২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

এইচপি দলে শামসুর


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে শামসুর রহমান শুভকে সুযোগ দেয়া যায়নি। তাই আর কি করার। হাই পারফর্মেন্স প্রোগ্রামে (এইচপি) শামসুরকে রাখতেই হচ্ছে। সেই কাজটি করছে বিসিবি। এইচপির দল আগে ঘোষণা করা হলেও, সেই দলে নতুন করে ওপেনার শামসুরকে যুক্ত করা হচ্ছে। ঢাকা লীগে দারুণ ব্যাটিং করেছেন শামসুর। তার দল গাজী গ্রুপ সুপার লীগে খেলতে পারেনি। তাই ১১ ম্যাচ খেলতে পারেন শামসুর। সেই ম্যাচগুলোতেই দেখান ব্যাটিং ঝলক। একটি শতক ও চারটি অর্ধশতকসহ ৫৫.৮০ গড়ে ৫৫৮ রান করেন। সুপার লীগ শুরু হওয়ার আগে শামসুরই রান সংগ্রাহক ব্যাটসম্যান হিসেবে শীর্ষে ছিলেন। কিন্তু সুপার লীগে না খেলতে পারায় সেই অবস্থানের পতন ঘটে। তবে শামসুর যে ব্যাটিং করেছেন, তাতেই একটা ধারণা হয়ে যায়; অন্তত ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের জন্য ঘোষিত প্রাথমিক দলে থাকবেন শামসুর। কিন্তু তাও হলো না! কেন জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে সুযোগ হলো না শামসুরের। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু যা জবাব দিলেন, তাতে জাতীয় দলে আর খেলার আশা হয়ত ছেড়েই দিতে হতে পারে শামসুরকে। কারণ, তার আগে যে আরও ৫জন ওপেনার পছন্দের তালিকায় আছেন। যেখানে ৬ নম্বরে শামসুর!

নান্নু বলেছেন, ‘আমাদের পছন্দের তালিকায় পাঁচজন ওপেনার রয়েছে। (শামসুর রহমান) শুভকে আমরা এখন ছয় নম্বর ওপেনার হিসেবে বিবেচনায় নিচ্ছি।’ প্রাথমিক স্কোয়াডে তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, এনামুল হক বিজয় ও ইমরুল কায়েসের সঙ্গে শাহরিয়ার নাফীসকেও এগিয়ে রাখা হয়েছে। শামসুরের অবস্থান সেখানে ৬ নম্বরে। তাই শামসুরকে দলে রাখা কঠিন হয়ে পড়েছে। আরেকদিকে এইচপি স্কোয়াডেও তিনজন ওপেনিং ব্যাটসম্যান আছেন। মেহেদি হাসান মারুফ, সাদমান ইসলাম এবং আব্দুল মজিদ আছেন। এ তিনজনের সঙ্গে এবার শামসুরকেও দেখা যাবে। প্রধান নির্বাচক নান্নুও মনে করেন, ‘এখনও শামসুর বেশ ভালভাবেই আমাদের বিবেচনায় আছে। তবে এই মুহূর্তে এইচপি ইউনিটটাই তার জন্য ভাল হবে বলে আমার ধারণা। তাই আমরা শামসুরকে এইচপির ব্যাটিং অর্ডারে যুক্ত করতে চলেছি।’ জুনের শেষ সপ্তাহে ২৪ সদস্যের এইচপি স্কোয়াড ঘোষণা করে বিসিবি।

আমলা-ব্রাভোর রেকর্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্লাব টি২০ ইতিহাসে পঞ্চম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের নতুন রেকর্ড গড়েছেন হাশিম আমলা ও ডোয়াইন ব্রাভো। পঞ্চম উইকেটে ১৫.২ ওভারে ১৫০ রানের জুটি গড়েন দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই তারকা ব্যাটসম্যান। ফলে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (সিপিএল) ম্যাচে বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টসের বিপক্ষে ১১ রানের জয় পেয়েছে তাদের দল ত্রিনবাগো নাইটরাইডার্স। ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৭০ রান করে ডোয়াইন ব্রাভোর ত্রিনবাগো, জবাবে ৮ উইকেটে ১৫৯ রানে থামে কাইরেন পোলার্ডের বার্বাডোজ। এর আগে পঞ্চম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ছিল মহরাষ্ট্রের (ভারত) যুগেশ তাকাওয়ালে ও সাইরাজ বাহুতুলের দখলে। গুজরাটের বিপক্ষে ৫ রানে হারা ম্যাচে ১৪৯ রানের জুটি গড়েছিলেন এই দুইজনে। দলীয় ২০ রানের মধ্যে আউট হন ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম, কলিন মুনরো, উমর আকমল ও ড্যারেন ব্রাভো। এরপরই আমলা-ডোয়াইন ব্রাভোর ওই অবিশ্বাস্য তা-ব। শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ৮১ রান করেন আমলা। ম্যাচ সেরা এই ব্যাটসম্যানের ৫৪ বলের ইনিংসটি ৫টি চার ও ৪টি ছক্কায় সাজানো। ৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন সেনাপতি ডোয়াইন ব্রাভো। তার ৪৬ বলের ইনিংসটি গড়া ৩টি চার ও ৪টি ছক্কায়। ম্যাচে দল হারলেও ব্যক্তিগত ২৮ রানের পথে ইতিহাসের মাত্র দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে টি২০তে ৬ হাজার রানের মাইলফলক অতিক্রম করেন পাকিস্তানী অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক।

ম্যানইউ ছাড়লেন গিগস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিংবদন্তি রায়ান গিগস অবশেষে ছাড়ছেন ক্লাবটি। দীর্ঘ প্রায় ৩০ বছর তিনি এই ক্লাবে ছিলেন। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের এই শীর্ষস্থানীয় ও জনপ্রিয় ক্লাবের পক্ষ থেকে শনিবার জানানো হয় আর থাকছেন না গিগস।

৪২ বছর বয়সী ওয়েলসের ফুটবলার গিগস ছিলেন এ্যালেক্স ফার্গুসনের সবচেয়ে কাছের। আর ফার্গুসন দীর্ঘদিন ধরে তিল তিল করে গড়েছেন ম্যানইউ। ক্লাবটিকে দিয়েছেন অনেক কিছুই। ফার্গুসন যাওয়ার পর কিছুদিন খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। আর ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই তিনি এই ক্লাবের হয়েই খেলে গেছেন। এরপর ডেভিড মোয়েস ও লুইস ভ্যান গাল কোচ হিসেবে আসার পর তাদের সহকারী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন এতদিন গিগস। এখন ক্লাবটি ছাড়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি কখনও হালকাভাবে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি না। আমি অনেকগুলো বিশেষ স্মৃতি এবং আজীবনের জন্য কিছু অভিজ্ঞতা নিয়ে যাচ্ছি। আশাকরি এটা আমাকে ভবিষ্যতে খুব ভালভাবে সহায়তা দেবে। যদিও আপাতত আমার কোন পরিকল্পনা নেই কোন ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে যাওয়ার।’

র‌্যাকেট না ভাঙলে বেশিদূর যেতে পারি না ॥ সেরেনা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শনিবারও ছিল বৃষ্টির দাপট। তাই চলমান উইম্বলডন টেনিস আসরে বেশ কয়েকটি ম্যাচে ঘটেছে বিঘœ। তবে এর মাঝেই শেষ হওয়া ম্যাচগুলোর মধ্যে জয় তুলে নিয়েছেন স্পেনের দ্বাদশ বাছাই কার্লা সুয়ারেজ নাভারো, আট নম্বর বাছাই যুক্তরাষ্ট্রের ভেনাস উইলিয়ামস ও পাঁচ নম্বর বাছাই রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপ। আগেরদিন দ্বিতীয় পর্বে বেশ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিলেন বিশ্বের এক নম্বর ভেনাসের ছোট বোন সেরেনা উইলিয়ামস। স্বদেশী ক্রিস্টিনা ম্যাকহেলের বিরুদ্ধে তীব্র লড়াইয়ের পর জয় তুলে নেন শেষ পর্যন্ত। তবে বারবারই হাতের র‌্যাকেট আছাড় দিয়ে নিজের আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন লাথি মেরে র‌্যাকেট ভেঙ্গে ফেলতেও তিনি প্রস্তুত ছিলেন। কারণ প্রতি বছরই নির্দিষ্ট সংখ্যক র‌্যাকেট ভাঙ্গা অভ্যাস তার। শনিবার পুরুষ এককে তৃতীয় বাছাই সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরার ও নবম বাছাই মারিন চিলিচরাও উঠে গেছেন চতুর্থ পর্বে।

অবাছাই ম্যাকহেল প্রথম সেটেই অগ্নিপরীক্ষায় ফেলে দেন সেরেনাকে। আর বারবার নিজের ভুলের জন্য আক্ষেপ প্রকাশ করে গেছেন ক্যারিয়ারের সপ্তম উইম্বলডন জয়ের অভিযানে নামা শীর্ষ এ কৃষ্ণতারকা। র‌্যাকেট আছাড় দেয়ার মাধ্যমেই সেই আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন। সেটা বেশ কয়েকবারই করেছেন তিনি। এ বিষয়ে ৩৪ বছর বয়সী সেরেনা বলেন, ‘আমার অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে এবং প্রায় প্রতিটি কোর্টেই এমন লড়াই করেছি। সে জন্যই এখন শীর্ষে আছি। কিন্তু প্রতি ম্যাচেই আমি পরিকল্পনা করি নিজের উন্নতি করার। আমি আশা করছি আরও ম্যাচ খেলার মাধ্যমে ভাল করতে সক্ষম হব। আমি যে কোন চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। তবে যখন কোন ম্যাচ তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয় সেসব ক্ষেত্রে অনেক দুর্দান্ত হয়ে উঠি। আর লড়াই করে যাই শেষ পর্যন্ত। কখনও হাল ছাড়ি না। আমি নিশ্চিতভাবেই যুদ্ধংদেহী মনোভাবে ছিলাম। এমনকি আমি মাঝে মাঝে জীবনমরণ লড়াইও মনে করি এবং টুর্নামেন্টে টিকে থাকার জন্য চেষ্টা করি।’ আরেকটি গ্র্যান্ডস্লাম জিতলেই উন্মুক্ত যুগে স্টেফি গ্রাফের জেতা ২২ গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের রেকর্ড স্পর্শ করবেন তিনি। কিন্তু ম্যাকহেলের বিরুদ্ধে যেভাবে নিজের পরিকল্পনা মাফিক খেলতে ব্যর্থ হচ্ছিলেন সেটাই তাকে রাগান্বিত করছিল। বারবার র‌্যাকেট কোর্টে আছাড় দেয়ার জন্য তাঁকে সতর্কও করা হয়। এ বিষয়ে সেরেনা বলেন, ‘আমি সত্যিই খুব রাগান্বিত ছিলাম। এমনকি দারুণ হতাশও ছিলাম। ক্যারিয়ারে অনেক র‌্যাকেট ভেঙ্গেছি আমি। আমি আসলে র‌্যাকেট না ভেঙ্গে বেশিদূর যেতে পারি না। বছরে আমি নির্দিষ্ট পরিমাণ র‌্যাকেট ভাঙ্গি। কিন্তু এ বছর আমি অনেক কমই সেটা করেছি।’ সেরেনার মতোই কষ্টার্জিত জয় পেয়েছেন ভেনাস। অবশ্য এক ধাপ বেশি এগিয়েছেন ৩৬ বছর বয়সী এ মার্কিন তারকা। অষ্টম বাছাই ভেনাস ৭-৫, ৪-৬ ও ১০-৮ সেটে হারিয়ে দেন রাশিয়ান কিশোরী দারিয়া কাসাতকিনাকে। আর নাভারো পেয়েছেন সহজ জয়। তিনি ৬-২, ৬-২ সেটে উড়িয়ে দিয়েছেন ইরাকোভিচকে। পঞ্চম বাছাই রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপও সহজ জয় তুলে নিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছেন। তিনি ৬-৪, ৬-৩ সেটে হল্যান্ডের কিকি বার্টেন্সকে হারিয়ে দেন।

পুরুষ এককে অভিযান অব্যাহত আছে ফেবারিটদের। তবে জোকোভিচ কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে আছেন।

বাংলাদেশের ক্রীড়া দলের রাশিয়া

যাত্রা আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ৫-১৭ জুলাই পর্যন্ত রাশিয়ার ইয়াকুশিয়ায় (শাখা রিপাবলিক) চিলড্রেন অব এশিয়া ইন্টারন্যাশনাল স্পোর্টস গেমসের ষষ্ঠ আসর অনুষ্ঠিত হবে। এই গেমসে বাংলাদেশ থেকে আরচারি, শূটিং, দাবা, তায়কোয়ানদো ডিসিপ্লিনে ১২ খেলোয়াড়, ৭ টিম অফিসিয়ালসহ মোট ২২ সদস্যের ১টি ক্রীড়া দল অংশ নেবে।

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে দলটির নেতৃত্ব দেবেন সাবেক সচিব এবং বাংলাদেশ বক্সিং ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি ড. খন্দকার শওকত হোসেন। দলের সদস্যরা রবিবার সকালে বিমানযোগে রাশিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন এবং গেমস শেষে আগামী ১৮ জুলাই ভোরে বিমানযোগে ঢাকায় প্রত্যাবর্তন করবেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: