১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মূসক আইন সংশোধনে সবুজ সংকেত


অর্থনৈতিক রিপোর্টার॥ মূল্য সংযোজন কর (মূসক) আইন সংশোধনে সবুজ সংকেত পেতে যাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। মঙ্গলবার এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ।

মতিঝিলের এফবিসিসিআই ভবনের কনফারেন্স রুমে ‘কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স অব মেডিসিনাল প্লান্টস অ্যান্ড হারবাল প্রোডাক্টস ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি বলেন, নতুন ভ্যাট আইনের সংশোধন নিয়ে অর্থমন্ত্রণালয় প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়েছি। তাই এবার কাজ হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, মূসক আইন সংশোধনের জন্য গত রোববার এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদের স্বাক্ষরিত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে। ওই চিঠির সঙ্গে বেশ কিছু সংশোধনী প্রস্তাব যুক্ত করে এফবিসিসিআই তা বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন চেয়েছে। এনিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে মূসক আইন বিষয়ে তিন দফা চিঠি দিয়েছে সংগঠনটি।

গত ২৪ এপ্রিল পাঠানো প্রথম চিঠিতে মূসক আইনের সংশোধনী চাওয়া হয়েছিল। পরের চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চেয়েছিলেন ব্যবসায়ীরা।

জানা যায়, নতুন চিঠিতে এফবিসিসিআই সব পর্যায়ে কর মুক্তির সীমা ২৪ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩৬ লাখ টাকা করতে মূসক আইনের ২(৪৮) ধারা এবং ৩৬ লাখ টাকা থেকে দেড় কোটি টাকা লেনদেন পর্যন্ত ৩ শতাংশ হারে টার্নওভার কর আরোপের জন্য ২(৫৭) ধারার সংশোধন চেয়েছে। এ দুটি ক্ষেত্রে ‘উল্লেখিত টাকার সীমা’ শব্দগুলো যোগ করলেই সমস্যার সমাধান হবে বলে প্রস্তাবে বলা হয়েছে।

অনাদায়ী করের জন্য করদাতার সব আত্মীয়কে দায়ী করার বিষয়টি বাতিল করার দাবি করা হয়েছে এফবিসিসিআইয়ের প্রস্তাবে। এ জন্য ২(৯৭) ধারার ‘ক’ উপধারা থেকে ‘ব্যক্তির কোনো আত্মীয়’ কথাটি বাদ দেওয়ার দাবিসহ বেশকিছু প্রস্তাব করা হয়েছে চিঠিতে।

##