১৬ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হকি লীগে পাতানো খেলার মহোৎসব


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বৃহস্পতিবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে গিয়ে দুটি ম্যাচ দেখেছেন, তারা এটা মোটেও অস্বীকার করতে পারবেন না। ম্যাচ দুটি শেষে গ্যালারি ত্যাগ করার সময় অনেক দর্শকই মন্তব্য করেন, ‘এভাবে যদি পাতানো খেলার মহোৎসব হয়, তাহলে এদেশের হকির কোনদিনও বিন্দুমাত্র উন্নতি হবে না!’

‘গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স প্রিমিয়ার ডিভিশন হকি লীগ’-এর ‘সুপার সিক্স’ পর্বে বৃহস্পতিবারের প্রথম খেলায় আবাহনী লিমিটেড ৪-২ গোলে হারায় ওয়ান্ডারার্স ক্লাবকে। দ্বিতীয় ম্যাচে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ৭-৬ গোলে হারায় বাংলাদেশ স্পোর্টিং ক্লাবকে (বিএসসি)। এর ফলে এই চার দলেরই খেলা শেষ হলো। ১৬ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে আবাহনী তৃতীয় স্থান নিশ্চিত করল। সমান ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ হলো ওয়ান্ডারার্স। এদিকে ১৬ খেলায় ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে আবাহনীর পেছনে থেকে চতুর্থ হয়ে লীগ অভিযান শেষ করল মোহামেডান। আর সমান খেলায় ১৬ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম হলো বিএসসি।

ওয়ান্ডারার্স-বিএসসির পয়েন্ট সমান হলেও গোল গড়ে এগিয়ে থাকায় পঞ্চম হয় বিএসসি। এই পঞ্চম স্থানের অধিকারী কে হবে, তাই নিয়েই সংঘটিত হয় প্রহসনের রঙ্গলীলা! প্রথম ম্যাচে আবাহনীর কাছে ৪-২ গোলে হারে ওয়ান্ডারার্স। খেলার ধরন দেখেই বুঝতে কষ্ট হয়নি, ম্যাচটি পাতানো হচ্ছে। ওয়ান্ডারার্স হারলেও তারা হিসেব করেই ২টি গোল করে। কেননা, বিএসসির গোল ছিল ৩৭। ওয়ান্ডারার্স ২ গোল করলে তাদের গোল দাঁড়ায় ৪১-এ। ফলে বিএসসির চেয়ে ৪ গোল বেশি করে আপাতত পঞ্চম হয় তারা। কিন্তু পরের ম্যাচেই বিএসসিও একই পন্থা অবলম্বন করে। তারা ম্যাচ পাতায় মোহামেডানের সঙ্গে। হারলেও তারা গোল করে ৬। ফলে লীগে তাদের গোলসংখ্যা দাঁড়ায় ৪৩, ওয়ান্ডারার্সের চেয়ে ২টি বেশি। ফলে তাদের পেছনে ফেলে ষষ্ঠ স্থানটি নিশ্চিত করে তারাই।

এই ম্যাচে মোহামেডানের কোন পাকিস্তানী খেলোয়াড় খেলেননি। এসব ছাপিয়ে হকিপ্রেমীদের আলোচনায় শুধুই আবাহনী-ওয়ান্ডারার্স এবং মোহামেডান-বিএসসির ন্যাক্কারজনক প্রহসনের ম্যাচ। এখন দেখার বিষয়, এ ব্যাপারে কি শাস্তিমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করে হকি ফেডারেশন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: