১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

খুলনায় ভারি যান চলাচলে বেহাল সড়ক


স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ খুলনা-পাইকগাছা সড়কের কপিলমুনির গোলাবাড়ি মোড় থেকে পাইকগাছা পৌরসভার জিরোপয়েন্ট পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার ভেঙ্গেচুরে যানবাহন চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গত বছর খুলনা-পাইকগাছা সড়কের সংস্কার কাজ সম্পন্ন হলেও নিম্নমানের কাজ ও অতিরিক্ত পণ্য বোঝাই ট্রাক চলাচলের কারণে রাস্তার ওই অংশটি মারাত্মক ঝঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এই পথে চলতে গিয়ে জনগণকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। পাইকগাছা নাগরিক কমিটির ব্যানারে এলাকাবাসী রাস্তাটি সংস্কারের দাবিতে সম্প্রতি মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে। তারা এই রাস্তায় দশ টনের অধিক পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধেরও দাবি জানিয়েছেন। এলাকাবাসী জানায়, আশির দশকে খুলনা-পাইকগাছা সড়কটি পাকাকরণের পর থেকে যাত্রীবাহী বাসসহ সব ধরনের ছোট-বড় যানবাহন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু রাস্তাটি কখনই ভালভাবে সংস্কার করা হয়নি।

২০১১ সালের আগস্ট মাসে কপোতাক্ষ নদের পানি বৃদ্ধি ও অতি বর্ষণের কারণে এ রাস্তার তালা থেকে পাইকগাছার কাশিমনগর পর্যন্ত প্রায় দুই মাস পানিতে নিমজ্জিত ছিল। এ সময় ওই সড়কে যাত্রীবাহী বাসসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। প্রায় দুই মাস পর পানি সরে গেলেও রাস্তাটি যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় প্রায় সাড়ে ৩ বছর পর রাস্তাটি মেরামতে পদক্ষেপ নেয়া হয়। গত বছরের এপ্রিল মাসে রাস্তার মেরামত কাজ শেষ হয়। তবে কপিলমুনি থেকে পাইকগাছা পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার রাস্তার কাজ জোড়াতালি দিয়ে করায় অল্প দিনের মধ্যে পিচ-খোয়া উঠে গর্তের সৃষ্টি হয়। স্থানীয়রা জানান, প্রায়ই পাইকগাছা-কয়রা উপজেলার বিভিন্ন ঠিকাদারী কাজের জন্য এই রাস্তা দিয়ে ‘দশ চাকার’ ট্রাক ৩০ থেকে ৪০ টন পাথর বা অন্যান্য পণ্য নিয়ে চলাচল করছে। এতে রাস্তাটি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, খুলনা-পাইগাছা সড়কের আঠারমাইল এলাকা থেকে পাইকগাছা পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১০ টন মালবাহী ট্রাক বা যানবাহন চলাচলযোগ্য। সেখানে তিন গুণেরও বেশি ভারি ট্রাক চলাচল করায় রাস্তাটি দ্রুত ভেঙ্গে যাচ্ছে।