মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

মধুর সময় উপভোগ করছেন কোলম্যান

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৬

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রবসন-কানু দারুণ এক গোল করলেন ওয়েলসের পক্ষে। প্রথমে গোল হজম করে পিছিয়ে থেকেও এগিয়ে যাওয়াটা সম্ভব হয়েছে তার লক্ষ্যভেদের কারণেই। এর আগে সমতা ফেরান এ্যাশলে উইলিয়ামস এবং শেষ মুহূর্তে স্যাম ভোকস আরেকটি গোল করে বড় ব্যবধানের জয় এনে দেন। প্রথমবারের মতো কোন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে পা রাখতে পেরেছে দেশটি। এমন সাফল্য এসেছে কোচ ক্রিস কোলম্যানের হাত ধরে। তিনি দাবি করেছেন স্বপ্ন দেখতে গিয়ে ভীত না হলে এবং সেটা পূরণের জন্য প্রচুর পরিশ্রম করলেই শুধু সফলতা আসে। নিজের স্বপ্নটা পূরণ হয়েছে, তাই মধুর সময়টা দারুণ উপভোগ করছেন কোলম্যানÑ এমনটাই দাবি করলেন তিনি।

বেলজিয়াম বেশ দুর্দান্ত দলের মতোই খেলেছে এবার ইউরোতে। কিন্তু ওয়েলসের কাছে এসেই ধাক্কাটা খেয়ে গেল তারা। প্রথম গোল করে এগিয়ে গিয়েও দুরন্ত ওয়েলসের সঙ্গে পেরে ওঠেনি দলটি। এবার মহাতারকা গ্যারেথ বেল মুখোমুখি হবেন রিয়াল মাদ্রিদে তারই সতীর্থ ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পর্তুগালের বিরুদ্ধে। এমন একটি অবস্থানে পৌঁছুনো ছিল একেবারেই অবিশ্বাস্য।

কিন্তু সেটা নিয়ে ওয়েলস কোচ কোলম্যান বলেন, ‘স্বপ্ন, কখনও সেটা দেখতে গিয়ে ভীত হয়ো না। কারণ চার বছর আগে আমরা অনেক দূরে ছিলাম এখনকার অবস্থানে আসার ক্ষেত্রে। এটা হয়তো আপনারা কল্পনাও করতে পারেননি, কিন্তু দেখুন কি ঘটল?’ ২০১২ সালে কোলম্যান ওয়েলসের দায়িত্ব নিয়েছেন। তারই কাছের বন্ধু গ্যারি স্পিড ছিলেন কোচ। স্পিডের মৃত্যুর পর দায়িত্বটা কোলম্যানের কাঁধে বর্তায়। তখন থেকেই স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিলেন কোলম্যান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘স্বপ্ন দেখতে গিয়ে যদি ভীত না হন এবং সেটা পূরণের জন্য যথেষ্ট পরিমাণে কঠোর পরিশ্রম করেন, ব্যর্থ হওয়ার ভয় না পান সেক্ষেত্রেই শুধু এমন অর্জন সম্ভব। এটা সত্যিই মধুর এবং উপভোগ করছি।’

সুইডেনে অনুষ্ঠিত ১৯৫৮ সালে একটি মাত্র বিশ্বকাপ খেলেছিল ওয়েলস। এরপর আর কোন বড় মাপের আন্তর্জাতিক আসরে অংশ নেয়নি। সেবার কোয়ার্টার ফাইনাল খেলতে পেরেছিল। এবারই প্রথম ইউরোতে অংশ নিয়েই পূর্বের সেই সাফল্য ছাড়িয়ে এখন সেমিতে পৌঁছেছে দলটি। এবার স্বপ্নটাকে আরও বড় করার সময় হয়ে গেছে। সেভাবে ভাবছেও ওয়েলস। শেষ চারের গ-ি পেরনো। কিন্তু এই স্বপ্ন পূরণটা দুরূহ হয়ে যাবে তাদের জন্য। কারণ অন্যতম দুই ফুটবলার এ্যারন রামসে ও বেন ডেভিস টানা দুই ম্যাচে হলুদ কার্ডের জন্য সেমিতে মাঠে নামতে পারবেন না। এ দু’জনই বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে দুটি গোলের জোগানদাতা। তাই কোলম্যানের জন্য কিছুটা কঠিনই হবে পরবর্তী লড়াইটা।

বেলজিয়ামের কোচ মার্ক উইলমটস এখন প্রশ্নবিদ্ধ। ইতিহাসের সেরা তারকাসমৃদ্ধ একটি দল নিয়েও ব্যর্থতার জন্য কঠিন দায়বদ্ধতার মধ্যে পড়তে হবে তাকে। অবশ্য তার প্রথম পছন্দের চার ডিফেন্ডারের মধ্যে তিনজনÑ ভিনসেন্ট কোম্পানি, থমাস ভারমালেন ও জ্যান ভার্টোনহেন খেলতে পারেননি। তবে এরপরও সহজ কিছু সুযোগ কাজে লাগাতে না পারাটাকেই বেলজিকদের এমন হারের কারণ হিসেবে দেখছেন সবাই। তবে কোচ উইলমটস বলেন, ‘আমি জানি তাদের সামর্থ্য ও যোগ্যতা আছে। গড়পড়তায় আমরা একেবারেই তরুণ একটা দল। তবে আমি বলব আমরা আরও ভাল খেলতে পারতাম। আমি ব্যাখ্যা করতে পারব না কেন আমরা সেটা করতে সক্ষম হলাম না।’

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৬

০৩/০৭/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: