১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

৬৯ বছর পর...


৬৯ বছর পর...

৬৯ বছরের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবশেষে অবসান। বাসের আওয়াজে সরগরম হলো উত্তরাখণ্ডের চারমোলি জেলার শিলপাতা গ্রাম। স্বাধীনতার পর থেকে এখনও পর্যন্ত এই গ্রামে না ছিল কোন পাকা রাস্তা, না বাস সার্ভিস। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনা হোক, বা কারোর অসুখে-বিসুখে দীর্ঘ পথ পায়ে হাঁটা ছাড়া কোন গতি ছিল না এখানকার বাসিন্দাদের। অবশেষে এতদিনে প্রথমবার এই গ্রামে বাস চলতে দেখে উচ্ছ্বসিত গ্রামবাসী।

শিলপাতা গ্রাম থেকে আদি বাদ্রির হেড কোয়ার্টার পর্যন্ত ২১ কিলোমিটার পাকা রাস্তা তৈরি হয়েছে। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর গ্রাম সড়ক যোজনা প্রকল্পে নির্মিত সেই রাস্তা ধরেই সম্প্রতি শিলপাতা গ্রামে এসে পৌঁছায় উত্তরাখণ্ড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন পরিচালিত একটি বাস। বাস সার্ভিস চালুতে উচ্ছ্বসিত গ্রামবাসী। শুধু কি তাই? প্ল্যাকার্ড, ব্যানার নিয়ে বাসকে অভিনন্দন জানাতে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ করে প্রবীণদের আনন্দের সীমা নেই। এরকমই একজন কলম সিং বিশত। তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর থেকেই আমাদের স্বপ্ন ছিল এই গ্রামে একদিন পাকা রাস্তা হবে, গাড়ি চলবে। অন্তত বেঁচে থাকতে থাকতে এই দৃশ্য দেখে যেতে পারলাম। যে কষ্ট আমরা করেছি, নতুন প্রজন্মকে তা করতে হবে না, এটা ভেবেই ভাল লাগছে।

তবে সরকারী গাফিলতিতেই যে এই গ্রামে রাস্তা তৈরি হতে এত সময় লাগল, তা জানাতে ভুলছেন না গ্রামবাসীরা। আশপাশের সব গ্রামে পাকা রাস্তা তৈরি হয়ে গেলেও শিলপাতা এতদিন ছিল উপেক্ষিত। তবে যে ইঞ্জিনিয়ার এই রাস্তা তৈরির দায়িত্বে ছিলেন সেই বিএস রাওয়াত জানাচ্ছেন যে এখানে মাটির যা প্রকৃতি তাতে রাস্তা তৈরি করা ছিল খুবই কঠিন কাজ। বরাদ্দ পাওয়ার পর মাত্র ১৮ মাসের মধ্যে এই সড়ক প্রস্তুত হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এনডিটিভি ও ওয়েবসাইট অবলম্বনে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: