২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নাইজিরিয়ায় শব্দদূষণ কমাতে ৭০ চার্চ ২০ মসজিদ বন্ধ


নাইজিরিয়ার লাগোস প্রদেশের কর্তৃপক্ষ উচ্চমাত্রার শব্দদূষণ কমাতে ৭০টি চার্চ ও ২০টি মসজিদ বন্ধ করে দিয়েছে। উপাসনালয়ের পাশাপাশি ১০টি হোটেল, পানশালা এবং ক্লাব হাউসও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। অনুমান করা হয় দুই কোটি অধিবাসী অধ্যুষিত লাগোস নগরীতে গাড়ির হর্ন, আজান, চার্চে উচ্চৈঃস্বরে সঙ্গীত ইত্যাদির মাধ্যমে প্রায় অব্যাহতভাবে উচ্চমাত্রার শব্দ উৎপাদন হয়। প্রাদেশিক সরকার ঘোষণা দিয়েছিল আফ্রিকার বৃহত্তম এ শহরটি ২০২০ সালের মধ্যে শব্দদূষণমুক্ত করা হবে। গেল আগস্টে লাগোসের প্রাদেশিক পরিবেশ সুরক্ষা সংস্থা (এলইপিএ) অধিবাসীদের অভিযোগের ভিত্তিতে ২২টি বাণিজ্যিক ভবন বন্ধ করে দেয়। অধিবাসীদের অভিযোগ ছিল, এসব ভবন ও সংলগ্ন প্রাঙ্গণ থেকে উচ্চমাত্রার শব্দের সৃষ্টি হয়। সাম্প্রতিক এ অভিযানের সাধারণ ব্যবস্থাপক বোলা শাবি বলেন, তার সংস্থা কোন ভবনে অস্থায়ীভাবে নির্মিত কিংবা তাবু-সামিয়ানা টানিয়ে ধর্মীয় প্রার্থনা হতে দেবে না। শাবি বলেন, শব্দের মাত্রা ৩৫ শতাংশ কমেছে। কিন্তু তা এখনও যথেষ্ট নয়। তিনি বলেন, অভিযানের ধারা অব্যাহত রাখা হবে এবং আমরা নিজেরাই লক্ষ্য নির্ধারণ করেছি। আমরা ২০২০ সালের মধ্যে লাগোস শহরকে শব্দদূষণমুক্ত করতে চাই। শাবি আরও বলেন, চার্চ থেকে মসজিদগুলোই তাদের নির্দেশনা দ্রুত পালন করেছে। কারণ যখন বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে তখনই মসজিদের লোকেরা যে উচ্চমাত্রার শব্দ সৃষ্টি করত তা কমাতে তাৎক্ষণিকভাবে মাইক-স্পীকার খুলে ফেলে কিংবা উচ্চমাত্রার শব্দ সৃষ্টি করা কমিয়ে দেয়। নাইজিরিয়ার অধিবাসীরা চরমমাত্রায় ধার্মিক। লাগোসে বহুসংখ্যক চার্চ রয়েছে। শহরটিতে খ্রীস্টান ধর্মানুসারীরাই সংখ্যাগুরু। -বিবিসি