মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

জলঢাকায় ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী॥ ঈদুল ফিতরে সরকারের দেয়া বিশেষ বরাদ্দের ভিজিএফের বিনামূল্যে চাল জলঢাকা উপজেলায় কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। শনিবার জলঢাকা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনছার আলী মিন্টু ও সাধারণ সম্পাদক সহীদ হোসেন রুবেলের যৌথ স্বাক্ষরে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ অভিযোগ করা হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার ৮১ হাজার সুবিধাভোগীর জন্য ২০ কেজি হিসাবে সরকার ১৬শ’ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয় ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, প্রতিটি ইউনিয়নে বরাদ্দকৃত ভিজিএফ চাল সুবিধাভোগীদের ২০ কেজির স্থলে ১০ কেজি এবং বাকি অংশের চাল কালোবাজারীদের কাছে বিক্রি করে দেয়া হচ্ছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান হাবিবকে সুষ্ঠুভাবে চাল বিতরণের বিষয়টি বারবার অবগত করলেও তিনি কোন কথাই কর্ণপাত করেননি। বরং দুর্নীতিবাজ ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে আঁতাত করে এসব চাল দরিদ্র পরিবারগুলোকে না দিয়ে কালোবাজারিদের কাছে বিক্রি করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ইউপি চেয়ারম্যানদের এহেন কর্মকা-ের উপজেলা আওয়ামী লীগ তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। সেই সাথে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে ও সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি করা হয়।

সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৮

নিজস্ব সংবাদদাতা, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া থেকে জানান, কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ভিজিএফের চাল দেয়া নিয়ে সংঘর্ষে নারীসহ ৮ জন আহত হয়েছে। শুক্রবার রাতে উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের বৈরাগীরচর রহিমপুর গ্রামে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার সকালে ওই গ্রামের মজিবর রহমানের প্রতিবন্ধী ছেলে আমান (৪০) মরিচা ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফের চাল সংগ্রহ করতে যায়। চাল বিতরণকারীরা দিনভর প্রতিবন্ধী আমানকে বসিয়ে রেখে চাল না দিয়ে বিকেলে তাকে তাড়িয়ে দেয়। খালি হাতে বাড়ি ফিরে গেলে প্রতিবন্ধী আমানের পরিবারের লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে ভিজিএিফের চাল বিতরণকারীদের গালমন্দ করে।

গালমন্দের খবর শুনে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে চাল বিতরণকারী মসলেম সর্দারের নেতৃত্বে রাজ্জাক, রাজিব, সজিব, শরিফুল ও টেগু মজিবর রহমানের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা মজিবর রহমানের বাড়ির লোকজনকে বেধড়ক মারপিট শুরু করলে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষের খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৮ জন আহত হলে রিমন, বিল্লাল, তুফান, মজিবর প্রামানিক, তসলিমা ও রাবেয়া খাতুনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মজিবর রহমান বাদী হয়ে শনিবার দুপুরে দৌলতপুর থানায় এজাহার দিয়েছে।

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৬

০৩/০৭/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: