১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

নারীর হাতের শন সুতার সৌখিন সামগ্রীতে বৈদেশিক মুদ্রা


নারীর হাতের শন সুতার সৌখিন সামগ্রীতে বৈদেশিক মুদ্রা

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ শন সুতা দিয়ে সুতলির ব্যাগ, পার্টস, সাইড ব্যাগ, শপিং ব্যাগ, ব্যাচলেট, পুতুলসহ ৩৭১টি সৌখিন সামগ্রী তৈরির মাধ্যমে এসব সামগ্রী বিদেশে রপ্তানীর করে দেশে আসছে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা। আর এ কাজের মাধ্যমে দু’শতাধিক নারী জীবন সংগ্রামের মাধ্যমে আজ বেঁচে থাকার পথ খুঁজে পেয়েছেন। ঘটনাটি জেলার বিলাঞ্চল বলেখ্যাত প্রত্যন্ত আগৈলঝাড়া উপজেলার।

সূত্রমতে, বাল্য বিয়ে ও যৌতুকের কারনে অল্প বয়সে স্বামী পরিত্যক্তার খাতায় নাম লেখাতে হয়েছে মাসুদা খানম (১৮), শান্তনা রানী (১৭), রানু আক্তার (২৫) সহ শতাধিক নারীকে। এছাড়া বিধবা, দুঃস্থ্য ও অসহায় অপর শতাধিক নারীরা অভাবের সংসারে যখন চারিদিকে অন্ধকার দেখছিলেন, ঠিক তখনই ওইসব নারীদের পার্শ্বে ছায়া হয়ে দাঁড়িয়েছে একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান। কঠোর পরিশ্রমের কারনে ওইসব নারীরা প্রত্যেকেই আজ স্বাবলম্বী হয়েছেন। বাবার অভাবের সংসারে বাল্য বিয়ের পর স্বামী ও শশুড় বাড়ির লোকজনের দাবিকৃত যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় অধিকাংশ নারীকে অল্প বয়সে স্বামী পরিত্যক্তার খাতায় নাম লেখাতে হয়েছে। একদিকে বাবার অভাবের সংসার, অন্যদিকে স্বামী পরিত্যক্তা হিসেবে যখন ওইসব নারীরা সমাজের কাছে বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছেন, ঠিক তখনই তাদের পার্শ্বে এসে দাঁড়িয়েছে স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান বে-সরকারি সংস্থা মেনোনাইট সেন্টাল কমিটি (এমসিসি)। ওই প্রতিষ্ঠানের একটি প্রকল্পের মাধ্যমে শন সুতা দিয়ে বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করে (হস্তশিল্পের মাধ্যমে) একদিকে যেমন স্বামী পরিত্যক্তা ও বিধবা নারীরা খুঁজে পেয়েছেন বেঁচে থাকার পথ, তেমনি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানটি ওইসব নারীদের সু-নৈপূর্ণ হস্তশিল্পের বিভিন্ন সামগ্রী বিদেশে রপ্তানির মাধ্যমে আয় করছেন প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা। ব্যতিক্রমধর্মী এ স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানটি হচ্ছে আগৈলঝাড়া উপজেলার প্রত্যন্ত বাগধা গ্রামে। ওই শিল্প প্রতিষ্ঠানে নারীদের স্বাবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্য, জেন্ডার, কোয়ালিটি, এ্যাওয়ারনেস, পরিবেশ, চিকিৎসাসেবা প্রদানসহ বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

এছাড়াও আগৈলঝাড়ায় এমসিসির চারটি প্রজেক্ট যথাক্রমে বাগধা এন্টারপ্রাইজ, জোবারপার এন্টারপ্রাইজ, কেয়া পাম হ্যান্ডিক্রাফ্টস ও বিবর্তনে প্রতিদিন বিধবা, স্বামী পরিত্যক্তা ও অসহায় দুঃস্থ সহস্রাধীক নারীরা হস্তশিল্পের মাধ্যমে আজ স্বাবলম্ভী হয়েছেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: