২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

উদীচী স্মরণে জ্ঞানতাপস সরদার ফজলুল করিম


স্টাফ রিপোর্টার ॥ আমৃত্যু প্রগতির পথে চালিত করেছেন নিজেকে। শিক্ষার সঙ্গে মানবতাবোধের দর্শনকে বেছে নিয়েছিলেন জীবনের পাথেয় হিসেবে। শুভ ও কল্যাণময় রাষ্ট্র গড়তে সেই দর্শন চর্চা ছড়িয়ে লক্ষ্যে নিজেকে করেছিলেন উৎসর্গ। সাম্যের সমাজ গড়ার অঙ্গীকারে ছিলেন অবিচল। পাশাপাশি মুক্তচিন্তা ও ভাবনার প্রকাশে রেখেছেন আলোকবর্তিকার ভূমিকা। এভাবেই সমাজ ও রাষ্ট্রের কল্যাণে নিজেকে নিবেদিত করেছিলেন অধ্যাপক সরদার ফজলুল করিম। রবিবার বিকেলে এই জ্ঞানতাপস, দার্শনিক ও শিক্ষাবিদকে স্মরণ করল ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী। তাঁর দ্বিতীয় প্রয়াণবার্ষিকী উপলক্ষে এই স্মরণানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তোপখানা রোডে উদীচী কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ আলোচনা সভা ও স্মরণানুষ্ঠানের আয়োজন করে সংগঠনের ঢাকা মহানগর সংসদ।

স্মরণ সভায় বক্তারা বলেন, ইতিহাসের প্রতিটি বাঁকে বাঁকে সরদার ফজলুল করিমের অসামান্য অবদান রয়েছে। চল্লিশের দশক থেকে শুরু করে ভাষা আন্দোলন, বাঙালীর স্বাধীনতা সংগ্রাম, বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনসহ বাংলা ও বাঙালী জাতির ইতিহাসে যতগুলো গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় রয়েছে তার প্রতিটিতেই সরদার ফজলুল করিম অসামান্য অবদান রেখেছেন।

আলোচনা সভায় বক্তারা আরও বলেন, সৎ, নিষ্ঠাবান, সম্পূর্ণ একজন মানুষ ছিলেন সরদার ফজলুল করিম। প্রগতিশীল চিন্তা-চেতনার মাধ্যমে মানবতাবোধের দর্শন চর্চা করে সমাজকে নিখুঁত করে তোলার জন্য যেসব মানুষ জীবন উৎসর্গ করেছেন সরদার ফজলুল করিম তাদের একজন। আমাদের উচিত এমন মহান মানুষদের আরও বেশি করে অনুসরণ করা।

উদীচী ঢাকা মহানগর সংসদের সহ-সভাপতি অমিত রঞ্জন দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় সরদার ফজলুল করিমের জীবন ও দর্শন নিয়ে আলোচনা করেন উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি শিবানী ভট্টাচার্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এম এম আকাশ। এছাড়াও আলোচনায় অংশ নেন উদীচী ঢাকা মহানগর সংসদের সাধারণ সম্পাদক ইকবালুল হক খান ইকবাল। উপস্থিত ছিলেন উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদ এবং ঢাকা মহানগর সংসদের নেতা-কর্মীরা ।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: