১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় সর্বদলীয় বৈঠক আয়োজনের আহ্বান এরশাদের


স্টাফ রিপোর্টার ॥ গুলশানের আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সেবায়িত হত্যাকান্ড ও একের পর এক সন্ত্রাসী ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। শনিবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘রাজধানী ঢাকার কূটনৈতিক অঞ্চল হিসেবে পরিচিত, অভিজাত গুলশান এলাকায় ‘হলি আর্টিজান বেকারী’ রেষ্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলা, দেশী/বিদেশী নাগরিকদের জিম্মি করা ও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ছাড়াও, সেনা, নৌ ও অন্যান্য বিশেসায়িত বাহিনীর সম্মিলিত উদ্যোগ সত্ত্বেও প্রায় ১২ ঘন্টা শ্বাসরুদ্ধকর বন্দুকযুদ্ধ চলে।

২ জুলাই সকালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। দুই পুলিশ অফিসারের মৃত্যু, প্রায় ৩০ জন পুলিশ বাহিনীর সদস্য আহত ও ঘটনাস্থলে ৭টি মৃতদেহ দেখা গেছে বলে, প্রাথমিকভাবে গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়। এধরণের ব্যাপক, বেপরোয়া ও পরিকল্পিত সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম দেখা গেলো। একইসাথে ক্রমাগতভাবে দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পুরোহিত-পাদ্রি-সেবায়িত হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। এধরণের ঘটনাবলী আমাদের অস্তীত্বকে হুমকির সম্মুখিন করে তুলছে।

আমরা এই ঘটনায় গভীরভাবে মর্মাহত ও উদ্বীগ্ন। যারা সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত ও যারা আহত হয়ে চিকিৎসাধীন আছেন তাদের আশু সুস্থ্যতা কামনা করছি। শোক সন্তন্ত পরিবারসমূহের জন্য আমাদের সমবেদনা জানাচ্ছি।

এদেশে উগ্র সন্ত্রাসবাদ বিস্তারের বিষয়টিকে আর ছোট করে দেখার অবকাশ নেই। এটি এখন ব্যাক্তি নিরাপত্তার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা যাচ্ছে না। সন্ত্রাসবাদমুক্ত নিরাপদ দেশ হিসেবে আমাদের পরিচয় আজ আন্তর্জাতিকভাবে প্রশ্নবিদ্ধ। বহিরবিশ্বের সঙ্গে বাণিজ্য, দেশী/বিদেশী বিনিয়োগ, পর্যটন ছাড়াও দ্বিপাক্ষিক যেকোন সম্পর্ক ও কর্মকান্ডে এর নেতীবাচক প্রভাব পড়বে, ধরে নেওয়া যায়। এ প্রেক্ষিতে, দেশের অর্থনীতি ও সামাজিক নিরাপত্তা মারাত্মক ঝুঁকির সম্মুখিন। ফলশ্রুতিতে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি হবে অপরিসীম।

এধরণের উগ্র সন্ত্রাসবাদ একটি জটিল সমস্যা। সমাধানে দেশবাসীর ঐক্য জরুরী। ঐকান্তিকভাবে সম্মিলিত প্রয়াস ছাড়া লক্ষ্য অর্জন শুধু কষ্টসাধ্য নয় প্রায় অসম্ভব বলা যায়। সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় একটি সর্বদলীয় বৈঠকের আয়োজন করার জন্য কয়েকদিন আগে আমি সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিলাম। অদ্ভুত পরিস্থিতিতে আবারও সেই আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করছি।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: