মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৪ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

এবারও জো রুট

প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৬
  • টানা দ্বিতীয়বারের মতো ইংল্যান্ডের বর্ষসেরা ক্রিকেটার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টানা দ্বিতীয়বারের মতো ইংল্যান্ডের বর্ষসেরা (২০১৫-২০১৬ মৌসুম) ক্রিকেটার হলেন জো রুট। লিডসে ইংল্যান্ড টিম এ্যাওয়ার্ড ডিনারে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। বর্ষসেরাসহ মোট তিন-তিনটি বিভাগের পুরস্কার উঠেছে রান-মেশিন রুটের হাতে। বর্ষসেরা টেস্ট-ওয়ানডে দুটি পুরস্কারই জিতেছেন ২৫ বছর বয়সী উইলোবাজ। পাশাপাশি সমর্থকদের ভোটেও সেরা হয়েছেন রুট। ইংল্যান্ডের তো বটেই, গত দেড় বছরে বিশ্ব ক্রিকেটেরই অন্যতম সফল ব্যাটসম্যান তিনি। গত মৌসুমে ২৭ টেস্ট ইনিংসের ১৩টিতেই পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি। সঙ্গে ৩ সেঞ্চুরির সাহায্যে করেছেন ১৩১৬ রান। ইংল্যান্ডের এ্যাশেজ পুনরুদ্ধার এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ঐতিহাসিক সিরিজ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ইয়র্কশায়ারের ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের।

দ্বিতীয়বারের মতো রুটকে বর্ষসেরা হিসেবে বেছে নিতে কমিটির পক্ষে তাই খুব একটা বেগ পেতে হয়নি। বর্তমানে আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে ব্যাটসম্যানদের তালিকায় রয়েছেন দ্বিতীয় স্থানে। মাঝে শীর্ষেও উঠেছিলেন। বিবেচিত সময়ে রঙিন পোশাকেও সমানে ঔজ্জ্বল্য ছড়িয়েছেন। ১৪ ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি ৪টি করে! গড় ৫৯.২৩। স্ট্রাইক রেট ৯৫.৫৩। ১১ টি২০তে ৪১১ রান করেছেন ৪১ গড় ও ১৪৫.২২ স্ট্রাইক রেটে। গত বছরও (২০১৪-২০১৫ মৌসুম) ইংল্যান্ডের বর্ষসেরার খেতাব জিতেছিলেন ‘সুপার’ রুট। ৯৫ গড়ে করেছিলেন ১১৩৫ রান, ছিল ৩টি ১৪৯ বা ততোধিক রানের ইনিংস। ওয়ানডেতে হাঁকিয়েছেন ৩ সেঞ্চুরি। তরুণ এই উইলোবাজ ক্রমশ যেন নিজেকেই ছাড়িয়ে যাচ্ছেন। গড়ে উঠছেন ইংলিশদের আগামীর ভরসা হিসেবে। আর ইংল্যান্ডের বর্ষসেরা নারী ক্রিকেটার হয়েছেন এ্যানাইয়া স্রাবসোল। প্রথমবারের মতো বর্ষসেরা হলেন তিনি। মাঠে ইংলিশ মেয়েদের কঠিন সময় গেলেও দারুণ পারফর্মেন্স করেছেন ডানহাতি মিডিয়াম পেসার। সমর্থকদের ভোটে অবশ্য বর্ষসেরা হয়েছে সদ্য অবসরে যাওয়া কিংবদন্তি অধিনায়ক শার্লট এডওয়ার্ডস। ২৪ বছর বয়সী স্রাবসোল গত বছর তিন ফরমেট মিলিয়ে ৩২টি উইকেট নেন। যেখানে নারী এ্যাশেজে তার ৬৩ রানে ৪ উইকেট ছিল কার্যকরী। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই কার্ডিফে টি২০তে ১১ রানের বিনিময়ে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট ও বেনোনিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও তাই, সিরিজে তিন ম্যাচে ৭ উইকেট। আর ভারতের মাটিতে টি২০ বিশ্বকাপে ৫ উইকেট। বাংলাদেশে অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপ খেলে যাওয়া ব্যাটসম্যান ড্যান লরেন্স হয়েছেন ‘ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রামের’ বর্ষসেরা ক্রিকেটার। সেরা শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেটার ক্যালাম ফ্লিন।

পঞ্চাশ বছরের বেশি সময় ধরে ক্রিকেটে নানামুখী অবদানের জন্য সাবেক ক্রিকেটার, কোচ, আম্পায়ার, সাংবাদিক, লেখক ও জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ডেভিড লয়েড পেয়েছেন ‘স্পেশাল এ্যাচিভমেন্ট এ্যাওয়ার্ড’।

প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৬

১৮/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: