১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

এখনই ইইউ ছাড়ুন


ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ত্যাগের পক্ষে ব্রিটেন ভোট দেয়ার পর হতবুদ্ধি ইইউ যথাশীঘ্র সম্ভব ব্লক ছেড়ে যেতে ব্রিটেনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। ব্রিটেনের পদক্ষেপে আরও দেশে গণভোট দাবি করতে উৎসাহ যোগাতে পারে এমন আশঙ্কায় জার্মান চ্যান্সেলর এ্যাঞ্জেলা মেরকেল ও ফরাসী প্রেসিডেন্ট ফাঁসোয়া ওলাদ ব্রিটেনের সঙ্গে সম্পর্কছেদের পর ব্লককে টিকিয়ে রাখতে এতে সংস্কার আনার ডাক দিয়েছেন। খবর এএফপির।

ইইউ প্রধানরা কড়া ভাষায় লেখা এক যৌথ বিবৃতিতে ব্রিটিশ জনগণের এ সিদ্ধান্তকে যথাশীঘ্র সম্ভব কার্যকর করতে ব্রিটেনকে বলেছেÑ সেই প্রক্রিয়া যতই বেদনাদায়ক হোক না কেন।

প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের এক ঘোষণার পর ইইউ ঐ আপোসহীন বক্তব্য দিল। ক্যামেরন তার ঘোষণায় বলেন, তিনি অক্টোবর নাগাদ পদত্যাগ করবেন এবং ২৮ জাতির

ঐ ব্লক থেকে ব্রিটেনের বিদায় সম্পর্কে আলোচনা চালানোর দায়িত্ব তার উত্তরাধিকারীর ওপর ছেড়ে দেবেন। ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান জ্যঁ ক্লদ জাঙ্কার বলেন, ব্রিটেন ইইউ ত্যাগের পক্ষে ভোট দেয়ায় তিনি খুবই দুঃখিত হয়েছেন, কিন্তু তিনি ব্রিটেনের সদস্যপদ নিয়ে আর কোন আলোচনা হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেন। ইইউ পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট মার্র্টিন শুলজ নিশ্চিতভাবে বলেছেন, ব্লক চায় ব্রিটেন যতশীঘ্র সম্ভব বেরিয়ে যাক। তিনি সতর্ক করে দেন যে, ব্রেক্সিট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার আলোচনা উত্তরাধিকারী না আশা পর্যন্ত স্থগিত রাখতে ডেভিড ক্যামেরনের সিদ্ধান্ত যথেষ্ট দ্রুত প্রক্রিয়া নাও হতে পারে। তিনি বলেন, টোরি পার্টির অন্তর্কলহের কারণে গোটা মহাদেশকেই জিম্মি রাখা মেনে নেয়া কঠিন। উদ্বিগ্ন ইউরোপীয় নেতারা আগামী দিনগুলোতে সঙ্কট নিয়ে কয়েক দফা বৈঠকে মিলিত হবেন। মেরকেল বলেন, তিনি এক সংস্কার পরিকল্পনা তৈরি করতে সোমবার বার্লিনে ফ্রান্স ও ইতালির নেতৃবৃন্দ এবং ইইউ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্কের সঙ্গে আলোচনা করবেন। মেরকেল বার্লিনে সাংবাদিকদের বলেন, আমরা ব্রিটিশ জনগণের সিদ্ধান্ত দুঃখের সঙ্গে লক্ষ্য করছি। এটি নিঃসন্দেহে ইউরোপ ও ইউরোপের একত্রীকরণ প্রক্রিয়ার প্রতি এক আঘাত। বিশ্ব বাজারে অস্থিরতা চলার মধ্যে তিনি বলেন, গ্রেট ব্রিটেনের গণভোট থেকে দ্রুত ও সহজ সিদ্ধান্তে না পৌঁছানোই ভাল। এতে ইউরোপ আরও বিভক্ত হয়ে পড়বে। ওলাঁদ বলেন, ব্রেক্সিট ভোট ইউরোপের জন্য এক গুরুতর পরীক্ষা। তিনি বলেন, অর্থনৈতিক ও আর্থিক ঝুঁকি মোকাবেলা করতে গিয়ে ব্লককে অবশ্যই দৃঢ়তা ও শক্তি দেখাতে হবে। তিনি বলেন, ইইউ থেকে ব্রিটিশদের যথাশীঘ্র সম্ভব চলে যাওয়া উচিত।

ইতালির প্রধানমন্ত্রী মাত্তেও বেলজি সংস্কারের আহ্বানের প্রতিধ্বনি করে বলেন, ইউরোপ আমাদের বাসভবন এবং বাসভবনের সংস্কার করা প্রয়োজন। গ্রীক প্রধানমন্ত্রী আলেক্সিস সিúরাস বলেন, ব্রিটিশ গণভোটের ফলাফল ইইউর নীতি পাল্টানোর এক সতর্কবাণী হতে পারে। কিন্তু তিনি হুঁশিয়ার করে দেন যে, এটি আমাদের জাতিগুলোর জন্য বিপজ্জনক পশ্চাৎমুখী যাত্রার সূচনাও হতে পারে। ইইউ প্রধান ও পোল্যান্ডে সাবেক প্রধানমন্ত্রী টাস্ক জোর দিয়ে বলেন, ব্লক ২৭ জাতি নিয়েই এর ঐক্য অক্ষুণœ রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। তিনি বলেন, ইইউর অবশিষ্ট দেশগুলোর নেতারা আগামী সপ্তাহে ব্রাসেলসে ২৮টি দেশের পূর্ণাঙ্গ শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে ক্যামেরনকে ছাড়াই পৃথক পৃথকভাবে বৈঠকে মিলিত হবেন। জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্যাঙ্ক ওয়াল্টার স্টেইনমেইয়ার শনিবার বার্লিনে বলেন, ইইউ ব্রেক্সিটের আঘাত কাটিয়ে উঠবে। তিনি ইইউর ছয়টি প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে যোগ দেয়ার সময় একথা বলেন।