১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

টুপি আতর বিক্রির হিড়িক


সমুদ্র হক ॥ ঈদ দুয়ারে টোকা দেয়ার সঙ্গেই টুপি আতর সুরমার কদর বেড়ে গেছে। অনেককেই দেখা যায় ভর বছর নামাজের কাতারে দাঁড়ান না, অথচ ঈদ এলেই টুপি আতর কেনার তোড়জোড় শুরু হয়। আবার অনেকে নানা ধরনের টুপি ও সুগন্ধি আতর ব্যবহার করেন। এদিকে বগুড়া অঞ্চলের টুপি গত দশ বছর ধরে বিদেশেও যাচ্ছে। শেরপুর ও ধুনট উপজেলার কয়েকটি গ্রামে নারীরা কুরুশ কাঁটায় টুপি তৈরি করছেন।

শহরের প্রধান সড়কের ধারে টুপি আতর সুরমা নিয়ে পসরা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা। বগুড়া সেন্ট্রাল মসজিদের সামনে টুপি ও আতর বিক্রেতা রবিউল বললেন, ঈদের আগের এ সময়টাতেই টুপি বিক্রি বেড়ে যায়। নিউমার্কেটের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ধারে টুপি ও আতরের পাইকারি দোকানগুলোতে এখন প্রচুর ভিড়। চিল ছোঁ দেয়ার মতো করে টুপি বিক্রি হচ্ছে। সময় নিচ্ছে না, যার যা পছন্দ এক দামে কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। দোকানিরা বলছেন, ঈদের সময়টাতে টুপি আতর বিক্রিতে পারতপক্ষে কোন দরদাম হয় না।

বর্তমানে অনেক ধরনের টুপি মিলছে। দেশে তৈরি টুপি ছাড়াও বিদেশী টুপি এসেছে অনেক। চীন থাইল্যান্ড মালয়েশিয়ার তৈরি ক্রুশ কাঁটার টুপিগুলোর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলছে বগুড়ার টুপি। দেশী প্রতিটি টুপি ২৫ টাকা থেকে দুই শ’ টাকার মধ্যে। দামী টুপি আছে যেমন- হাজী টুপি, কাশ্মিরী টুপি, শাহী টুপি, পাল্লা টুপি এগুলোর দাম দুই শ’ থেকে আড়াই হাজার টাকা পর্যন্ত। বগুড়ার কুরুশ কাঁটার টুপির মধ্যে কদম ফুল স্টার বোতাম শাপলা মনিকা ছাব্বিশ ফুল মসজিদ পঞ্চাশ পুল মাকড়সা বেকি পাঁচপাই টিক্কা টুপির চাহিদা বেশি।

শেরপুরের সুঘাট বেলগাছি কল্যাণী চকধলা দশশিখাপাড়া বথুয়াবাড়ি মাঠপাড়া পাঁচখুপি চককল্যাণী বেলগাছি চকধলি, ধুনটের চালাপাড়া মাটিকোড়া উল্লাপাড়া তারাকান্দি খোকশাহাটি ফকিরপাড়াসহ অন্তত ৫০ গ্রামে এখন টুপি তৈরি হচ্ছে। বগুড়ার এই টুপি কিনে নিয়ে যায় ঢাকার মহাজনরা। রমজান মাস শুরু হওয়ার অনেক আগেই তারা টুপি তৈরির অর্ডার দেয়। কেউ উপকরণের অর্থ আগাম দিয়ে যান। কুরুশ কাঁটায় টুপি তৈরির কারিগর নিলুফার শ্যামলী বললেন, এক ববিন সুতায় ১০ থেকে ১২টি টুপি তৈরি করা যায়। এই তৈরি মানে কুরুশ কাঁটায় বোনা। বগুড়ার এই টুপি এখন ঢাকার চকবাজার হয়ে চলে যাচ্ছে বিদেশে।

এদিকে টুপির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে আতর বিক্রি। আতর আসে বিভিন্ন দেশ থেকে। ভারত, ইরান, দুবাই, সৌদি আরব এমনকি ইউরোপের দেশ থেকে আতর আসছে। মিশকিআম্বর গুলবাহার দরবার রেডরোজ বেলী এ্যারেবিয়ান জুঁই বকুল চামেলী মর্নিংকুইন গোলাপবাহার জেসমিন শাহীদরবার জান্নাতুল ফেরদৌসসহ নানা ধরনের আতর মিলছে। প্রতি তোলা আতর ৮শ’ টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে ছোট্ট শিশিতে করে ভরে নিলে দাম পড়ে ৫০ টাকা থেকে ৫শ’ টাকা। বর্তমানে সুরমা বিক্রি খুব একটা হয় না। পাথর সুরমা এবং গুঁড়ো সুরমা দুই মেলে। ঈদের আগের এই ক’টা দিন টুপি আতর সুরমা বিক্রির হিড়িক পড়ে গেছে।