মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

‘ভবিষ্যতে এরশাদ সাহেব আর ছলনা করবেন না’

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৬, ০৪:০৩ পি. এম.

সংসদ রিপোর্টার ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পর বুধবার জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদকে টিপ্পনি কাটতে ছাড়েননি। বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদের পাঠকৃত একটি কবিতার উদ্ধৃতি দিয়ে অধিবেশনে থাকা জাপা চেয়ারম্যানকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমি আশা করি এরশাদ সাহেব ভবিষ্যতে আর কোনো ছলনা করবেন না।’ প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর সরকার ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা দীর্ঘ সময় হাসি ঠাট্টায় মেতে ওঠেন।

এরশাদকে নিয়ে রাজনীতিবিদদের হাসিঠাট্টার অন্ত নেই। তাঁর ঘন ঘন অবস্থান বদল, এখনি সরকারে, আবার কিছু সময় পরে মত পরিবর্তনের জন্য ইতোমধ্যে রাজনৈতিক অঙ্গনে সাবেক এই স্বৈরশাসকের নাম ‘আনপ্রেডিক্টেবল পলিটিশিয়ান ( যে রাজনীতিবিদ সম্পর্কে আগে থেকে ধারণা করা যায় না)।’ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমও বিষয়টি তুলে ধরেন। এরশাদকে লক্ষ্য করে তিনি বলেন, ‘উনি (এরশাদ) ভাল বক্তব্য রাখেন। কিন্তু তাঁর একটাই সমস্যা তিনি ঘন ঘন মত বদলান আর নায়িকা বদলান।

বুধবার বাজেটের ওপর সমাপনি বক্তব্যে রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এরশাদকে নিয়ে মজা করতে ভোলেননি। সংসদের শুরুতে রীতি অনুযায়ী বিরোধী দলের নেতা বাজেটের ওপর বক্তব্যে রাখেন। সে সময় তিনি বেশ কয়েকটি কবিতা পাঠ করেন। তাঁর কবিতার সূত্র ধরে প্রধানমন্ত্রী বাজেট আলোচনার সময় বলেন, “মাননীয় বিরোধী দলের নেতা অনেকগুলো কবিতা বলেছেন। সেজন্য তাঁকে আমি সাধুবাদ জানাই। শুধু একটি কবিতার ব্যাপারে আমি একটু কথা বলতে চাই।

প্রধানমন্ত্রী হাস্যেজ্জ্বল কন্ঠে বলেন, বিরোধী দলের নেতা কবিতা পাঠ করতে গিয়ে বলেছেন- “বুঝিগো আমি বুঝিগো এ ছলনা, বি তুমি বলতি চাও আমি বুঝি না।” এটা বোধ হয় উনি (রওশন) ওনার বাম দিকে যিনি বসে আছেন (এরশাদ), তাঁর দিকে তাকিয়ে বললে ভাল হতো। প্রথমে বুঝতে পারিনি উনি কাকে বলছেন। আমি ভাবলাম এরশাদ সাহেবকে উদ্দেশ্যে করে বলেছেন। আমি আশা করি, এরশাদ সাহেব ভবিষ্যতে আর কোন ছলনা করবেন না।

প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের পর হাসি ঠাট্টায় মেতে ওঠে গোটা সংসদ। সংসদে উপস্থিত সরকার ও বিরোধী দলের অধিকাংশ সংসদ সদস্যই দীর্ঘ সময় টেবিল চাপড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যে সমর্থন জানান। বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরাও এ সময় হাসিতে মেতে ওঠেন। সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ এবং তাঁর স্ত্রী বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদও এ সময় তাঁদের হাসি চাপিয়ে রাখতে পারেননি।

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৬, ০৪:০৩ পি. এম.

২৯/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: