১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রিও অলিম্পিকে বোল্টের অংশগ্রহণ নিয়ে শঙ্কা


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মাত্র একদিন আগেও অনেক ভাল ছিলেন। জ্যামাইকার অলিম্পিক ট্র্যাক এ্যান্ড ফিল্ড দলের চূড়ান্ত স্কোয়াডে ঠাঁই নেয়ার জন্য অনুশীলন শুরু করেছিলেন। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালের পরই আর অগ্রসর হতে পারলেন না সর্বকালের সবচেয়ে গতিধর স্প্রিন্টার উসাইন বোল্ট। বাঁ পায়ের হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে অলিম্পিক ট্রায়ালের ফাইনালে অংশ নেননি। পরে দেখা গেছে হ্যামস্ট্রিং ছিঁড়ে গেছে তার। এ কারণে আগামী আগস্টে অনুষ্ঠিতব্য রিও ডি জেনিরো অলিম্পিকে তার অংশগ্রহণ নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে শঙ্কা।

টানা দুই অলিম্পিকের স্প্রিন্টে স্বর্ণ জিতেছিলেন বোল্ট। এবার রিও অলিম্পিকে চ্যাম্পিয়ন হলে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি হতো। এর আগে কোন স্প্রিন্টারই তিন অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জিততে পারেননি। এ কারণে বেশ ভালভাবেই প্রস্তুতি শুরু করেছিলেন বোল্ট। শুক্রবার রাতের মধ্যেই জ্যামাইকা তাদের অলিম্পিকের দল চূড়ান্ত করার কথা ছিল। কারণ রাতেই অনুষ্ঠিত হয়েছে সেমিফাইনাল ও ফাইনাল। সেখানে নিশ্চিতভাবেই বোল্ট সবার ওপরে থাকবেন সেটাই সবাই ধরে নিয়েছিলেন। কারণ ট্রায়ালের কোয়ার্টার ফাইনালে নিজের ওপর অত বেশি চাপ না নিয়েও এ গতি তারকা ১০০ মিটার শেষ করেছেন ১০.১৫ সেকেন্ডে। কিন্তু মাঝপথেই সরে দাঁড়াতে হলো। এবার নিজের ফিটনেস কতটা সঠিক অবস্থানে আছে সেটার পরীক্ষা দিতে হবে তাকে। ২২ জুলাই লন্ডনে ডায়মন্ড লীগে নিজেকে মেলে ধরতে পারলেই শুধু রিও অলিম্পিকে অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন এ বিশ্বরেকর্ডধারী গতি তারকা। পুরো বিষয়টি নিয়ে বোল্ট এক বিবৃতিতে বলেন, ‘গত রাতে প্রথম রাউন্ডের পর থেকেই হ্যামস্ট্রিংয়ে অস্বস্তি বোধ করছিলাম। আবার যখন সেমিফাইনালে নামতে গেছি তখনও। জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপস দলের প্রধান ডাক্তার আমার এ বিষয়টি খতিয়ে দেখেছেন। তিনি সেখানে এক নম্বর গ্রেডের চিড় শনাক্ত করেছেন। এরপর আমাকে সরেই দাঁড়াতে হলো।

বোল্ট কি পুরোপুরিই জ্যামাইকার ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নশিপস থেকে সরে দাঁড়ালেন কিনা সেটা নিয়ে সংশয় আছে। জ্যামাইকান এ্যাথলেটিক্স এ্যাডমিনিস্ট্রেশন এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক গার্থ গেইল বলেন, ‘শনিবার যদি গেইল ২০০ মিটারে নামতে ব্যর্থ হন সেক্ষেত্রে তিনি অলিম্পিক দলে জায়গা হারাতে পারেন।’ তাহলে প্রথম স্প্রিন্টার হিসেবে ১০০ ও ২০০ মিটার ডাবল জয়ের হ্যাটট্রিক করা ব্যক্তি হওয়া থেকে বঞ্চিত হবেন বোল্ট। গার্থ বলেন, ‘বোল্টের সঙ্গে ক্যাম্পে খুবই সপ্রতিভ এবং মেধাবী লোকজন আছেন। তারাই ভাল করে জানেন কি করতে হবে।’ কিংস্টন ন্যাশনাল স্টেডিয়ামের অলিম্পিক ট্রায়ালের সেমিফাইনালে পায়ের সমস্যা নিয়েও ১০.০৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে শেষ করেন বোল্ট। তিনি জানিয়েছেন আপাতত তার লক্ষ্য ২২ জুলাই লন্ডন ডায়মন্ড লীগে নিজেকে ফিরে পাওয়া।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: