২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হামলায় জড়িত আইএস


তুরস্কের বৃহত্তম নগরী ইস্তাম্বুলের আতার্তুক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সন্দেহভাজন জঙ্গী হামলায় অন্তত ৪১ জন নিহত ও আরও ১শ’ ৪০ জনের বেশি লোক আহত হয়েছে। কর্মকর্তারা জানান, বিমানবন্দরের টার্মিনালের প্রবেশপথে তিন হামলাকারী নির্বিচারে গুলি চালাতে শুরু করে। পুলিশ তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালালে তারা শরীরে বেঁধে রাখা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম বলেন, প্রাথমিকভাবে এই হামলার পেছনে ইসলামিক স্টেট (আইএস) জিহাদীরা রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর এএফপির।

দেশটিতে সাম্প্রতিক বোমা হামলাগুলোর সঙ্গে আইএস বা কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা জড়িত। এক বিশেষজ্ঞ জানান, মঙ্গলবারের হামলাটির ধরন দেখে মনে হচ্ছে এটি একটি বড় ধরনের সমন্বিত হামলা। আতার্তুক বিমানবন্দরটি দীর্ঘদিন ধরেই সন্ত্রাসী হামলার লক্ষ্যবস্তু হিসেবে ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। টার্মিনালটির প্রবেশপথে এক্সরে স্ক্যানার ছিল। কিন্তু গাড়ির জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা সীমিত ছিল।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোগান বলেছেন, এই হামলাকে বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে বৈশ্বিক যুদ্ধের একটি নতুন মোড় হিসেবে দেখা উচিত। তিনি আরও বলেন, ইস্তাম্বুলে বিস্ফোরিত বোমাগুলো বিশ্বের যেকোন শহরের বিমানবন্দরেই বিস্ফোরিত হতে পারত। যুক্তরাষ্ট্র তার মিত্র দেশে এই হামলাকে জঘন্য হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছে, তুরস্কের প্রতি আমাদের সমর্থন অব্যাহত থাকবে। আমেরিকা সব সময় তাদের পাশে আছে। জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক-ওয়াল্টার স্টিনমিয়ার বলেন, আমরা এই ভয়াবহ হামলার ঘটনায় নিহতদের জন্য অত্যন্ত মর্মাহত। আমরা তুরস্কের পাশে আছি। তুরস্কে হামলার কয়েক ঘণ্টা পর দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইলদিরিম বলেন, এই হামলায় অন্তত ৩৬ জন নিহত ও বহু লোক আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, আমরা আগুনের ঝলক দেখতে পাই। তিনি আরও বলেন, নিহতদের মধ্যে বিদেশীরাও থাকতে পারেন। তুরস্কের বিচারমন্ত্রী বেকির বোজদাগ এই ঘটনায় ১৪৭ জন আহত হয়েছে বলে জানান। হামলার পর বিমানবন্দরে আসা ও বিমানবন্দর থেকে ছেড়ে যাওয়ার সব ফ্লাইট স্থগিত করা হয়েছে। মার্কিন কেন্দ্রীয় বিমান প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্র ও ইস্তাম্বুুলের মধ্যকার সব ফ্লাইট স্থগিত করেছে। হামলার পর হতাহতদের দ্রুত হাসপাতালে পাঠাতে ঘটনাস্থলে ট্যাক্সি ব্যবহার করা হয়। বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী চার্লস মাইকেল বলেন, আমরা ইস্তাম্বুুল বিমানবন্দরে হামলায় নিহতদের জন্য প্রাথর্না করছি। আমরা এই নির্মম সহিংস হামলার নিন্দা জানাই। তিনি বর্তমানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য ব্রাসেলসে অবস্থান করছেন। মার্চ মাসে বেলজিয়ামের রাজধানীতেও ভয়াবহ বোমা হামলা চালানো হয়।

কুর্দি বিদ্রোহী হামলায় দুই সেনা নিহত ॥ তুরস্কের দিয়ারবাকির প্রদেশে কুর্দি বিদ্রোহীদের দুটি হামলায় দুই তুর্কি সেনা নিহত ও অপর তিনজন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হামলা দুটি চালানো হয় বলে দেশটির সামরিক বাহিনী জানিয়েছে। দিয়ারবাকিরের লাইস জেলায় কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) সদস্যরা একটি হামলা চালায়। এতে চার সেনা আহত হন। পরবর্তী সময়ে আহত সেনাদের মধ্যে একজন হাসপাতালে মারা যান বলে এক বিবৃতিতে বুধবার সশস্ত্র বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, দিয়ারবাকিরের মিসমিল জেলায় পিকেকে বিদ্রোহীদের গুলিতে অপর একজন সেনা নিহত হয়েছেন। নিজের বাড়ির সামনে গাড়ি থেকে নামার পর তাকে গুলি করা হয়। ১৯৮৪ সালে তুরস্ক ও তার পশ্চিমা মিত্ররা পিকেকে-কে সন্ত্রাসীগোষ্ঠী হিসেবে ঘোষণা করার পর থেকে এ পর্যন্ত গোষ্ঠীটির সঙ্গে সংঘর্ষে ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন।