২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জুমাতুল বিদায় মুসল্লির ঢল ॥ মোনাজাতে দেশের কল্যাণ কামনা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ মাহে রমজানকে বিদায় জানাতে যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে পবিত্র জুমাতুল বিদা। রমজানের শেষ জুমার নামাজ। এ উপলক্ষে শুক্রবার রাজধানীসহ সারাদেশে মসজিদে জুমার নামাজে মুসল্লিদের ঢল নামে। শিশু থেকে বৃদ্ধ সবাই আল্লাহ্র সান্নিধ্য লাভ ও অধিক পুণ্যের আশায় মসজিদে হাজির হন। নামাজে শরীক হয়ে মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজেদের পাপমোচনের জন্য দোয়া করেন। এছাড়া দিনটি উপলক্ষে মসজিদে মসজিদে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। মোনাজাতে দেশ ও জাতির কল্যাণ, মুসলিম উম্মাহ্র ঐক্য ও শান্তি কামনা করা হয়।

পবিত্র জুমাতুল বিদাকে আবার সারাবিশ্বের মুসলমানরা আল কুদস্ দিবস হিসেবেও পালন করে থাকেন। এজন্য বিশ্বের সব প্রান্তের মুসলমানদের কাছে জুমাতুল বিদা অধিক গুরুত্বপূর্ণ। তারা এ দিনটিকে অধিক ফজিলত ও বরকতময় হিসেবে উল্লেখ করে থাকেন। শুক্রবার জুমার নামাজে হাজির হয়ে কোটি কোটি মুসলমান রমজানকে বিদায় সম্ভাষণ জানান। এ সময় অনেকে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের আনাচে কানাচে সব মসজিদেই যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে জুমাতুল বিদা পালিত হয়েছে।

পবিত্র রমজানের ২৫তম দিনে জুমাতুল বিদায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ রাজধানীর মসজিদগুলোতে ছিল নানা বয়সী মুসল্লিদের উপচেপড়া ভিড়। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে জুমার নামাজে অংশ নেন বিপুল সংখ্যক মুসল্লি। এ জন্য সকাল থেকে মসজিদ ও এর আশপাশের এলাকায় গড়ে তোলা হয় ব্যাপক নিরাপত্তা বলয়। রমজানের শেষ জুমায় অংশ নিতে সকাল থেকেই মুসল্লিরা মসজিদের পানে ছুটতে থাকেন। বেলা ১২টা বাজার আগেই সব মসজিদ কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। জুমার জামাত মসজিদের উত্তর ও দক্ষিণ গেট ছাড়িয়ে রাস্তায় চলে আসে। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে আজানের পর পরই মুসল্লিরা নামাজ আদায়ের জন্য মসজিদে চলে আসেন। এদিন আজানের পরপর চলতে থাকে খুতবার গুরুত্বপূর্ণ বয়ান। নামাজের পর মোনাজাতে মুসল্লিরা দু’হাত তুলে আল্লাহর কাছে পাপ থেকে মুক্তি ও আল্লাহতাআলার রহমত কামনা করে দোয়া করেন। রমজানকে বিদায় জানাতে গিয়ে অনেকে এ সময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ এবং মুসলিম উম্মাহর ঐক্য ও শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: