২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

এবার দিয়াবাড়ি খালে ৩ ব্যাগ ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস মিলল


স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ি খাল থেকে এবার ‘তিন ব্যাগ ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস’ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার সকালে খালের ৪ নম্বর ব্রিজের নিচ থেকে ওই ব্যাগগুলো উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। এদিকে মাত্র এক সপ্তাহ আগে খালের ওই স্থান থেকে বিপুল অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছিল। ফায়ার সার্ভিস কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার মিজানুর রহমান জানান, শনিবার সকালে উত্তরার ৪ নম্বর ব্রিজের নিচ থেকে খালে আরও অস্ত্র থাকতে পারে এমন সন্দেহে পুলিশ ডুবুরি পাঠাতে অনুরোধ করে। এগারোটা ৪০ মিনিটে আমাদের তিন ডুবুরি ওই খালে নেমে ব্যাগগুলো উদ্ধার করেন। ব্যাগে ‘ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস’ পাওয়া গেছে।

তুরাগ থানার ওসি মাহবুবে খোদা জানান, দিয়াবাড়ি খাল থেকে তিনটি ট্রাভেল ব্যাগ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত ব্যাগগুলোতে দুটি ওয়্যারলেস, দুটি রিপিটারসহ অন্যান্য সরঞ্জাম পাওয়া গেছে। তবে ওই ব্যাগ থেকে কোন আগ্নেয়াস্ত্র বা গুলি পাওয়া যায়নি বলে জানান ওসি মাহবুব।

ঠিক এক সপ্তাহ আগে গত ১৮ জুন ওই খাল থেকে সাতটি ট্র্যাভেল ব্যাগ ভর্তি ৯৭টি পিস্তল, ৪৬২ ম্যাগজিন, এক হাজার ৬০ গুলি, দশটি বেয়োনেট ও ১০৪ গুলি তৈরির ছাচ উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন একই জায়গা থেকে আরও এক কার্টন ম্যাগজিন উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস। এতে বিপুল অস্ত্র-গুলি উদ্ধারের ঘটনায় উত্তরা থানায় একটি জিডি হয়েছে। ঘটনার তদন্তভার দেয়া হয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ও ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগকে। পুলিশ বলছে, গত ১৮ জুন সাতটি ট্র্যাভেল ব্যাগে খালের ভেতর পাওয়া যায় এই অস্ত্র। ওই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা না হলেও ডিএমপি পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বিএনপি-জামায়াত জোটের দিকে ইঙ্গিত করে বলেছেন, নারী-শিশু হত্যায় জড়িত চক্রটিই ওই অস্ত্র মজুদ করেছিল বলে তার ধারণা। উত্তরার ওই অস্ত্র উদ্ধারের ফলে জাতি বড় ধরনের সহিংসতা ও নাশকতার হাত থেকে বেঁচে গেছে বলেও তিনি মন্তব্য করেছেন।

অন্যদিকে বিএনপি রাষ্ট্রীয় প্রশ্রয়ে দিয়াবাড়ি খালে ওই ‘অস্ত্র ফেলার’ অভিযোগ তুলে বলেছে, ঘটনাটি সরকারের ‘অশুভ মহাপরিকল্পনার’ অংশ। অন্যদিকে পুলিশের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ডিএমপি কমিশনার বলেন, এটি কোন সাধারণ সন্ত্রাসীর কাজ নয়। এগুলো মজুদের সঙ্গে দেশী-বিদেশী চক্র জড়িত।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: