মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৮ আগস্ট ২০১৭, ৩ ভাদ্র ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

সংসদে অর্থবিল পাস

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৬, ০৪:২১ পি. এম.

বিশেষ প্রতিনিধি॥ কর ও শুল্কখাতে কয়েকটি পরিবর্তনের মধ্যদিয়ে বুধবার জাতীয় সংসদের অর্থবিল ২০১৬ পাস হয়েছে। এতে তৈরি পোশাকসহ সব ধরনের পণ্যে রপ্তানিমূল্যের ওপর প্রস্তাবিত ১.৫ শতাংশ উৎসে কর কমিয়ে শূন্য দশমিক ৭ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে তথ্য-প্রযুক্তি সেবায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানের স্থান ও স্থাপনা ভাড়ার ওপর আরোপিত ১৫ শতাংশ ভ্যাট পুরোপুরি অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আরও কয়েকটি সংশোধনীর এনে পাস করা হয়েছে অর্থবিল-২০১৬।

আগামী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ দুটি বিষয়সহ কয়েকটি কর প্রস্তাবে সংশোধনী আনার জন্য অর্থমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান। প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধকে অনুশাসন মেনে নিয়ে অর্থমন্ত্রী ওই প্রস্তাবগুলো গ্রহণ করেন এবং অর্থবিলে অন্তভূক্ত করার ঘোষণা দেন। ফলে সংশোধিত আকারে অর্থ বিল ২০১৬ সংসদের পাস হয়।

বুধবার সকালে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের অধিবেশন শুরু হয়। প্রশ্ন উত্তর টেলিবে উপস্থাপনের পর বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নেন বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদ। বিরোধী নেত্রীর বক্তব্যের পর বাজেটের ওপর আলোচনা করে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রায় এক ঘন্টা বক্তব্যের পও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বাজেটের ওপর সমাপনী বক্তৃতা করেন। এরমধ্য দিয়ে বাজেটের ওপর প্রায় এক মাস ধরা চলা আলোচনার সমাপ্তি ঘটে।

আলোচনা শেষে অর্থবিল ২০১৬ পাসের প্রক্রিয়া শুরু হয়। এ সময় সংবদ কার্য পরিচালনা করে ন ডেপুটি স্পীকার ফজলে রাব্বী মিয়া। প্রথমেই বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্যদের অর্থ বিলের জনমত যাচাইয়ের প্রস্তাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। এরপর বিরোধী ও সরকারী দলের কয়েক জন সদস্য অর্থবিলের ওপর সংশোধনী আনেন। বিরোধী দলের সংশোধনীগুলো নাকচ হয়ে গেলেও সরকারী দলের সদস্যের আনা সংশোধনীগুলো অর্থমন্ত্রী গ্রহণ করেন।

সংশোধনী প্রক্রিয়া শেষ হলে ডেপুটি স্পীকার বিলটি বিবেচনার জন্য সংসদের উপস্থাপন করতে অর্থমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানান। অর্থমন্ত্রী অপরাহ্ন ২টা ২৬ মিনিটে বিলটি সংসদের বিবেচনার জন্য উপস্থাপন করেন। জাতীয সংসদ অর্থ বিলটি বিবেচনা করার পর অর্থমন্ত্রী বিলটি পাসের জন্য প্রস্তাব করেন। ফলে সংশোধিত আকারে অর্থবিল ২০১৬ জাতীয় সংসদের পাস হয়। এ সময় সংসদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদসহ সরকার, বিরোধী দলীয় সদস্য এবং স্বতন্ত্র সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২ জুন জাতীয় সংসদে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটের সঙ্গে এই অর্থবিল উত্থাপন করেছিলেন অর্থমন্ত্রী মুহিত। বৃহস্পতিবার পাস হবে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট। আগামী ১ জুলাই নতুন অর্থবছরের প্রথম দিন থেকে এই বাজেট কার্যকর হবে। গত ২ জুন অর্থমন্ত্রী সংসদে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জন্য তিন লাখ ৪৯ হাজার কোটি টাকার এই বাজেট পেশ করেন।

##

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৬, ০৪:২১ পি. এম.

২৯/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: