মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পূর্ব সুন্দরবনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার : বনজীবীদের স্বস্তি

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৬, ০৬:০০ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ।। প্রায় দুই মাস পর পূর্ব সুন্দরবনে বনজীবীদের প্রবেশের ওপর রবিবার নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে বন বিভাগ। তবে বার বার আগুনে পুড়ে যাওয়া চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশন এলাকায় নিষেধাজ্ঞা বহাল হয়েছে। আগুন লাগার পর গত ২৯ এপ্রিল থেকে পূর্ব সুন্দরবনে বনজীবীদের প্রবেশ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। ফলে গত দুই মাস ধরে পূর্ব সুন্দরবনকেন্দ্রিক দুই লাখের বেশি বনজীবী দুভোগে পড়েন। নিষেধাজ্ঞা তুলে বনজীবীরা মানববন্ধন, সমাবেশ করেন। অবশেষে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ায় তারা স্বস্তি প্রকাশ করেছেন।

সুন্দরবনের খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক জহির উদ্দিন আহমেদ বলেন, পূর্ব সুন্দরবনে একের পর এক নাশকতামূলক অগ্নিকান্ডে ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বনের পূর্ব বিভাগের শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জে প্রবেশের সব ধরনের পাস পারমিট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। বনজীবীদের মানবিক দিক বিবেচনা করে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে। বন বিভাগের নির্দিষ্ট রাজস্ব প্রদান করে পূর্ব সুন্দরবনের বনজীবীরা এখন জীবিকা নির্বাহ করতে পারবেন। তবে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, বনজীবীরা আগের মতো রাজস্ব প্রদান করে বন বিভাগের অনুমতি নিয়ে বনে প্রবেশ এবং মাছ শিকার ও বনজ সম্পদ আহরণ করতে পারবেন। তবে বার বার আগুনে পুড়ে যাওয়া পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের ২৫ নম্বর কম্পার্টমেন্ট এলাকাতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকছে।

বন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরের ২৭ মার্চ পূর্ব সুন্দরবনের ধানসাগর স্টেশনের নাংলী এলাকায় প্রথম আগুন লাগে। এতে বনের ১ দশমিক ৬৬ একর জায়গা পুড়ে যায়। এরপর একই এলাকায় দ্বিতীয় দফায় আগুন লাগে ১৩ এপ্রিল। আগুনে বনের প্রায় সাড়ে আট একর জায়গা পুড়ে যায়। সাত লাখ টাকার পরিবেশ ও বনজ সম্পদের ক্ষতি হয়। বন বিভাগ গঠিত তদন্ত কমিটি আগুন লাগানোর ক্ষেত্রে লোকালয়ের কিছু দুর্বৃত্তদের সম্পৃক্ততা পান।

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৬, ০৬:০০ পি. এম.

২৬/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: