২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ইতিহাস বদলানোর মিশন জার্মানির


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বফুটবলের অন্যতম শক্তিশালী দল জার্মানি। ব্রাজিল বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েও প্রমাণ দিয়েছে তার। উয়েফা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপেও সবচেয়ে সফল দল তারা। কিন্তু ইতালিকে সামনে ফেলেই যেন খেই হারিয়ে ফেলে জার্মানরা। আজ্জুরিদের বিপক্ষে সর্বশেষ ৮ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে জয় মিলেনি একটিতেও। ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে আজ আবারও জার্মানির প্রতিপক্ষ ইতালি। বোর্দোতে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় শুরু হবে দুই দলের লড়াই। এবার কী ইতিহাস বদলাতে পারবে জোয়াকিম লোর দল? নাকি আবারও জিতবে ইতালি। ভক্ত-অনুরাগীদের অপেক্ষা এখন সেটাই দেখার।

প্রকৃতপক্ষে ইতালি দলটাই এমন। মাঠের পারফর্মেন্স তাদের যেমনই হোক না কেন নকআউট পর্বে ওঠতে পারলেই যে কোন দলের জন্যই বিপজ্জনক ইতালি। তাই চেনা প্রতিপক্ষকে নিয়ে এবারও ভয় পাচ্ছে জার্মানি। দলের কোচ জোয়াকিম লোও তাই ইতালিকে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা করছেন। কারণটা তিনি জানেন- প্রতিপক্ষ ইতালি মানেই তার দলের অগ্নিপরীক্ষা। তবে সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মাঠে নামার আগে জার্মানদের পিছু তাড়া করছে প্রায় অর্ধশত বছর ধরে ইতালির বিপক্ষে মুখোমুখি লড়াইয়ে বার বার ব্যর্থ হওয়ার চিত্রনাট্য। ইতালির সামনে এলেই তারা কেমন যেন কুঁকড়ে যায়। জার্মানদের সেই চিরচেনা লড়াকু ফুটবল মিইয়ে যায় আজ্জুরিদের সামনে। তবে এবার সেই ইতিহাস বদলাতে গোমেজ-মুলাররা মরিয়া। ইতালির বিপক্ষে জার্মানদের এই হতাশার পথচলা শুরুটা হয়েছিল ১৯৭০ সালে মেক্সিকো বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে। অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ওই ম্যাচে ৪-৩ গোলে হার মানে সেই সময়ের পশ্চিম জার্মানি। তারপর থেকে কোন টুর্নামেন্টের নকআউট পর্বে দুই দলের দেখা মানেই জার্মানির নিশ্চিত হার। ১৯৮২ বিশ্বকাপের ফাইনাল, ২০০৬ বিশ্বকাপের ফাইনাল এবং সর্বশেষ ইউরোর গত আসরের সেমিফাইনালেও ইতালির কাছে পরাজয় মানে জার্মানরা। এ সময়ে কোন প্রতিযোগিতায় চারবার গ্রুপ পর্বের লড়াইয়েও মুখোমুখি হয়েছে দুটি দল। কিন্তু সেখানেও কোন জয় পায়নি জার্মানি, সবকটি ম্যাচই ড্র হয়।

দীর্ঘ সময়ের এ ব্যর্থতার হতাশা এবার ঝেড়ে ফেলতে চায় চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এ প্রসঙ্গে জার্মানির গোলকিপিং কোচ আন্দ্রেয়াস কোপ বলেন, ‘আমরা জানি, ইতালির বিপক্ষে আমাদের সেরা পারফর্মেন্স করতে হবে। আর না হলে বিপদ আছে। তবে এবার আমরা প্রস্তুত, ইতিহাস নতুন করে লিখতে।’ অতীত পরিসংখ্যান বলছে, ১৯২৩ সাল থেকে ইতালির বিপক্ষে ৩৩ বার মুখোমুখি লড়াইয়ে মাত্র আটবার জিততে পেরেছে জার্মানি। নীল বাহিনীর বিপক্ষে জার্মানদের এই রেকর্ড সত্যিই বিস্ময়কর। প্রতিশোধ নিতে মরিয়া জার্মানরা অবশ্য ফ্রান্সে চলতি ইউরোয় দারুণ ফর্মে। গ্রুপ পর্বসহ প্রথম চার ম্যাচে এখনও কোন গোল খায়নি তারা। গত আসরের সেমিফাইনালে হেরে যাওয়া ম্যাচে দলে ছিলেন রক্ষণসৈনিক ম্যাটস হামেলস। পুরনো স্মৃতি কষ্টের হলেও তা নিয়ে ভাবতে রাজি নন তিনি, ‘টুর্নামেন্টে তাদের বিপক্ষে একবার মাত্র খেলেছি আমি। প্রীতি ম্যাচে আমার মনে হয় আমরা দুইবার ১-১-এ ড্র করেছি আর তারা একবার ৪-১ গোলে জিতেছে। ২০১২ থেকে সম্প্রতি অতীতে আমরা প্রমাণ করেছি যে, তাদের সঙ্গে আমরা লড়তে পারি, কিন্তু ইতালি আমাদের মতোই টুর্নামেন্টের দল। যেখানে কাউকেই আপনি এগিয়ে রাখতে পারবেন না।’ ইতালির বিপক্ষে ম্যাচে কোন চোটের সমস্যা নেই লোর দলে। যা নিঃসন্দেহেই আজকের ম্যাচে এগিয়ে রাখবে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের।

তবে জার্মানির বিপক্ষে ম্যাচের আগে চোট বেশ ভালই ভোগাচ্ছে আজ্জুরিদের। স্পেনের বিপক্ষে ম্যাচে বাঁ পায়ের ঊরুতে গুরুতর চোট পান ড্যানিয়েল ডি রোসি। এরপরই ইতালির টিমের চিকিৎসক এনরিকো কাস্তেলাচ্চি জানিয়েছেন, ‘খুব বাজেভাবে চোট পেয়েছেন রোসি। আমরা ওকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সুস্থ করে তুলার জন্য সব রকমের চেষ্টা করেছি। কিন্তু আগে থেকে কিছুই বলতে পারছি না, যে কবে ও মাঠে ফিরতে পারবে।’ শুধু ডি রোসি একাই নন, কার্ড সমস্যার জন্য দলের আরেক তারকা থিয়াগো মোত্তাকেও পাবেন না এ্যান্তনিও কন্টে। এর আগে উইঙ্গার এ্যান্তনিও কান্দ্রেভাও ঊরুর চোটের জন্য স্পেনের বিপক্ষে ম্যাচে খেলতে পারেননি। যে কারণে জার্মানির বিপক্ষে মহারণের আগে স্বভাবতই বেশ চাপের মধ্যে রয়েছেন কন্টে। তার উপর দুর্দান্ত জার্মানি এখন পর্যন্ত এবারের ইউরোতে পরাজয় দেখেনি। তাই তাদের হারিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নেয়াটা যে সহজ হবে না, সেটা ভাল করেই জানেন ৪৬ বছরের এই ইতালিয়ান কোচ। তবে খেলোয়াড়দের ইনজুরিকে অজুহাত হিসেবে মানতে নারাজ দলের তারকা মিডফিল্ডার ফ্লোরেঞ্জি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কোন ফুটবলার না থাকাটা কখনই অজুহাত হতে পারে না। আমাদের ২৩ জনুই ম্যাচ জেতানোর ক্ষমতা রাখে। ইতোমধ্যেই আমরা বেশ কিছু পাহাড়ে উঠেছি। কিন্তু এখন আমরা এভারেস্টের (জার্মানি) সামনে দাঁড়িয়ে।’ জার্মানির বিপক্ষে ম্যাচে আজ মোত্তার পরিবর্তে স্টিফানো স্তুরারোর খেলার সম্ভবান রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: