মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নির্বিঘ্নি হোক ঘরে ফেরা

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৬

শ্যামল চৌধুরী

উৎসবের দেশ বাংলাদেশ। বারো মাসে তেরো পার্বণের দেশে একটা না একটা উৎসব লেগেই আছে। এসব উৎসবাদীর মধ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের একটি উৎসব হলো পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। চলছে সিয়াম সাধনার মাস মাহে রমজান। দেখতে দেখতে এগিয়ে আসছে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। ঈদ মানেই খুশি ঈদ মানেই আনন্দ। আর এ আনন্দকে ভাগাভাগি করে পালনের মজাই আলাদা। তাইতো নাড়ির টানে বাড়ির পানে মানুষ যাবে ঘরের কোণে। সারা বছর ধরে মানুষ অপেক্ষা করতে থাকে এ উৎসবের মাহেন্দ্রক্ষণের জন্য। প্রিয়জনের সান্নিধ্যে ঈদ উৎসব পালন করার জন্য মানুষ স্বভাবতই ব্যাকুল হয়। তাই যত বিড়ম্বনাই হোক না কেন ঈদে বাড়ি যেতেই হবে। জমে উঠছে ঈদের বাজার। এখন শুধুই ক্ষণ গণনার পালা।

ফিবছর ঈদ উৎসব উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের বিড়ম্বনার অন্ত থাকে না। যেমন : টিকিট প্রাপ্তি, যানজট, সড়ক-মহাসড়কে খানাখন্দ, ভাঙাচুরা রাস্তা ইত্যাদি ঘরমুখো মানুষের জন্য দুর্ভোগ হয়ে দেখা দেয়। ঈদ উপলক্ষে বাড়ির পথ পাড়ি দিতে গিয়ে নানা ঝক্কি-ঝামেলা পোহাতে হয় ঘরমুখো মানুষজনের। এ সময় ট্রেনে বাসে লঞ্চে ভিড় বেড়ে যায়। ভয় থাকে দুর্ঘটনার। আগেভাগে এসব অসুবিধাগুলো দূর না হলে এবারও এসব ভোগান্তির শিকার হবে বাড়ি ফেরা মানুষজন। এখন থেকেই শুরু করতে হবে সড়ক মহাসড়কের প্রয়োজনীয় সংস্কার। দুর্ঘটনা এড়াতে নিতে হবে কার্যকরী পদক্ষেপ। এতে যাত্রী সাধারণেরও সচেতন হতে হবে। কোন অবস্থাতেই অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে যানবাহনে চড়া উচিত হবে না। সময় থাকতে ঈদে যাতায়াত দুর্ভোগ দূর করতে সচেষ্ট হতে হবে। বিড়ম্বনামুক্ত করতে হবে ঈদ উপলক্ষে আসা-যাওয়া। ঈদ হোক সকলের। ঈদ-উল-ফিতর নির্মল আনন্দে ভরে উঠুক প্রতিটি অঙ্গন।

মোহনগঞ্জ, নেত্রকোনা থেকে

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৬

৩০/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: