মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

তরুণ প্রজন্মকে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে ॥ মানববন্ধনে বক্তারা

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৬, ০৬:২৫ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের নেতৃবৃন্দ বলেছেন, নতুন প্রজন্মকে ভুল শিক্ষা দিয়ে বিপথগামী করা হচ্ছে। স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবির চক্রের সহযোগিতায় বিএনপি দেশে জঙ্গিবাদ ও অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির অপচেষ্টা করছে। তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে এই জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। মাদারীপুরে কলেজশিক্ষক হত্যাচেষ্টায় জড়িত আর কোনো ফাইজুল্লাহ ফাহিম যেন জঙ্গি হয়ে না উঠতে পারে, সে জন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে।

রবিবার দুপুরে রাজধানীর শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে পরিষদের নেতারা এ আহ্বান জানান। গুপ্তহত্যা, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সাবেক বিচারপতি এফ এম মেজবাহউদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিষদের মহাসচিব ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ কামরুল হাসান। তিনি বলেন, লাগাতার সন্ত্রাস, পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যার অসুস্থ রাজনীতির পর এবার করা হচ্ছে গুপ্ত হত্যা, জঙ্গিবাদী কার্যক্রম। এর বিরুদ্ধে জাতীয় জাগরণ এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সব অসাম্প্রদায়িক ও গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, ধর্মের নামে, ইসলামের নামে অমানবিকতা, অধর্ম করা হচ্ছে। অথচ ইসলাম হচ্ছে মানবতার ধর্ম, শান্তির ধর্ম। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধেও ইসলামের নামে বর্বরতা ও অমানবিকতার ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশকে এগিয়ে নিতে সবাইকে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে। অথচ এই নতুন প্রজন্মকেই বিপথগামী করা হচ্ছে। ফাহিম তার বাবাকে পরীক্ষা দিতে যাওয়ার কথা বলে তার শিক্ষকতুল্য একজনকে হামলা করে। এর চেয়ে নিকৃষ্ট ঘটনা আর হতে পারে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-–উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান বলেন, দেশ যে মুহূর্তে উন্নয়নের মহাসড়কে, তখন জামায়াত-শিবিরকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি দেশকে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশের মানুষকে এক হতে হবে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান বলেন, জঙ্গিবাদের নামে জামায়াত-শিবির ‘টার্গেট কিলিং’ করছে। যারা গণতন্ত্র, মানবিকতা ও অসাম্প্রদায়িকতায় বিশ্বাস করে, বেছে বেছে তাদের হত্যা করা হচ্ছে। বাংলাদেশে তথাকথিত ইসলামি দলগুলো রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতায় দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি শাবান মাহমুদ বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি বিএনপি-জামায়াতের প্রেতাত্মারা বেছে বেছে মেধাবীদের ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে। তাদের লক্ষ্য দেশের অগ্রযাত্রায় বাধা দেয়া।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন বিএফইউজের মহাসচিব সাংবাদিক ওমর ফারুক, বিএমএ সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মাহমুদ হাসান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ হামিদুর রহমান, আয়োজক সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা মোহাম্মদ আলী চৌধুরী মানিক, মোতাহার হোসেন, সরদার মোহাম্মদ আকিল আহমেদ ফারুকী, হাবিবুর রহমান, অধ্যাপক এম কামরুজ্জামান, অধ্যাপক মিজানুর রহমান, আবদুল আলীম মিয়া, আসাদুল হক, নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৬, ০৬:২৫ পি. এম.

২৬/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: