিয়া বেনেদিত্তো, গুলশান ২ নম্বরের আরেক ইতালীয় বায়িং হাউজ ডেকাওয়ার্ল্ড প্রাইভেট লিমিটেডের এমডি ভিনসেনজো ডি ভিনসেনজো, এ্যাডেল, মারকো, মারিয়া ও সিমিওন।

নিহতদের মধ্যে জাপানের সাত নাগরিক রয়েছেন বলে দেশটির মুখ্য মন্ত্রিপরিষদ সচিব ইয়োশিহিদি সুগা শনিবার জানিয়েছেন। নিহত ৭ জাপানী হলেন তানাশ হিরোশি, ওগামাওযারা, শাকাই ইউকু, কুরুসাকি নুবুহিরি, ওকামুরা মাকাতো, শিমুধুইরা রুই ও হাশিমাতো হিদেইকো। এছাড়া সকালে ওই রেস্তরাঁ থেকে আরেক জাপানীকে গুলিবিদ্ধ ও জখম অবস্থায় উদ্ধার করা হয় বলে দেশটির উপ-মুখ্য মন্ত্রিপরিষদ সচিব কোইচি হাগিউদা জানান।

ঢাকার এই হামলায় ভারতীয় তরুণী তারুশি নিহত হয়েছেন বলে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ জানিয়েছেন। শনিবার এক টুইটার বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমি অত্যন্ত বেদনার সঙ্গে জানাচ্ছি যে, ঢাকায় সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি ভারতীয় তরুণী তারুশি অস্ত্রধারীদের হামলায় নিহত হয়েছে।’

এ হামলায় তিন বাংলাদেশী নিহত হয়েছেন বলে খবর দিয়েছে তাদের পরিবার। এরা হলেন-ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমানের নাতি ফারাজ হোসেন, ডেএক্সওয়াই ইন্টারন্যাশনালের মানব সম্পদ বিভাগের পরিচালক ইশরাত আখন্দ এবং ল্যাভেন্ডারের মালিকের নাতনি অবিন্তা কবীর।

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৬

০৩/০৭/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: