২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আজ ড্র করলেই চ্যাম্পিয়ন মেরিনার ইয়াংস


আজ ড্র করলেই চ্যাম্পিয়ন মেরিনার ইয়াংস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স প্রিমিয়ার ডিভিশন লীগ হকি’-এর পর্দা নামতে যাচ্ছে আজ। মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে বেলা ৩টায় আজ একটিই খেলা অনুষ্ঠিত হবে। এই ম্যাচেই নির্ধারিত হবে এবারের লীগের সেরা দল কোনটি। এতে মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঊষা ক্রীড়া চক্র ও ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ক্লাব। প্রিমিয়ার লীগে ঊষা এ পর্যন্ত শিরোপা জিতেছে ছয় বার।

সে তুলনায় মেরিনার একবারও লীগ শিরোপা জেতেনি। তবে দু’বার রানার্সআপ হয়েছে ২০০৬ ও ২০১০ সালে। মজার বিষয় হচ্ছেÑ প্রিমিয়ার লীগের ২০০৬ সালের পুনরাবৃত্তিই হতে যাচ্ছে এবার। ঠিক দশ বছর আগে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ঊষা এবং মেরিনার। সেবার ঊষা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। আর রানার্সআপ হয়েছিল মেরিনার। শিরোপার কাছে গিয়ে দু’বার ফিরে আসতে হয়েছে মতিঝিল পাড়ার দলটিকে। যা তাদের জন্য হতাশারই বটে। তবে এবার সেই হতাশা কাটাতে চান ক্লাব কর্মকর্তারা। কারণ আজ দু’পয়েন্ট পেছনে থাকা ঊষার সঙ্গে ড্র করলেই শিরোপা স্বাদ পাবে মেরিনার। প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার হকি লীগের শিরোপা নিজেদের করে নিতে চান। ক্লাবের জার্মান কোচ গেরহার্ড পিটারের কথায়, ‘আমি ঢাকায় এসেছি মেরিনারকে শিরোপা জেতাতেই। সেই লক্ষ্যে গত দেড় মাস কঠোর পরিশ্রম করিয়েছি ছেলেদের। আশা করি ছেলেরা আমাকে হতাশ করবে না। তাছাড়া আমাদের দলে দেশী খেলোয়াড়দের পাশাপাশি ভালমানের বিদেশীও রয়েছে। যারা দলকে ভাল ফল এনে দিতে সক্ষম। ম্যাচ জিতে শিরোপা নিয়েই ছেলেরা মাঠ ছাড়বে, এটাই আমার প্রত্যাশা।’

অন্যদিকে শিরোপা জিততে হলে আজ ম্যাচে জয় ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই নেই ঊষার। কারণ আগের ম্যাচে মোহামেডানের কাছে হেরে অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে যায় ঊষা। তবে তা মানতে নারাজ কোচ মামুন উর রশীদ, ‘আগের ম্যাচে মোহামেডানের কাছে হেরে গেছে বলেই কিন্তু শেষ ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলার জন্যই মাঠে নামবে মিমো-কৃষ্ণরা। কারণ ওই ম্যাচে জিতে গেলে কিন্তু শেষ ম্যাচে মাঠে আয়েশি ভঙ্গিতেই খেল তো তারা। এবার জয়ের জন্যই মাঠে নামবে তারা। কারণ জয় ছাড়া আমাদের কোন পথ নেই। আশা করি ছেলেরা আমাকে জয় উপহার দেবে এবং ক্লাবকে আরও একটি শিরোপা এনে দেবে।’

উভয় দলের মূল শক্তি পাকিস্তানী খেলোয়াড়রা। তাদের নৈপুণ্যেই ম্যাচের ফল নিষ্পত্তি হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। এজন্য আজকের ‘হাইভোল্টেজ’ ম্যাচে যে যথেষ্ট প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে, তা বলাই বাহুল্য। এছাড়া ম্যাচে শক্তি প্রয়োগ করে খেলা, আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত না মানা, গ-গোল করাÑ যেকোন ঘটনাই ঘটতে পারে। ফলে ম্যাচটি যে দারুণ উত্তেজনাপূর্ণ হতে যাচ্ছে, তাতে কোন সন্দেহ নেই। ১৫ ম্যাচে ঊষার পয়েন্ট ৩৮, মেরিনারের ৪০। এর আগে এই লীগের প্রথম পর্বের খেলায় ঊষা ৪-১ গোলে হারিয়েছিল মেরিনারকে। কাজেই এটা মেরিনারের কাছে যেমন প্রতিশোধের ম্যাচ, তেমনি ক্লাবের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো শিরোপা জয়ের সুবর্ণ সুযোগ। পারবে কি তারা?

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: