২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আজ জিতলেই শীর্ষে ভিক্টোরিয়া


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রাইম দোলেশ্বরের কাছে সোমবার হারের পরও রানরেটে শীর্ষস্থান বজায় রেখেছে মোহামেডান। তবে আজ ‘সাদা-কালো’ শিবির সেই স্থান থেকে ছিটকে যেতে পারে। যদি ক্রিকেট কোচিং স্কুলকে (সিসিএস) হারিয়ে দেয় ভিক্টোরিয়া। সেটি সম্ভবও। সিসিএস যে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগের সবচেয়ে দুর্বল দল! এ দলটিকে হারিয়ে দিলেই সপ্তম রাউন্ড শেষে ভিক্টোরিয়াই থাকবে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে। সবচেয়ে বেশি ১১ পয়েন্ট যে ভিক্টোরিয়ার হয়ে যাবে। ম্যাচটি ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল নয়টায় যখন ভিক্টোরিয়ার শীর্ষস্থানে ওঠার লড়াই শুরু হবে, এমন সময়ে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স মুখোমুখি হবে। এ ম্যাচটি দুইদলের জন্যই খুব গুরুত্বপূর্ণ। জয়ও দুইদলের কাছে মহাগুরুত্বপূর্ণ। গাজী গ্রুপ জিতলে সেরা চারে থাকবে। এমনও হতে পারে ভিক্টোরিয়া যদি হেরে যায় এবং গাজী গ্রুপ যদি জিতে তাহলে দলটি সেরা তিনে থাকবে। রানরেট বাড়িয়ে নিতে পারলে শীর্ষস্থানে ওঠার সুযোগও থাকছে! আর শেখ জামাল জিতলে আবাহনীকে পেছনে ফেলবে দলটি। একইদিন বিকেএসপিতে ব্রাদার্স ও কলাবাগান ক্রীড়া চক্র (কেসি) লড়াই করবে। যে ম্যাচটি মাশরাফি বিন মর্তুজার কলাবাগান কেসির জন্য আরেকটি বড় দলকে হারানোর ম্যাচ হলেও ব্রাদার্সের কাছে জিতে সুপারলীগে খেলার আশা জিইয়ে রাখার ম্যাচ।

তিনটি ম্যাচে তিন রকম আবহ আছে। তবে সব ম্যাচেই একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা আছে। সেটি হচ্ছে, জয়। যে জয়টি মিললে সবদলেরই আসলে সুপারলীগের সেরা ৬টি দল হওয়ার সুযোগ থাকবে। সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে চলছে দলগুলো।

তবে ভিক্টোরিয়ার জন্য যেন শীর্ষে ওঠার সুবর্ণ সুযোগ ধরা দিয়েছে। এখন আছে দলটির ভা-ারে ৬ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট। আজ জিতলে হবে ১১ পয়েন্ট। এমন এক দলের বিপক্ষে খেলা, যারা এখন পর্যন্ত কোন ম্যাচেই জিততে পারেনি। সেই দলটিকে হারানো ভিক্টোরিয়ার কাছে সহজই হওয়ার কথা। তা হলেই বাজিমাত হয়ে যাবে। সিসিএস টানা ৭ ম্যাচে তখন হারের স্বাদ পাবে। ঢাকা লীগে এবার এই একটি দলই বাকি আছে, যারা একটি জয়ও পায়নি। কলাবাগান সিএ দলটিও হারের গোলকধাঁধাতে ছিল। কিন্তু দলটি সোমবার আবাহনীকে হারিয়ে বলতে গেলে চমকই জাগিয়েছে। তাতে করে ৬ ম্যাচ পর একটি জয়ও পেয়েছে। সিসিএসও সেই চেষ্টাতেই আছে। কিন্তু তাদের আশা কি পূর্ণ হবে?

সিসিএস, কলাবাগান সিএ যে সুপারলীগে খেলতে পারবে না, তা সবারই ধারণা হয়ে গেছে। তবে বাকি সব দলেরই এখনও সুযোগ রয়েছে। সেই সুযোগ আছে সবচেয়ে বেশি গাজী গ্রুপের। আজ জিতলে যে দলটির ১০ পয়েন্ট হয়ে যাবে। আজকের ম্যাচের আগে যে পয়েন্ট শুধু মোহামেডান ও প্রাইম দোলেশ্বরেরই আছে। যদি গাজী গ্রুপ হারে তাতেও ছিটকে পড়বে না। তবে শেখ জামাল ৬ পয়েন্ট থেকে ৮ পয়েন্টে যাবে। যা সুপারলীগে ওঠার পথে আরেকধাপ এগিয়ে যাবে শেখ জামাল।

কলাবাগান কেসি শুরুতে টানা তিনটি ম্যাচ হেরেছে। মনে হয়েছে হারতেই থাকবে। কিন্তু তৃতীয় ম্যাচ থেকে ‘জয়-হারে’র রসায়নে আছে দলটি। আজ সপ্তম ম্যাচ খেলতে নামবে মাশরাফির দল। জয় পেয়েছে ২টিতে।

আজ জিতলে হবে তৃতীয় জয়। তাতে করে আবাহনীর সমান পয়েন্ট পাবে দলটি। কিন্তু প্রতিদিনই কি আর মাশরাফি শতক করবেন? সেই শতকে দলও জিতবে? প্রতিপক্ষ দলটি আবার ব্রাদার্স। যারা ৬ ম্যাচে তিন জয় পেয়ে ৬ পয়েন্ট পেয়েছে।

আজ জিতলে ৮ পয়েন্ট হবে। সেই সুযোগ কি আর হাতছাড়া করবে ব্রাদার্স। সুপারলীগে খেলার পথে আরেকধাপ এগিয়ে যেতে হলে যে ব্রাদার্সের কাছে আজকের জয়টি খুব গুরুত্বপূর্ণ। এখন দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত কি ঘটে। তবে ভিক্টোরিয়া শীর্ষে ওঠার সুযোগটি কাজে লাগাতে পারে কিনা, সেদিকেই সবার নজর থাকবে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: