২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ব্রেক্সিটের ধকল কাটিয়ে উঠেছে এশিয়ার পুঁজিবাজার


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ব্রেক্সিট ভোটের পর ব্রিটেনের শেয়ারমার্কেট সোমবারও অস্থিরতায় দিন পার করছে। এদিকে রেকর্ড লোকসানের পর ডলারের বিপরীতে পাউন্ডের আরও দরপতন হয়েছে। সোমবার লেনদেনের শুরুতে লন্ডনের বাজারে এফটিএসই ১০০ সূচক ০.৭ শতাংশীয় পয়েন্ট পড়ে ৬ হাজার ৯৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। তবে জাপান, চীন, ভারতের মতো দেশগুলোর পুঁজিবাজার গত দুই দিনের পতনের ধাক্কা কিছুটা সামলে উঠেছে।

সোমবারে এশিয়ার পুঁজিবাজারে জাপানের নিক্কেই সূচক ১.৬৮ শতাংশ, সাংহাই সূচক ২.২৭ শতাংশ, ভারতের সেনসেক্স ০.০২ শতাংশ, হংকংয়ের প্রধান সূচক ০.২০ শতাংশ, থাইলান্ডের সূচক বেড়েছে ০.৭৯ শতাংশ। তবে পাকিস্তানের সূচক আগের দিনের চেয়ে ০.৯৪ শতাংশ কমেছে।

গণভোটে ব্রিটেনের ফলাফল চূড়ান্ত হওয়ার পর শুক্রবার একপর্যায়ে সূচক ৮ শতাংশেরও বেশি পড়ে যায়। তবে লেনদেনের শেষপর্যায়ে তা কিছুটা কাটিয়ে ৩.২% পতনে শেষ হয়। এদিন স্টারলিং পাউন্ড বিক্রি হয় ১.৩৪৬ ডলার। শুক্রবার এর মান ছিল ১.৩২২ ডলার। বাজারে এদিন সবচেয়ে বেশি নজর ছিল ব্রিটিশ কোম্পানিগুলোর দিকে।

লেনদেনের আগে ব্রিটেনের চ্যান্সেলর জর্জ অবসর্ন এক বিবৃতিতে জানান, ভবিষ্যতে কী ঘটতে যাচ্ছে তার জন্য ব্রিটেন প্রস্তুত আছে। এ মুহূর্তে কোন জরুরী বাজেট ঘোষণা হবে না ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, ব্রিটেনের অর্থনীতিতে এখন সামঞ্জস্যতা দরকার। তবে এ ধরনের কোন পদক্ষেপ নেয়ার আগে নতুন প্রধানমন্ত্রীর জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

ইয়েন নিয়ে উদ্বেগ ॥ এদিকে বাজারে স্থিতিশীলতা আনতে পদক্ষেপ নিচ্ছেন এশিয়ার প্রধানরা। জরুরী বৈঠকের পর জাপানের অর্থমন্ত্রী তারো আসোকে প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মুদ্রাবাজারে স্থিতিশীলতা আনতে প্রয়োজনে যেকোন পদক্ষেপ নিতে হবে। আর্থিক বাজারে ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তা বিরাজ করছে বলে জানান তিনি। জাপানের মুদ্রা ইয়েনের মান বেড়ে যাওয়া দেশটির সরকারের জন্য উদ্বেগের বিষয়। কারণ এ প্রবণতা বিশ্ববাজারে দেশটির রফতানিকে কম প্রতিযোগী করে তুলছে।

শুক্রবার জাপানের বেঞ্চমার্ক শেয়ার সূচক, নিক্কেই ২২৫ প্রায় ৮ শতাংশ পতনের পর সোমবার লেনদেনের শুরুতে আরও ১.৭ শতাংশ পতন হয়। তবে লেনদেনের শেষ পর্যায়ে সূচক ২.৩৯ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। চীনের মুদ্রা ইউয়ানের এদিন ০.৯ শতাংশ পতন হয়েছে; যা গত বছরের আগস্টের পর সর্বোচ্চ।