২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নাটোরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত কলেজ ছাত্রের মৃত্যু


নিজস্ব সংবাদদাতা, নাটোর ॥ জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে নাটোর শহরতলীর তেবাড়িয়া এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলায় মিঠু হোসেন (১৮) নামের এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। রোববার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজশাহীর একটি বেসরকারী হাসপাতলে তার মৃত্যু হয়। নিহত মিঠু হোসেন তেবাড়িয়া মধ্যপাড়া এলাকার আব্দুস ছামাদের ছেলে। এঘটনায় নাটোর সদর থানায় ৬জনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীরা জানায়, পুকুরের মালিকানার বিরোধের জের ধরে গত মঙ্গলবার (২১ জুন) দুপুরে তেবাড়িয়া মধ্যপাড়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় মিঠু হোসেন (১৮) আব্দুস ছামাদ (৫৫) ও মরিয়ম বেগম (৪৫) আহত হন। প্রথমে তাদের নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মিঠুকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাপসাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে ওই দিনই তাকে রাজশাহীর আমানা হাসপাতালে ভর্তি করে মাথায় অ¯ো¿পাচার করার পরে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা (আইসিইউ) কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। অবশেষে রবিবার রাতে সেখানে তার মৃত্যু হয়। সোমবার সকালে তার মৃতদেহ নাটোরে নিয়ে আসা হয়। সকল ৯টায় ময়না তদন্তের জন্য লাশ নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

আহত আব্দুস ছামাদ আমানা হাসপাতালের চিকিৎসক মমতাজুল হকের বরাত দিয়ে জানান, প্রতিপক্ষের রডের আঘাতে মিঠুর মাথার অভ্যন্তরে রক্তক্ষরণ হওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে। তিনি আরও জানান, তার ছেলে মিঠু টিএমএসএস কলেজে দ্বাদশবর্ষের ছাত্র। ঘটনার আগে থেকে প্রতিপক্ষরা তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল।

এ ঘটনায় আব্দুস ছামাদ বাদী হয়ে রবিবার রাতে সদর থানায় প্রতিপক্ষ শিমুল হোসেন, সোহাগ আলী ও লিখন আলীসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তবে পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, আসামীরা ঘটনার পর থেকে পলাতক আছে। তাদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: