২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ২ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ব্রেক্সিটের ঢেউ ব্রিটিশ লেবার পার্টিতে ভাঙ্গন, ৬ ছায়ামন্ত্রীর পদত্যাগ


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ব্রিটেনে সদ্য অনুষ্ঠিত গণভোটের (ব্রেক্সিট) পর থেকেই দেশটির অভ্যন্তরীণ রাজনীতি তোলপাড় চলছে। এরই অংশ হিসেবে দেশটির বিরোধী দল লেবার পার্টিতে ভাঙ্গনের সুর বেজে উঠেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দলটির অন্তত ছয়জন ছায়ামন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন। আরও কয়েকজন পদত্যাগের প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে খবরে উল্লেখ করা হয়েছে। লেবার পার্টির ছায়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি বেনকে বরখাস্তের প্রতিবাদে দলটির এসব নেতা এই সিদ্ধান্ত নেন।

খবর বিবিসি অনলাইন ও ওয়েবসাইটের। ইইউতে থাকার পক্ষ নেয়া প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন পদত্যাগের ঘোষণা দেয়ার পর লেবার নেতা জেরেমি করবিনেরও সরে যাওয়ার দাবিতে সরব তার ছায়া মন্ত্রিসভার অর্ধেক সদস্য।

করবিন নেতৃত্ব থেকে সরে না দাঁড়ালে তারা পদত্যাগের হুমকিও দেন। ঐতিহাসিক এক গণভোটে বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের ইইউতে থাকা না থাকার বিষয়ে রায় দেয় যুক্তরাজ্যবাসী। এতে ৫২ শতাংশ ভোট পড়ে ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে এবং ৪৮ শতাংশ মানুষ ইইউতে থাকার পক্ষে ভোট দেয়। ভোটের ফল প্রকাশের পর প্রধানমন্ত্রিত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেন ক্যামেরন। ক্যামেরনের কনজারভেটিভ পার্টির একটি অংশ ইইউ ছাড়ার পক্ষে অবস্থান নিলেও লেবার পাটির অধিকাংশই ছিলেন ইইউতে থেকে যাওয়ার পক্ষে। লেবার পার্টিতে অস্থিরতা দেখা দেয় ছায়া মন্ত্রিসভার পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি বেনকে বরখাস্ত করার পর। এর কয়েক ঘণ্টা পর ওই মন্ত্রিসভার স্বাস্থ্যমন্ত্রী হেইডি এ্যালেক্সান্ডারও পদত্যাগের ঘোষণা দেন। গণভোটে জয়ের ব্যাপারে জোরালো কোন ভূমিকা রাখতে পারেননি- এমন অভিযোগে দলে অনাস্থার মুখে পড়েছেন করবিন। লেবারদের হয়ে প্রধানমন্ত্রিত্ব করা টনি ব্লেয়ারও বর্তমান নেতৃত্বের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তবে করবিনের ঘনিষ্ঠরা বলছেন, যাই ঘটুক না কেন, নেতৃত্বে টিকে থাকতে তিনি আশাবাদী। ছায়া মন্ত্রিসভার এক সদস্য বলেন, ‘আমি মনে করি, নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে এবং জেরেমি তাতে জয়ীও হবেন। কিন্তু পুরো বিষয়টিই এক ধরনের বিশৃঙ্খলা। হিলারি বেনকে বহিষ্কারের কারণ সম্পর্কে লেবার পার্টির একটি সূত্র জানিয়েছে, করবিনের নেতৃত্বে ‘অনাস্থা’ জানিয়েছিলেন ছায়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বেনের নিজের কথাও তাই। তিনি বলেন, ‘আমি করবিনের নেতৃত্ব এবং ভোটে তার জয়ের ব্যাপারে আমি সন্দিহান ছিলাম। বিষয়টি জানাতে নেতাকে ফোন করেছিলেন জানিয়ে তিনি বলেন, দলকে নেতৃত্ব দেয়ার ব্যাপারে তার সক্ষমতার ওপর আমি আস্থা হারিয়েছি এটা জানিয়েছি এবং এরপরই তিনি আমাকে বরখাস্ত করেন। ‘অনাস্থা’ উপেক্ষা করে করবিন নেতৃত্বে থাকার চেষ্টা ছায়া মন্ত্রিসভা থেকে সদস্যদের পদত্যাগের ব্যাপারে হিলারি বেন উৎসাহ জুগিয়ে যাচ্ছেন বলে খবর রয়েছে।