১৬ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

গানের বানে ঈদ


দুই প্রজন্মের ‘স্বপ্ন সমুদ্দুর’ : কুমার বিশ্বজিতের কণ্ঠে তিনটি, আরও তিনটি জয়ের কণ্ঠে; মোট ৬টি গানেই ‘স্বপ্ন সমুদ্দুর’। জয়ের অন্যতম ‘ড্রিম প্রজেক্ট’ এটা। সুর ও সঙ্গীতায়োজন নিজেরই। কথাও লিখেছেন। এ্যালবামের অন্যান্য গীতিকবিতাগুলোর জনক- মাহমুদ মানজুর, সোমেশ্বর অলি ও ফারহান হাবিব। বিশ্বজিৎ বললেন, ‘এ্যালবামটির কাজ আমার জন্য সঙ্গীতের নতুন জার্নি মনে হয়েছে। জয়ের চেষ্টা গতানুগতিক নয়।’ ‘আজব রেকর্ডস’ তো ‘স্বপ্ন সমুদ্দুর’ ছড়িয়ে দেবেই, জিপি মিউজিক থেকেও শোনা যাবে গানগুলো।

বাপ্পা-ইমরানের ‘আধেক তুমি’ : বাপ্পা মজুমদার এবং ইমরান মাহমুদুল, দুই প্রজন্মের শিল্পী, বন্দী হলেন একই শিরোনামে। মোট গান ৬টি। তিনটি করে গেয়েছেন একেকজন। ব্যানার, ‘সিএমভি’। সোমেশ্বর অলি লিখেছেন লিরিক, লিখেছেন শরীফ বিরজান। ‘মন খারাপের দেশে’, ‘হাওয়া তোমার’, ‘সন্ধ্যা তারা’, ‘এক চিলতে’, ‘ফাল্গুনি ফুল’, ‘আধেক তুমি’- গানগুলোর নাম। সুর ও সঙ্গীতের অধ্যায়টা শেষ করেছেন নাজির মাহমুদ এবং সুমন কল্যাণ।

একই মোড়কে রাজীব-তানজীব : এ্যালবামের নাম ‘উই টু’। মোট গান আটটি। চারটি করে দুজনের। আহমেদ রাজীবের ‘হয়ত’, ‘মনের টান (সঙ্গী নীলা নাজ)’, ‘যাও পাখি’; নিজেরই লেখা ও সুর করা। বাকিটা ‘আমি কী করিব’, শাহ আবদুল করিমের রিমেক। তানজীব সারোয়ার শচীন দেব বর্মণের একটি ছাড়া, বাকি গানগুলোর কথা, সুর ও সঙ্গীত নিজেই করেছেন। ‘মেহেরবান’, ‘না ফেরানো চোখে’, ‘ঘুম’, ‘লায়লা খলিফা’- এই হচ্ছে ট্রাক লিস্ট। ‘উই টু’, ইউ ফ্যাক্টরের ব্যানারে ছড়িয়ে পড়েছে বাজারে।

বেলাল-শোয়েবের ‘ভাল থাকার ইচ্ছে’ : ‘আদরের হাত’, ‘দেখলে এক নজরে’, ‘হঠাৎ তুমি’ গেয়েছেন বেলাল খান। শোয়েবের কণ্ঠে বেজে উঠেছে ‘ভাল থাকার ইচ্ছে’, ‘মন যাবে মনের বাড়ি’ এবং ‘মন খারাপের দিন’। কথাগুলো রবিউল ইসলাম জীবনের ভাবনা সঙ্গী। বেরিয়েছে তাঁর কলম কিংবা কীবোর্ড ছুঁয়ে। ৬টি গানেরই সঙ্গীতায়োজক জে কে মজলিশ, সুরকার বেলাল খান। ব্যানার, ‘সিডি চয়েস’।

কাজী শুভর একক ‘দাগা’ : পাঁচটি গানেই গড়ে উঠেছে ‘দাগা’র শরীর। ‘মনের দুয়ার’ গানে শুভসঙ্গী ন্যান্সি। ‘ময়না’য় শোনা যাবে পূজার কণ্ঠ। ‘দাগা’, ‘তোমার অভাবে’, ‘ভালবাসি বলো না’- এই হচ্ছে বাকি শিরোনাম। সঙ্গীতায়োজনে রাফি। গীতিকার জীবন এখানেও সরব। সবক’টা গানের কথার স্রষ্টা তিনি। বললেন, ‘এবারই প্রথম শুভ ভাইয়ের সঙ্গে কোন প্রজেক্ট করলাম। গানের কথায় নতুনত্ব রয়েছে। সুর-সঙ্গীতেও বৈচিত্র্য আছে।’

তারায় ভরপুর ‘মিলন হলো এতদিনে-২’ : মিলনের সুরে মিশ্র এ্যালবাম। এটি দ্বিতীয়। প্রথমটিরও একই নাম যেহেতু, পরেরটিতে বাড়তি একটা ‘২’ তো থাকতেই হবে! কণ্ঠশ্রমিক- কুমার বিশ্বজিৎ, দিলরুবা খান, ইমরান, কাজী শুভ, ন্যান্সি, জুয়েল মোর্শেদ, স্বরলিপি, আশফা, লুৎফর হাসান, সাফায়েত ও মিলন। গীতিকার- রবিউল ইসলাম জীবন, স্নেহাশীষ ঘোষ, তারেক আনন্দ, ওমর ফারুক ও ঝিনুক। সঙ্গীতায়োজক- রেজওয়ান শেখ ও এমএমপি রনি।

কনা : সঙ্গীতশিল্পী কনা প্রকাশ করছেন তার একক এ্যালবাম। সিএমভি থেকে প্রকাশিত এ্যালবামে গান থাকছে ৭টি। কাজ প্রায় শেষের দিকে। কিন্তু নাম চূড়ান্ত হয়নি। সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন ইমরান, সাজিদ সরকার, প্রীতম হাসান ও নাজির মাহমুদ।

আরফিন রুমি : ঈগল মিউজিকের ব্যানারে আরফিন রুমি প্রকাশ করছেন তিনটি গানের একটি এ্যালবাম। এতে থাকছে একটি একক ও দুটি দ্বৈতগান। দ্বৈতকণ্ঠে গেয়েছেন পড়শী ও ঐশী। গানের কথা লিখেছেন জাহিদ আকবর ও ফয়সাল রাব্বিকীন।

ন্যানসি : এবারের ঈদে নারী সঙ্গীতশিল্পীদের মধ্যে সর্বাধিক গান প্রকাশ হতে যাচ্ছে সঙ্গীতশিল্পী ন্যানসির। এক ডজনেরও বেশি গান প্রকাশের কথা রয়েছে তার। এর মধ্যে সিডি চয়েসের ব্যানারে প্রকাশ হচ্ছে দ্বৈতগানের এ্যালবাম ‘ন্যানসি উইথ স্টার’। স্নেহাশীষ ঘোষের কথা ও আয়োজনে এ্যালবামের গানগুলোর সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন ইমরান। নাম চূড়ান্ত না হওয়া এ এ্যালবামে গান থাকছে ৫টি। এ এ্যালবামের বাইরেও কাজী শুভর সঙ্গে প্রথমবারের মতো একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। ‘নাম কি তোমার’ গানটি প্রকাশ হচ্ছে সঙ্গীতার ব্যানারে। স্নেহাশীষ ঘোষের কথা ও অয়ন চাকলাদারের সুর-সঙ্গীতে ‘আমরা আমরা-৩’ এ্যালবামের একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। এর বাইরেও আরও কমপক্ষে হাফ ডজন মিশ্র এ্যালবামে এবার থাকছে এ শিল্পীর গান। এ ছাড়া সম্প্রতি প্রকাশ হওয়া একক এ্যালবাম থেকেও একটি গানের মিউজিক ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে।

তাহসান : নাটক ও গান দুই মাধ্যমই এখন তাহসানের প্রাণ। নাটকে তার প্রচুর ব্যস্ততা। দম ফেলার যেন সময় নেই। আবার গানেও শ্রোতাদের কাছে ব্যাপক চাহিদা। তাই গানের জন্যও সময় দিতে হয় এই দুই মাধ্যমের জনপ্রিয় মানুষ তাহসানকে। বৈশাখেই প্রকাশ হলো তাহসান ও ইমরানের দ্বৈতগানের এ্যালবাম ‘মন কারিগর’। সেই এ্যালবামের গানগুলো শ্রোতারা বেশ ভালভাবেই নিয়েছে। এবার ঈদে আসছে প্রীতম হাসান ফিচারিং ‘প্রথম ভালোবেসে’। সিএমভির ব্যানারে নির্মিত হচ্ছেÑ তিন গানের এই বিশেষ এ্যালবাম। এই এ্যালবামের একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তাহসান। এ্যালবামটির আয়োজন করেছেন প্রীতম হাসান। ঈদের টেলিফিল্ম ‘সেই মেয়েটা’র টাইটেল সংয়েও কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। এ ছাড়া অদিত ফিচারিং পাপন ও তাহসানের মিশ্র এ্যালবামে একটি গান রয়েছে। তাহসান জানান, ঈদের পরপরই একক এ্যালবামের কাজ শুরু করব। একক এ্যালবাম প্রকাশ হবে জিপি মিউজিকের ব্যানারে কোরবানির ঈদে।