২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আবাহনীকে হারিয়ে শীর্ষে মেরিনার


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স প্রিমিয়ার ডিভিশন হকি লীগ’-এ সোমবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ‘সুপার সিক্স’ পর্বে জয় কুড়িয়ে নিয়েছে ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ক্লাব এবং মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মেরিনার ২-১ গোলে হারায় ঢাকা আবাহনী লিমিটেডকে। আর মোহামেডান ৫-১ গোলে জেতে ওয়ান্ডারার্সের বিপক্ষে।

আবাহনী জিতলে তাদের রানার্সআপ হওয়ার একটা সুযোগ ছিল। আর কমপক্ষে ড্র করলে মেরিনার টিকে থাকত শিরোপা লড়াইয়ে। আর এখন তো জিতেই গেল তারা। নিজেদের ১৫ ম্যাচে ত্রয়োদশ জয়ে মেরিনার্সের পয়েন্ট গিয়ে দাঁড়াল ৪০-এ। ফলে ১৪ ম্যাচে ৩৮ পয়েন্ট সংগ্রহকারী ঊষা ক্রীড়া চক্রকে টপকে শীর্ষে চলে গেল তারা। পক্ষান্তরে ১৪ ম্যাচে এটা আবাহনীর দ্বিতীয় হার। পয়েন্ট ৩০। অবস্থান আগের মতোইÑ তৃতীয়। ওদিকে রেস থেকে অনেক আগেই ছিটকে পড়েছে মোহামেডান। ১৫ ম্যাচে ম্যাচে নবম জয়ে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান চতুর্থ। আর ১৫ ম্যাচে সপ্তম হারে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে আগের মতোই ছয় দলের মধ্যে তলানিতে আছে ওয়ান্ডারার্স।

আবাহনী-মেরিনার ম্যাচের প্রথমার্ধের স্কোরলাইন ছিল ১-১। মেরিনারের ওয়াকাস শরীফ ও টমাস ১টি করে গোল করেন। আবাহনীর একমাত্র গোলটি করেন শাফকাত রাসুল। মোহামেডান-ওয়ান্ডারার্স ম্যাচের প্রথমার্ধে মোহাডোন ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল। বিজয়ী দলের অধিনায়ক-ফরোয়ার্ড রাসেল মাহমুদ জিমি একাই করেন হ্যাটট্রিকসহ চার গোল। অপর গোলটি করেন তাসভার আব্বাস। বিজিত দলের একমাত্র গোলটি করেন রকিবুল হাসান।

চ্যাম্পিয়ন টাঙ্গাইল স্কুল এ্যান্ড কলেজ

জাতীয় স্কুল ক্রিকেটে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রাইম ব্যাংক ইয়াং টাইগার্স জাতীয় স্কুল ক্রিকেট টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে টাঙ্গাইল স্কুল এ্যান্ড কলেজ। সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে দিনাজপুর হাই স্কুলকে ৩ উইকেটে পরাজিত করে শিরোপা জেতে তারা।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪৭.৪ ওভারে ১৩৩ রানে অলআউট হয় দিনাজপুর হাই স্কুল। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩২ রান করেন সজিব কামাল। ২৮ রান আসে মাইনুল ইসলামের ব্যাট থেকে। সুমন মিয়া ও রিফাত হাসান তিনটি করে উইকেট নেন। ১৩৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে ৯৫ রানে সাত উইকেট হারিয়ে বসে টাঙ্গাইল স্কুল এ্যান্ড কলেজ। সেখান থেকে রিফাত হাসান ও অন্তর ইসলাম অবিচ্ছিন্ন ৪২ রানের জুটি গড়ে ইনিংসের ১১ বল বাকি থাকতে জয় নিশ্চিত করেন। রিফাত ৪৪ ও অন্তর ইসলাম ২৪ রানে অপরাজিত থাকেন। রেজওয়ান হোসেন ও রূপম নন্দী দুটি করে উইকেট নেন। অলরাউন্ড নৈপুন্য দেখিয়ে ম্যান অব দ্য ফাইনাল হয়েছেন রিফাত। পুরস্কার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন দলকে ট্রফি ও ৫০ হাজার টাকার স্মারক চেক প্রদান করা হয়। রানার্সআপ দল ট্রফির সঙ্গে পেয়েছে ২৫ হাজার টাকার স্মারক চেক। প্রধান অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সহ-সভাপতি মাহবুবুল আনাম ও বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রাইম ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ কামাল খান চৌধুরী উপস্থিত থেকে খেলোয়াড়দের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন।

এবারের টুর্নামেন্টে অংশ নেয় দেশের ৫৩৪ স্কুলের ১০, ৮০০ ক্রিকেটার। চার মাসে দেশের বিভিন্ন ভেন্যুতে সর্বমোট ৯৬৫ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়।