২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আমতলীতে ধর্ষক খুন করলো ধর্ষিতার বাবাকে ॥ আটক ২


নিজস্ব সংবাদদাতা, আমতলী (বরগুনা)॥ বরগুনার আমতলী উপজেলার পূর্ব চিলা গ্রামের ধর্ষিতার বাবা আসাদুর রহমানকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ধর্ষণ মামলার আসামী সুমন হাওলাদার (২৫)। ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, ২০১৪ সালে ১০ মে উপজেলার পূর্ব চিলা গ্রামের আসাদুর রহমানের শিশু কন্যাকে (১০) ধর্ষণ করে প্রতিবেশী সুমন হাওলাদার। এ ঘটনায় ১৮ মে বরগুনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে সুমনকে আসামী করে শিশু কন্যার মা রিনা বেগম মামলা করেন। এ মামলায় আসামী সুমন ৭ মাস জেল হাজতে ছিল। হাজত থেকে বের হয়ে সুমন ও তার লোকজন মামলা তুলে নেয়ার জন্য শিশুর বাবাকে হুমকি দেয়। কিন্তু শিশুর বাবা আসাদুর রহমান মামলা তুলে নিতে রাজি হয়নি। পরে তাদের ভয়ে তিনি বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে ঢাকায় যায়। গত তিন দিন পূর্বে ঢাকা থেকে বাড়ীতে আসে। সে বাড়ীতে আসায় তাকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য পুনরায় হুমকি দেয়। এতে সে রাজি না হওয়াতে ক্ষিপ্ত হয় সুমন। এ ছাড়াও আসাদুর রহমানের সাথে সুমন হাওলাদারের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ রয়েছে। ঘটনার দিন মঙ্গলবার বিকেলে আসাদুর রহমান পুজাঁখোলা খাল খননের কাজ দেখতে যায়। এ সময় খান খননের কাজ নিয়ে সুমনের বড় ভাই মনির হাওলাদারের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় সুমন আসাদুর রহমানের মাথায় রট দিয়ে আঘাত করে। এতে আসাদুর রহমান গুরুতর আহত হয়। আহতকে রাতে দ্রুত আমতলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তেংমং তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেন। বরিশাল নেয়ার পথে লেবুখালী ফেরীঘাট নামক স্থানে রাত ১০ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী রিনা বেগম বাদী হয়ে আমতলী থানায় ধর্ষক সুমনকে প্রধান করে ১৪ জনের নামে হত্যা মামলা করেছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত রব্বানী ও ইলিয়াস নামের দু’জনকে রাতেই আটক করেছে এবং লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠিয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: