১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে শ্রদ্ধা ভালবাসায় স্নাত হলেন প্রধানমন্ত্রী


বিশেষ প্রতিনিধি ॥ অসাম্প্রদয়িক ও উন্নত সোনার বাংলাদেশ গড়ার যে স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন শেখ হাসিনা তা বাস্তবায়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পুরোপুরি বাস্তবায়নের জন্য শেখ হাসিনাকে আরও সময় দিতে হবে। দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র রুখে দিয়ে ২০১৯ সালের নির্বাচনেও জনগণের ম্যান্ডেটের মাধ্যমে রাষ্ট্র ক্ষমতায় শেখ হাসিনাকে আনতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার প্রত্যয়ের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৫তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন করেছে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অসংখ্য সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। এ উপলক্ষে সর্বস্তরের মানুষের প্রাণঢালা ভালবাসা, শ্রদ্ধা আর শুভেচ্ছায় স্নাত হলেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। দিবসটি পালনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, শেখ হাসিনার সুন্দর জীবন ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দেশব্যাপী দোয়া, মিলাদ মাহফিল, আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শেখ হাসিনা বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করায় সেখানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুলের তোড়া দিয়ে তাকে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের শুভেচ্ছা জানান।

দিবসটি উপলক্ষে সকালে ধানম-ির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু জাদুঘরের সামনে রক্ষিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী-ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠনের নেতাকর্মীসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সর্বস্তরের মানুষ। এছাড়া বিভিন্ন সংগঠন দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে। দুপুরে ছাত্রলীগের উদ্যোগে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে এই শোভাযাত্রা শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক ও আশপাশের এলাকা প্রদক্ষিণ শেষে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন নেতৃত্ব দেন। বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদের কনফারেন্স রুমে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। সংগঠনের সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুলের সভাপতিত্বে দেশবরেণ্য বুদ্ধিজীবীরা আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। আলোচনা শেষে শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও দেশ-জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) বি ব্লকের নিচে স্থাপিত জাতির পিতার ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অপর্ণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ কামরুল হাসান খান বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষা করা, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার পুরোপুরি বাস্তবায়ন করা, বাঙালীর ঐহিত্য ও সংস্কৃতিকে রক্ষা করা, গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষা করাসহ অসাম্প্রদায়িক ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। শ্রদ্ধা নিবেদনকালে অন্যান্যের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডাঃ এ এস এম জাকারিয়া স্বপন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আলী আসগর মোড়ল, রেজিস্টার অধ্যাপক ডাঃ এবিএম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হাবিবুর রহমান দুলাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: