মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ঈদের ‘ইত্যাদি’তে অর্ধশতাধিক বিদেশী শিল্পী

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৬
ঈদের ‘ইত্যাদি’তে অর্ধশতাধিক বিদেশী শিল্পী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ স্টুডিওর চার দেয়াল থেকে টিভি অনুষ্ঠানকে বের করে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে ‘ইত্যাদি’ দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য তুলে ধরে থাকে। এর পাশাপাশি প্রায় দুই যুগ ধরে বিদেশী নাগরিকদের দিয়ে আমাদের লোকজ সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে নিয়মিতভাবে তুলে ধরছে। শুরুর দিকে বিষয়টি ১০-১২ জন বিদেশীর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও বর্তমানে শতকের ঘরে পৌঁছেছে। আর এদের মাধ্যমে আমাদের সংস্কৃতি ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের নানা প্রান্তে। আমাদের এখানে অনেকেই যখন মিডিয়াতে ‘বাংলিশ’ উচ্চারণে পরাশ্রয়ী সংস্কৃতির জোয়ারে গা ভাসিয়ে দিচ্ছে। বিভিন্ন মাধ্যমে যখন আমাদের ভাষার বিকৃতি এবং আমাদের লোক সংস্কৃতি ও গ্রামীণ খেলাধুলাগুলোর বিকৃতি চলছে, সে সময় গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেত পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের বিদেশী নাগরিকদের দিয়ে করেন দেশীয় সংস্কৃতির চর্চা। আর এজন্যে তিনি তাদের নিয়ে যান প্রত্যন্ত অঞ্চলে। বিদেশীদের দিয়ে তাদের ভাষায় অর্থাৎ ইংরেজীর বদলে বাংলা ভাষায় গ্রামের সহজ সরল মানুষের চরিত্রে অভিনয় করিয়ে তুলে ধরেন আমাদের লোকজ সংস্কৃতি। এ ছাড়াও গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহী লাঠিলেখা, হাডুডু, ফুটবল, ডাংগুলো, বাঁশের সাঁকো হাতল ছাড়া পার হওয়া, নদীতে সাঁতার কাটা, দ্রুত গাছে ওঠা এসব গ্রামীণ খেলা যেমন বিদেশীদের দিয়ে দেখানো হয়েছে, তেমনি আমাদের সংস্কৃতি, লোক কাহিনী, চলচ্চিত্র ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ের উপর বিদেশীদের দিয়ে ইতোপূর্বে নির্মিত হয়েছে বিভিন্ন পর্ব। শুধু এসব বিষয়ই নয়-বিদেশীদের নিয়ে আমাদের সাধারণ মানুষের মধ্যে এক ধরনের বিচিত্র অনুভূতি কাজ করে, বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে। এদের আচার আচরণ, সংস্কৃতি সবকিছুই আমাদের চাইতে ভিন্ন। সেই মানুষগুলোকেই যখন গ্রামের সহজ-সরল, সাধারণ মানুষ তাদেরই বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করতে দেখেন তখন তারাও একাত্ম হয়ে যান বিদেশীদের সঙ্গে। ইত্যাদির চরিত্রানুযায়ী বিদেশীদের দিয়ে করানো নানা ঘটনার পরিসমাপ্তি ঘটে চমৎকার একটি মেসেজের মাধ্যমে। বিদেশী হয়েও তাদের জন্য প্রায় অসম্ভব এসব খেলা এবং অভিনয়ে যখন তারা অংশগ্রহণ করেন তখন দর্শকরা যেমন বিস্মিত হন, তেমনি আনন্দও পান, পাশাপাশি অনুপ্রাণিত হন। বিদেশীরা মনে করেন এটি তাদের জীবনে একটি নুতন অভিজ্ঞতা এবং আনন্দ। প্রতিবছর দর্শকরা যেমন এই পর্বটির জন্য অপেক্ষায় থাকেন, তেমনি ঢাকায় বসবাসরত বিদেশীরাও অপেক্ষা করতে থাকেন কখন তাদের ডাক পড়বে ইত্যাদি থেকে। শুধু তাই নয় ঢাকার বিদেশী পাড়ায় ইত্যাদি একটি জনপ্রিয় নাম। বছরের এই সময়টাতে বিদেশীদের ছুটি থাকে বলে তাদের পাওয়া খুবই কঠিন। তারপরও অনেকেই ‘ইত্যাদি’তে অংশ নেয়ায় ছুটি ভোগ করেন না। তাদের প্রিয় এই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে নিজেরাই তৈরি করেন ‘ইত্যাদি’ বিদেশী টিম-২০১৬। প্রতি বছরই এ ধরনের টিম গঠিত হয়। প্রতিবছরের মতো যথারীতি এবারও বিদেশীদের নিয়ে ইত্যাদিতে রয়েছে ব্যাপক আয়োজন। এবারের পর্বে অংশগ্রহণ করেছেন পৃথিবীর নানা দেশের ৮২ জন বিদেশী নাগরিক। এদের মধ্যে নৃত্যে অংশগ্রহণ করেছেন ৪০ জন এবং বাকিরা অভিনয় করেছেন। বিদেশীদের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে অভিজ্ঞতার কথা জানতে চাইলে হানিফ সংকেত বলেন- এরা অপেশাদার তবে অনেক পেশাদার শিল্পীরও এদের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। আশা করি প্রতিবারের মতো এবারও এই পর্বটি দর্শকদের অনেক আনন্দ দেবে। ইত্যাদি প্রচার হবে ঈদের পরদিন রাত ১০-১০ মিনিটে, বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে। ‘ইত্যাদি’ রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন, স্পন্সর করেছে কেয়া কস্মেটিকস্ লিমিটেড।

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৬

২৬/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: